প্রিয় পাঠক/শ্রোতা! ১০ সেপ্টেম্বর সোমবারের কথাবার্তার আসরে আপনাদের সবাইকে স্বাগত জানাচ্ছি। আশা করছি আপনার প্রত্যেকে ভালো আছেন। আসরের শুরুতেই দেখে নেব ঢাকা ও কোলকাতা থেকে প্রকাশিত প্রধান প্রধান বাংলা দৈনিকের গুরুত্বপূর্ণ কিছু শিরোনাম:

বাংলাদেশের শিরোনাম:

  • তফসিলের আগেই সংসদ ভেঙে দিতে হবে: ফখরুল- দৈনিক সমকাল
  • মানববন্ধন থেকে বিএনপির শতাধিক নেতাকর্মী আটক- দৈনিক যুগান্তর
  • টার্গেট নির্বাচন: রাজনীতিতে কৌশল পাল্টা কৌশলের খেলা- দৈনিক নয়াদিগন্ত
  • ইসি সচিব: ৩০ অক্টোবরের পর যেকোনো দিন তফসিল- দৈনিক প্রথম আলো
  • নির্বাচনকালীন সীমান্তের সুরক্ষায় ভারত-মিয়ানমারের সহযোগিতা চেয়েছে বিজিবি- দৈনিক ইত্তেফাক
  • উদ্বিগ্ন অভিভাবকদের সংবাদ সন্মেলনের একদিন পর গ্রেপ্তার ১২ শিক্ষার্থী- দৈনিক মানবজমিন
  • পদ্মা সেতুর কাজ শেষ হতে আরও ৪ বছর লাগবে!- দৈনিক যায়যায়দিন

ভারতের শিরোনাম:

  • বীরভূমে তৃণমূলের পার্টি অফিসে বিস্ফোরণ, মজুত বোমা নাকি অন্য কিছু, এখনও রহস্য- দৈনিক আনন্দবাজার
  • বাজার খুলতেই ধরাশায়ী টাকার দাম, বন্‌ধের দিন ধস অর্থনীতিতে- দৈনিক আজকাল
  • ‘আমাকে হটানোই মহাজোটের একমাত্র অ্যাজেন্ডা’ মোদির দাবি- দৈনিক বর্তমান

প্রিয় পাঠক/শ্রোতা‍! এবারে চলুন বাছাই করা কয়েকটি খবরের বিস্তারিত জেনে নেয়া যাক। প্রথমেই বাংলাদেশ:

তফসিলের আগেই সংসদ ভেঙে দিতে হবে: ফখরুল- দৈনিক সমকাল

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার আগেই বর্তমান সংসদ ভেঙে দেয়ার দাবি জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, তফসিলের আগেই সংসদ ভেঙে দিতে হবে। নিরপেক্ষ ও নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে। নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন করতে হবে এবং নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েন করতে হবে।

সোমবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে মানববন্ধনে অংশ নিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

ফখরুল বলেন, এসব করার আগে প্রথমে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিতে হবে। তাকে ছাড়া কোনো নির্বাচন হবে না। খালেদা জিয়াকে সম্পূর্ণ মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে কারাগারে রাখা হয়েছে। আমরা কারো দয়া ভিক্ষা করছি না। স্পষ্টভাবে বলতে চাই, সব মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করতে হবে। তাকে মুক্তি দিতে হবে। খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে ঢাকায় প্রেস ক্লাবের সামনে এবং সারাদেশে মহানগর ও জেলা সদরে সোমবার বেলা ১১টা থেকে এক ঘণ্টার এই মানববন্ধন কর্মসূচি চলে।

মানববন্ধন থেকে বিএনপির শতাধিক নেতাকর্মী আটক- দৈনিক যুগান্তর

কারাবন্দি খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে বিএনপির মানববন্ধন কর্মসূচি থেকে শতাধিক নেতাকর্মীকে আটক করেছে রমনা থানা পুলিশ।

সোমবার দুপুর ১২টার পর মানববন্ধন শেষে রাজধানীর শিল্পকলা মোড় ও বিজয়নগর এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়। এ বিষয়ে জানতে চাইলে রমনা জোনের এসি এহসান ফেরদৌস যুগান্তরকে বলেন, আইনশৃঙ্খলা অবনতির আশঙ্কায় তাদের আটক করা হয়েছে।

এর আগে বেলা ১১টার দিকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি শুরু হয়। ঘণ্টাব্যাপী এ মানববন্ধনে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান মো. শাহজাহানসহ কেন্দ্রীয়, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা অংশ নেন।

