সুপ্রিয় পাঠক/শ্রোতা! ১ জানুয়ারি সোমবারের কথাবার্তার আসরে স্বাগত জানাচ্ছি আমি গাজী আবদুর রশীদ। আশা করছি আপনারা প্রত্যেকে ভালো আছেন। শুরুতেই ঢাকা ও কোলকাতার গুরুত্বপূর্ণ বাংলা দৈনিকগুলোর বিশেষ বিশেষ খবরের শিরোনাম।

বাংলাদেশের শিরোনাম:

  • নকল ওষুধের কারবার-তিন বছরেই শতকোটি টাকার মালিক দুলাল-দৈনিক যুগান্তর
  • রাজনৈতিক পরিস্থিতি উত্তপ্ত হলে ক্ষতি হবে অর্থনীতির-নতুন বছরে নতুন চ্যালেঞ্জ-দৈনিক ইত্তেফাক
  • তারেক, বাবরসহ ৪৯ জনের মৃত্যুদণ্ড চেয়েছে রাষ্ট্রপক্ষ-দৈনিক প্রথম আলো
  • শিশুদের হাতে নতুন বই-দৈনিক মানবজমিন
  • আ’লীগকে তিনবার ক্ষমতায় আনার বিনিময়ে কিছুই পাইনি : এরশাদ-দৈনিক নয়া দিগন্ত

ভারতের শিরোনাম:

  •  বিজেপিতে যোগদানের আবেদন জানিয়ে চিঠি ভারতী ঘোষের -দৈনিক আজকাল 
  • পাক হামলা চলছেই, সার্জিক্যাল স্ট্রাইককে ‘নাটক’ বলে কটাক্ষ কংগ্রেস নেতার-সংবাদ প্রতিদিন-দৈনিক সংবাদ  প্রতিদিন

প্রিয় পাঠক/শ্রোতা! এবারে চলুন, বাছাইকৃত কয়েকটি খবরের বিস্তারিত জেনে নেয়া যাক। প্রথমেই বাংলাদেশ-

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

বাংলাদেশর জনগণকে নতুন ইংরেজি বছর ২০১৮ সালের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া

তাছাড়া শেরেবাংলা নগরে মাসব্যাপী ২৩ তম বাণিজ্যমেলার উদ্বোধন করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাংলাদেশ নিজের পায়ে দাঁড়িয়েছে বলেই বেশিরভাগ উন্নয়ন নিজস্ব অর্থায়নে বাস্তবায়িত হয়েছে। তিনি ওষুধ শিল্পের কাঁচামালকে' প্রোডাক্ট অব দ্যা এয়ার' হিসেবে ঘোষণা করেছেন। এ সম্পর্কিত খবর আজকের প্রায় সব জাতীয় দৈনিক ও অনলাইন পোর্টালগুলোতে পরিবেশিত হয়েছে।  

শিশুদের হাতে নতুন বই-দৈনিক মানবজমিন

নতুন বছরে শিশুদের হাতে নতুন বই

বছরের প্রথম দিন মানেই শিশুদের জন্য অন্যরকম এক উৎসবের দিন। কারণ প্রতিবছর দিনটিতে তারা হাতে পায় নতুন বই। বেশ উৎসবের আমেজেই শিশুদের হাতে নতুন বই তুলে দেয়া হয়েছে। নতুন এ বই পেয়ে দারুণ উচ্ছ্বাসও দেখা মিলেছে তাদের মাঝে। এ চিত্র শুধু রাজধানীতেই নয়, সারাদেশেই দেখা গেছে। নতুন বছরের প্রথম দিনে সারাদেশের চার কোটি ৪২ লাখ চার হাজার ১৯৭ শিক্ষার্থীর হাতে বই পৌঁছে দেয়ার এ আয়োজন করেছে সরকার। শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, কোটি কোটি বই বিতরণ বিশ্বের বিস্ময়।

তবে নতুন বই নিয়ে  ইত্তেফাকের একটি খবরের শিরোনাম এরকম যে, ভুয়া স্কুল ভুয়া শিক্ষার্থী: নতুন বই তোলার হিড়িক