বেলা ১১টায় মানববন্ধন শুরু হওয়ার কথা থাকলেও সকাল ১০টার দিকেই দাঁড়িয়ে যান হাজার হাজার নেতাকর্মী। মানববন্ধনের কর্মসূচি হলেও ব্যাপক লোক সমাগমে এটি সমাবেশে পরিণত হয়। প্রেসক্লাব ও এর আশপাশে নেতাকর্মীদের অবস্থানের ফলে হাইকোর্টের কদম ফোয়ারার মোড় থেকে পল্টন পর্যন্ত রাস্তার একপাশে যান চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি হয়।

টার্গেট নির্বাচন: রাজনীতিতে কৌশল পাল্টা কৌশলের খেলা- দৈনিক নয়াদিগন্ত

নির্বাচনমুখী রাজনীতিতে নানামুখী তৎপরতা চলছে। এক দিকে ক্ষমতাসীন দল বিরোধীদের দাবি উপেক্ষা করে নিজেদের অধীনেই আরো একটি নির্বাচন করতে সম্ভাব্য সব ‘রাজনৈতিক কৌশল’ নিয়ে মাঠে নেমেছে। অন্য দিকে বিরোধী জোটগুলো একটি অবাধ ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন অনুষ্ঠানে সরকারের ওপর চাপ তৈরির ‘কার্যকর পদক্ষেপ’ নিতে নিজেদের মধ্যে আলাপ-আলোচনা করছে। সরকারের মতিগতি সূক্ষ্ম পর্যবেক্ষণে রেখেছেন বিরোধী নেতারা। তারা মনে করছেন, ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির মতো একতরফা নির্বাচনের কোনো সুযোগ এবার নেই। সরকারকে হয় সমঝোতার পথ বেছে নিতে হবে, না হলে দেশে সঙ্ঘাতময় পরিস্থিতির মতো ঘটনা ঘটতে পারে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে, সরকার ও নির্বাচন কমিশনে নির্বাচনের প্রস্তুতি চলছে জোরেশোরে। অক্টোবরে বিএনপিকে বাদ দিয়েই নির্বাচনকালীন একটি সরকার গঠনের ছোট্ট তালিকা চূড়ান্ত করে ফেলেছে আওয়ামী লীগ। নভেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহে তফসিল ঘোষণা করা হতে পারে। এমন পরিকল্পনা ঠিক থাকলে একাদশ সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে পারে ডিসেম্বরের শেষে সপ্তাহে।  

তবে দিন যত এগোচ্ছে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের পথে খালেদা জিয়ার মুক্তি, অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানের নানা দাবি-দাওয়া ‘ফ্যাক্টর’ হয়ে দাঁড়ানোর ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে। নির্বাচন সঠিক সময়ে হবে কি না সে ধরনের শঙ্কাও উঁকিঝুঁকি মারছে।

ইসি সচিব: ৩০ অক্টোবরের পর যেকোনো দিন তফসিল- দৈনিক প্রথম আলো

৩০ অক্টোবরের পর যে কোনো দিন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হতে পারে। আজ সোমবার নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিবালয়ের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ সাংবাদিকদের এ কথা বলেছেন।

রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে ইসি সচিব সাংবাদিকদের বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রস্তুতির ৮০ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে। নির্বাচনের প্রস্তুতি হিসেবে ৩০০ সংসদীয় আসনের সীমানা পুনর্নির্ধারণ, ১০ কোটি ৪১ লাখ ভোটারের তালিকার কাজ শেষ হয়েছে। ভোটার তালিকার সিডি করা হয়েছে। আগামী ২৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সব জেলা এবং উপজেলাতে এই সিডি পাঠিয়ে দেওয়া হবে। গত ৫ আগস্ট ভোটকেন্দ্রের খসড়া তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। দাবি আপত্তি শুনানি শেষে ভোটকেন্দ্র নীতিমালা অনুসারে সব ঠিক করে ৬ সেপ্টেম্বর মাঠপর্যায়ে চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হয়। এখন সেগুলো কমিশনে পাঠাবে। তারপর সেগুলো যাচাই–বাছাই করে নির্বাচনের ২৫ দিন আগে ভোটকেন্দ্রের গেজেট প্রকাশ করা হবে।

নির্বাচনকালীন সীমান্তের সুরক্ষায় ভারত-মিয়ানমারের সহযোগিতা চেয়েছে বিজিবি- দৈনিক ইত্তেফাক

নির্বাচনকালীন সীমান্তে সুরক্ষার জন্য ভারত ও মিয়ানমারের কাছে সহযোগিতা চেয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। অাজ সোমবার বিজিবি সদর দফতরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল সাফিনুল ইসলাম এ কথা জানান।  

গত ৩ সেপ্টেম্বর- ৮ সেপ্টেম্বর দিল্লীতে অনুষ্ঠিত ডিজি পর্যায়ে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত সম্মেলন বৈঠকের অগ্রগতি সংক্রান্ত বিষয় জানাতে এ সংবাদ সম্মেলন আহ্বান করা হয়।

দুই সীমান্তরক্ষী বাহিনী সীমান্তে হত্যা শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনার চেষ্টা করছে জানিয়ে বিজিবির ডিজি বলেন, ২০০১ সালে ৭১ জন, ২০১০ সালে ৬০ জন, ২০১৫ সালে ৪৫ জন, ২০১৬ তে ৩১ জন, ২০১৭ সালে ২২ জন ও চলতি বছরের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত একজন হত্যার শিকার হয়েছেন। সেক্ষেত্রে আমরা আশা করছি এই হত্যার ঘটনা শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনতে পারবো।

উদ্বিগ্ন অভিভাবকদের সংবাদ সন্মেলনের একদিন পর গ্রেপ্তার ১২ শিক্ষার্থী- দৈনিক মানবজমিন

রোববার দুপুরে নিখোঁজ ১২ শিক্ষার্থীর অভিভাবকদের সংবাদ সন্মেলনের একদিন পর আজ সোমবার দুপুরে তেজগাঁ থানায় দায়ের করা পুলিশের কাজে বাঁধা প্রদান, ছাত্র আন্দোলনে গুজব সৃষ্টির অভিযোগ দেখিয়ে শিক্ষার্থীদের গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

ডিএমপির উপ কমিশনার (মিডিয়া) মাসুদুর রহমান সাংবাদিকদের একথা জানিয়েছেন। তিনি বলেন, রোববার রাতে তেজকুনি পাড়া থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, তারেক আজিজ, মো. তারেক, জাহাঙ্গীর আলম, মো. মুজাহিদুল ইসলাম, মো. আলামিন, মো. জহিরুল ইসলাম, মো. বোরহানউদ্দীন, ইফতেখার আলম, মো. মেহেদী হাসান রাজীব, মো. মাহফুজ, মো. সাইফুল্লাহ, মো. রায়হানুল আবেদীন।

পদ্মা সেতুর কাজ শেষ হতে আরও ৪ বছর লাগবে!- দৈনিক যায়যায়দিন

বাংলাদেশের নিজস্ব অথার্য়নে পদ্মা সেতুর নিমার্ণকাজ এ বছরের মধ্যে শেষ হওয়ার কথা থাকলেও প্রকল্পটি বাস্তবায়নে দীর্ঘ বিলম্ব হতে পারে। পুরো কাজ সম্পন্ন করে যানচলাচল শুরু হতে ২০২২ সাল লেগে যেতে পারে বলেও ধারণা দিয়েছে চীনা প্রকৌশলীরা।

পদ্মা নদীর জাজিরা প্রান্তে পাঁচটি স্প্যান বসানোয় বতর্মানে মূল সেতুর মাত্র ৭৫০ মিটার দৃশ্যমান হয়েছে। কিন্তু ৬.১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এ সেতুর নির্মাণে এখনো বহু কাজ বাকি।পদ্মার মাওয়া প্রান্তে শুধু চারটি পিলার বসেছে। এ অংশে কোনো স্প্যান বসেনি। আর নদীর মূল চ্যানেলে সাতটি পিলারের নকশা এখনো দেয়া হয়নি।

পদ্মা সেতু প্রকল্প এলাকা পরিদশের্ন গিয়ে দেখা হয় সেতু প্রকল্পে কমর্রত দুজন চীনা প্রকৌশলীর সঙ্গে। তাদের পরিচয় জানতে পেরে বলা হয়, এ সেতুর ওপর দিয়ে কবে যানচলাচল শুরু হবে এটি জানার আগ্রহ বাংলাদেশের বহু মানুষের। চায়না মেজর ব্রিজের দুই প্রকৌশলী বলে দিলেন ২০২২ সাল পযর্ন্ত অপেক্ষা করতে।