মুদির দোকানে নতুন বই

খবরটিতে লেখা হয়েছে, কোনো রকমে একটি টিনের ঘর তুলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নামে সরকারি বই, বিস্কুট তুলে চলছে হরিলুট। নেই শিক্ষার পরিবেশ, শিক্ষার উপকরণ এমনকি মাসে একবারও ওঠেনা জাতীয় পতাকা। নামসর্বস্ব গঁজিয়ে ওঠা এ প্রতিষ্ঠানগুলোতে শিক্ষা বিস্তারের নামে চলছে সহজে সরকারি চাকুরি পাওয়া ও স্কুল, মাদ্রাসা সরকারি করণের অসুস্থ প্রতিযোগিতা।

এদিকে যুগান্তরের খবরের শিরোনাম- মুদি দোকানে বিনামূল্যের পাঠ্যবই, আটক ১। খবরটিতে লেখা হয়েছে, ময়মনসিংহের কালিকাপুর থেকে প্রায় দুই হাজার সরকারি পাঠ্যবই উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য একজনকে আটক করেছে ডিবি পুলিশ।

রাজনৈতিক পরিস্থিতি উত্তপ্ত হলে ক্ষতি হবে অর্থনীতির-নতুন বছরে নতুন চ্যালেঞ্জ-দৈনিক ইত্তেফাক

আজ থেকে শুরু হওয়া নতুন বছরে প্রত্যাশার মধ্যেও থাকছে কিছু চ্যালেঞ্জ। এসব চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় সক্ষম না হলে অর্থনীতির অনেক সূচকেরই নিম্নগামিতা দেখা দিতে পারে। ব্যবসায়িক অঙ্গনেও নতুন বছর নিয়ে শংকা কাজ করছে। বিশেষত: ২০১৮ সাল নির্বাচনের বছর হওয়ায় নতুন বিনিয়োগ নিয়ে সিদ্ধান্তহীনতায় ভুগছেন বিনিয়োগকারীরা। এমনিতেই গেল বছরেও বিনিয়োগ স্থবিরতা ছিল অর্থনীতির বড় দুর্বলতা।

 সংশ্লিষ্টদের মতে, এ বছর হবে রাজনীতি কর্তৃক পরিচালিত। জাতীয় নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক পরিস্থিতি কি হবে- তা নিয়ে সংশয়, সন্দেহ রয়েছে। বিগত সাধারণ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সৃষ্ট উত্তেজনা নতুন করে দেখা দিতে পারে, এমন শংকা ব্যবসায়ীদের। তা যদি হয়, সার্বিক অর্থনীতি ক্ষতিগ্রস্ত হবে এবং কর্মসংস্থানও বাধাগ্রস্ত হবে বলে মনে করছেন অর্থনীতিবিদরাও।

নকল ওষুধের কারবার-তিন বছরেই শতকোটি টাকার মালিক দুলাল-দৈনিক যুগান্তর

নকল ওষুধ

দশ বছর ওষুধ ব্যবসার সঙ্গে জড়িত রুহুল আমিন ওরফে দুলাল হোসেন। সাত বছর সুনামের সঙ্গে ব্যবসা করলেও তিন বছর ধরে শুরু করেন মরণব্যাধি ক্যান্সারের নকল ওষুধের রমরমা বাণিজ্য। জুয়া খেলে লাখ লাখ টাকা হেরে নকল ওষুধের ব্যবসার পথে পা বাড়ান তিনি। চীন থেকে নকল ওষুধ এনে সরবরাহ শুরু করেন দেশের বাজারে। এভাবেই আলাদীনের চেরাগ হাতে পাওয়ার মতো কয়েকশ’ কোটি টাকার মালিক বনে যান তিনি। সম্প্রতি বিপুল পরিমাণ ক্যান্সারের নকল ওষুধসহ তিনজনকে গ্রেফতার করে অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। গ্রেফতারদের জিজ্ঞাসাবাদে এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য পেয়েছেন সিআইডির কর্মকর্তারা।