এত সময় কেন প্রয়োজন জানতে চাইলে এদের একজন পিয়ে সিউ বলেন, ‘আমরা ২০২২ সালের ধারণা দিচ্ছি বতর্মান পরিস্থিতির বিবেচনায়। এখনো অনেক কাজ করার বাকি আছে।’ পিয়ে সিউ এমবিসি-৫ এর প্রজেক্ট ম্যানেজার। মূল সেতুর দুই পাশের ভায়াডাক্ট এবং মূল সেতুর ওপরের স্প্যান বসানোর দায়িত্ব এমবিসি-৫ এর।

সিউ জাজিরা অংশে স্থাপিত সেতুর স্প্যান দেখিয়ে বলেন, ‘এই যে স্টিলের কাঠামো এটা একটার পর একটা নিখুঁতভাবে বসাতে হবে। এতে সময় লাগে, বেশ খানিকটা সময়। আর এখনো আমরা সাতটি পিলারের চ‚ড়ান্ত ডিজাইন পাইনি। আমি এখন নকশার জন্য অপেক্ষায় আছি। নকশা হাতে পেলেই আমি তোমাকে বলতে পারব ঠিক কবে এর নিমার্ণকাজ শেষ হতে পারে।’ এমবিসি-৫ এর প্রধান প্রকৌশলী হু বলেন, ‘আনুষ্ঠানিকভাবে এখনো আমরা বলতে পারছি না সেতু নিমার্ণ শেষ হতে ঠিক কত অতিরিক্ত সময় দরকার। কারণ এর সঙ্গে অনেক বিষয় জড়িত।’

এবারে কোলকাতার বাংলা দৈনিকগুলোর বিস্তারিত খবর:

বীরভূমে তৃণমূলের পার্টি অফিসে বিস্ফোরণ, মজুত বোমা নাকি অন্য কিছু, এখনও রহস্য- দৈনিক আনন্দবাজার

প্রচণ্ড বিস্ফোরণে প্রায় ধ্বংসস্তূপে পরিণত হল তৃণমূলের কার্যালয়। সোমবার সকালে বীরভূম জেলার খয়রাশোলের কাঁকড়তলা থানা এলাকার বড়বার ওই অঞ্চল অফিস বিস্ফোরণের ফলে কার্যত ধূলিসাৎ হয়ে গিয়েছে। এই ঘটনায় কেউ হতাহত হয়েছেন কি না জানা যায়নি।

পুলিশ সূত্রে খবর, ঝাড়খণ্ড লাগোয়া ওই অঞ্চল অফিসে এ দিন সকাল ১১টা নাগাদ প্রচণ্ড বিস্ফোরণ হয়। তার জেরে ভেঙে পড়ে তৃণমূলের ওই কার্যালয়। প্রাথমিক ভাবে জানা গিয়েছে, বোমা বিস্ফোরণের ফলেই ওই ঘটনা ঘটেছে। কী ভাবে ঘটনা ঘটল তা নিয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে।

স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, এ দিন সকালে তৃণমূলের ওই কার্যালয়ের পিছন থেকে পর পর প্রচণ্ড বিস্ফোরণের শব্দ পাওয়া যায়। গোটা এলাকা ধোঁয়ায় ঢেকে যায়। ধোঁয়া সরে যেতেই দেখা যায়, কংক্রিটের তৈরি তৃণমূলের ওই কার্যালয় কার্যত ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে। ২০১২ সালে তৈরি করা হয়েছিল ওই কার্যালয়।

বিজেপি-র অভিযোগ, তৃণমূলের ওই কার্যালয়ে প্রচুর বোমা আগে থেকেই মজুত করা ছিল। কোনও ভাবে সেই বোমাতেই বিস্ফোরণ ঘটেছে। তৃণমূলের তরফে এ নিয়ে মন্তব্য এখনও পর্যন্ত জানা যায়নি।

বাজার খুলতেই ধরাশায়ী টাকার দাম, বন্‌ধের দিন ধস অর্থনীতিতে- দৈনিক আজকাল

সোমবার আবার রেকর্ড পরিমাণ কমে গেল টাকার দাম। ১ টাকা ৪ পয়সা কমে গিয়ে এক ডলারের নিরিখে ভারতীয় মুদ্রার বর্তমান মূল্য ৭২.৫০ টাকা। এই খবর জানিয়েছে সংবাদসংস্থা রয়টার্স। মার্কিন মুদ্রার গুরুত্ব আমদানিকারকদের কাছে ক্রমশ বৃদ্ধি পেয়েই চলেছে। আর তার ফলে অন্যান্য বিদেশি মুদ্রার থেকে ডলারের অবস্থা যথেষ্ট ভাল অবস্থায় রয়েছে বিশ্ববাজারে। এদিন স্থানীয় বাজার খোলার সময় এক ডলারের নিরিখে ভারতীয় মুদ্রার মূল্য ছিল ৭২.১৫ টাকা। এর আগে বাজার বন্ধ হওয়ার সময় এক ডলারের নিরিখে ভারতীয় মুদ্রার মোট মূল্য ছিল ৭১.৭৩ টাকা। তার আগে চলতি মাসের ৬ তারিখ এক ডলারের নিরিখে ভারতীয় মুদ্রার মূল্য ছিল ৭২.১১ টাকা।