সিআইডি ও স্থানীয় সূত্র জানায়, দুলাল মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর থানার ভাগ্যকুল এলাকার পান্নু চৌধুরীর ছেলে। এলাকায় তিনি জুয়াড়ি দুলাল নামে পরিচিত। নকল ওষুধের কারবার করে এলাকায় গড়ে তুলেছেন বিলাসবহুল বাংলো। ঢাকায় রয়েছে তার নামে একাধিক ফ্ল্যাট। আবার জুয়ার আসরে গিয়ে প্রতিদিন উড়ান লাখ লাখ টাকা। সিআইডির হাতে গ্রেফতারের দিনও তার কাছে জুয়া খেলার আড়াই লাখ টাকার চিপ পাওয়া যায়।

তারেক, বাবরসহ ৪৯ জনের মৃত্যুদণ্ড চেয়েছে রাষ্ট্রপক্ষ-দৈনিক প্রথম আলো পত্রিকার অনলাইন সংস্করণের শিরোনাম

তারেক বাবরসহ ৪৯ জনের মৃত্যুদণ্ড চেয়েছে রাষ্ট্রপক্ষ

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা সংক্রান্ত দুটি মামলায় তারেক রহমান, লুৎফুজ্জামান বাবর, আবদুস সালাম পিন্টুসহ ৪৯ জন আসামির সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড দাবি করেছে রাষ্ট্রপক্ষ। আজ সোমবার রাষ্ট্রপক্ষের প্রধান কৌঁসুলি সৈয়দ রেজাউর রহমান আইনগত বিষয়ে যুক্তি-তর্ক উপস্থাপন করে এ শাস্তি দাবি করেন।

গত ২৭ ডিসেম্বর রাষ্ট্রপক্ষ ২৪৫ জনের সাক্ষ্য পর্যবেক্ষণের আলোকে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ করেছিল। আজ ১ জানুয়ারি (২০১৮) আসামিপক্ষে যুক্তিতর্ক এবং রাষ্ট্রপক্ষে আইনগত যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের জন্য দিন ধার্য ছিল। আসামিপক্ষ সময় চেয়ে আবেদন করায় আদালত তা মঞ্জুর করে আগামীকাল পর্যন্ত শুনানি মুলতবি করেন।

জ্বালিয়ে দেয়া হয়েছে পুরো রাখাইন-দৈনিক মানবজমিন

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সেনাবাহিনীর ধ্বংসযজ্ঞ

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের ৩৫৪টি গ্রাম পুড়িয়ে দিয়েছে দেশটির সেনাবাহিনী। জাতিসংঘের উপগ্রহ কার্যক্রম (ইউনোস্যাট) থেকে প্রাপ্ত তথ্য-উপাত্ত রাখাইনের ম্যাপে চিহ্নিত করে একটি গ্রাফিক্স তৈরি করেছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। এতে স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে, পুরো রাখাইনজুড়ে রোহিঙ্গা মুসলিম জনগোষ্ঠীর গ্রামগুলোতে ধংসযজ্ঞ চালিয়েছে বর্মী সেনারা। 

গেল ২৫ শে আগস্ট থেকে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা মুসলিম জনগোষ্ঠীর ওপর নির্মম অভিযান শুরু করে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী। নিপীড়নের মুখে প্রাণ বাঁচাতে গেল চার মাসে ভিটেমাটি ছেড়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে আনুমানিক ৬ লাখ ৫৫ হাজার রোহিঙ্গা।

এদিকে  বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, রোহিঙ্গা সংকটের সমাধান না হলে মিয়ানমারকে চরম মুল্য দিতে হবে।

আ’লীগকে তিনবার ক্ষমতায় আনার বিনিময়ে কিছুই পাইনি : এরশাদ-দৈনিক নয়া দিগন্ত

এইচ এম এরশাদ

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, আওয়ামী লীগ তিনবার আমাদের সহযোগিতায় ক্ষমতায় এসেছে। বিনিময়ে কিছুই পাইনি। আগামী নির্বাচনে জাতীয় পার্টি বড় ফ্যাক্টর হবে। অন্যদিকে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, অংশগ্রহণ মূলক নির্বাচন সরকারের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ তবে যত শঙ্কাই থাকুক না কেন শেষ পর্যন্ত সুষ্ঠু নির্বাচন হবে এবং বিএনপিও নির্বাচনে অংশ নেবে।

এবার কোলকাতার দৈনিকগুলোর কয়েকটি খবরের বিস্তারিত

বিজেপিতে যোগদানের আবেদন জানিয়ে চিঠি ভারতী ঘোষের-দৈনিক আজকাল

ভারতী ঘোষ

শোরগোল ফেলে দিলেন ভারতী ঘোষ। বিজেপিতে যোগদান করতে চেয়ে লিখিত আবেদন জানিয়েছেন এই বিতর্কিত আইপিএস অফিসার। যা নিয়ে রাজ্য রাজনীতি ও আমলা মহলে তোলপাড় শুরু হয়ে গেছে। বিজেপি সূত্রে খবর, রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের কাছে গেরুয়া শিবিরে যোগদানের ইচ্ছাপ্রকাশ করে লিখিত আবেদন জমা দিয়েছেন ভারতী ঘোষ। পাশাপাশি মুকুল রায়কে দেওয়া চিঠিতেও একই ইচ্ছাপ্রকাশ করেছেন ভারতী। 

চলতি সপ্তাহেই পশ্চিম মেদিনীপুরের পুলিস সুপারের পদ থেকে ব্যারাকপুরের তৃতীয় ব্যাটেলিয়নে বদলি করা হয় ভারতী ঘোষকে। এরপরই রাজ্য পুলিসের ডিজি সুরজিৎ করপুরকায়স্থর কাছে ইস্তফাপত্র পাঠান তিনি।

পাক হামলা চলছেই, সার্জিক্যাল স্ট্রাইককে ‘নাটক’ বলে কটাক্ষ কংগ্রেস নেতার-সংবাদ প্রতিদিন

ভারতীয় সেনাবাহিনী

২০১৬-র সেপ্টেম্বরে সার্জিক্যাল স্ট্রাইক। পাক সীমান্তে ঢুকে জঙ্গিদের লঞ্চপ্যাড ধ্বংস। সেনাদের এই সাফল্যকে ফলাও করে প্রচার করেছিল প্রশাসন। এই সেদিনও ফের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে তিন পাক সেনাকে খতম করেছে ভারত। কিন্তু তাতেও পাক সন্ত্রাসে লাগাম পরানো যাচ্ছে না। এবার সার্জিক্যাল স্ট্রাইককেই সরকারের নাটক বলে কটাক্ষ কংগ্রেস নেতা সন্দীপ দীক্ষিতের। তাঁর মতে গোটাটাই লোকদেখানো।

ভারতের মাটিতে পাক সন্ত্রাস গত এক বছরে বেড়েছে বই কমেনি। সন্ত্রাস দমনের লক্ষে চালানো হয়েছিল সার্জিক্যাল স্ট্রাইক। ভারতের পক্ষ থকে তা সেনার বড় সাফল্য বলেই তুলে ধরা হয়েছিল। কিন্তু বাস্তবে দেখা যাচ্ছে, তার কোনও প্রভাব পাকিস্তানের উপর পড়েনি। এক বছরে শতাধিকবার সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন করেছে পাক সেনা।

নিরপেক্ষ ভেন্যুতেও পাকিস্তানের সঙ্গে ক্রিকেট নয়, সাফ কথা সুষমার-দৈনিক সংবাদ প্রতিদিন

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ

দু’দেশের মাটিতে তো নয়ই, তৃতীয় কোনও দেশেও ভারত-পাকিস্তান ক্রিকেট সিরিজ হওয়ার আপাতত কোনও সম্ভাবনা নেই। সাফ জানিয়ে দিলেন বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ। তিনি বলেছেন, কুটনৈতিক স্তরে ভারত ও পাকিস্তানের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে স্বাভাবিক করার চেষ্টা চলছে। মহিলা ও বয়স্ক বন্দিদের মুক্তি দেওয়া প্রস্তাবও দেওয়া হয়েছে। কিন্তু, কাশ্মীরে যেভাবে লাগাতার সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন কর চলেছে পাকিস্তান, তাতে ক্রিকেট সিরিজ চালু করার মতো পরিস্থিতি এখনও তৈরি হয় নি।#

পার্সটুডে/গাজী আবদুর রশীদ/১

২০১৮-০১-০১ ১৬:৩৭ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য