কি কারণে পড়তে শুরু করেছে টাকার দাম?‌ অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বৈদেশিক মুদ্রার লেনদেনকারীদের মতে বিশ্ববাজারে মার্কিন মুদ্রার ক্রমশ শক্তিশালী হয়ে ওঠা ছাড়াও অপরিশোধিত তেলের দাম ক্রমশ বেড়ে যাওয়ার ফলেই স্থানীয় মুদ্রার ওপর ভয়াবহ চাপ বাড়ছে। তাছাড়া বিশ্ববাজারে প্রতিযোগিতায় অন্যান্য বৈদেশিক মুদ্রাকে পিছনে ফেলে দিয়েছে ডলার। বৈদেশিক মুদ্রার বাজারে এর আগে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেনি রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া। যা তারা শুক্রবারে করল। এমনকী বাজারে লেনদেনের মূল্যও অত্যন্ত বেড়ে গিয়েছে ডলার শক্তিশালী হয়ে যাওয়ায়। যার ফলে স্বাভাবিকভাবেই কমে যাচ্ছে টাকার দাম। এমনই কথা বলেন ডেলয়েট ইন্ডিয়া সংস্থার মুখ্য অর্থনীতিবিদ অনীশ চক্রবর্তী।

‘আমাকে হটানোই মহাজোটের একমাত্র অ্যাজেন্ডা’ মোদির দাবি- দৈনিক বর্তমান

‘বিরোধীরা যতই মহাজোট করুক, ওদের বৃহত্তর কোনও লক্ষ্যই নেই। মোদিকে হটানোই তাদের একমাত্র অ্যাজেন্ডা।’ আগামী লোকসভা নির্বাচনের দিকে তাকিয়ে রবিবার এভাবেই প্রতিপক্ষ রাজনৈতিক দলগুলিকে তীব্র আক্রমণ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। অন্যদিকে, এদিনই বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ বলেন, ‘২০১৯ সালে বিজেপির ক্ষমতায় আসা নিশ্চিত। আগামী ৫০ বছরেও আমাদের কেউ হারাতে পারবে না।’

গতকাল থেকে দিল্লিতে বিজেপির দু’দিনব্যাপী জাতীয় কর্মসমিতির বৈঠক বসেছে। আগামী লোকসভা নির্বাচনে দলের রণকৌশল ঠিক করাই ছিল এই বৈঠকের অন্যতম প্রধান অ্যাজেন্ডা। সেখানেই আজ সমাপ্তি ভাষণে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সম্ভাব্য মহাজোটের নেতৃত্ব কে দেবেন, তাই খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। এরা আদতে নেতৃত্বহীনতায় ভুগছে। এদের মধ্যে দিশাহীনতা এবং নীতিহীনতা প্রকট হয়েছে।’

সম্ভাব্য মহাজোটকে কটাক্ষ করে নরেন্দ্র মোদি বলেন, ‘ছোট ছোট দলগুলি কংগ্রেসের নেতৃত্ব স্বীকার করতেই রাজি নয়। এমনকী কংগ্রেসের অন্দরেই একটি অংশ এই নেতৃত্বকে অস্বীকার করছে। মহাজোটে যাঁরা শামিল হওয়ার কথা ভাবছেন, তাঁরা অনেকেই একজন অন্যজনকে দেখতে পারেন না। একসঙ্গে চলতে পারেন না। অথচ এখন তাঁরা বাধ্য হয়েছেন একসঙ্গে আসতে। তাঁদের এই বাধ্য হওয়াই আমাদের সাফল্য।’

তো শ্রোতাবন্ধুরা! কথাবার্তার আজকের আসর এ পর্যন্তই। এ আসর নিয়ে আবার আমরা হাজির হব আগামীকাল।#

পার্সটুডে/মুজাহিদুল ইসলাম/১০

ট্যাগ

২০১৮-০৯-১০ ১৬:৪৫ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য