সুপ্রিয় পাঠক/শ্রোতা: ৬ ডিসেম্বর বৃহষ্পতিবারের কথাবার্তার আসরে স্বাগত জানাচ্ছি আমি গাজী আবদুর রশীদ । আশা করছি আপনারা প্রত্যেকে ভালো আছেন। আসরের শুরুতে ঢাকা ও কোলকাতার গুরুত্বপূর্ণ বাংলা দৈনিকগুলোর বিশেষ বিশেষ খবরের শিরোনাম তুলে ধরছি। এরপর গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি খবরের বিশ্লেষণে যাবো। বিশ্লেষণ করবেন সহকর্মী সিরাজুল ইসলাম।

বাংলাদেশের শিরোনাম

  • ১০০ জনের মধ্যে ৫৬ জনেরই মনোনয়ন আপিলে বৈধ-দৈনিক ইত্তেফাক
  • ডিবি কার্যালয়ে ঢোকার পর নিখোঁজ?-দৈনিক প্রথম আলো
  • বিএনপির দুই জোট: সিরিজ বৈঠকেও আসন বণ্টনের রফা হয়নি-দৈনিক যুগান্তর
  • ভোট দেয়াই এখন বড় চ্যালেঞ্জ-দৈনিক মানবজমিন
  • রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারকেই নিজ দেশে নিরাপদ পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে : মার্কিন রাষ্ট্রদূত-দৈনিক নয়া দিগন্ত

ভারতের শিরোনাম:

  • সব ধর্ম, সম্প্রদায়, জাতি ও বিশ্বাস ছাড়া ভারত অসম্পূর্ণ: মমতা-দৈনিক সংবাদ প্রতিদিন
  • বাবরি মসজিদ ধ্বংসের বর্ষপূর্তি, কড়া নিরাপত্তা অযোধ্যায়-দৈনিক আজকাল
  • পুলিশ নয়, গোহত্যা নিয়েই এখন চিন্তা বেশি যোগীর!-দৈনিক আনন্দবাজার

পাঠক/শ্রোতা! এবারে গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি খবরের বিশ্লেষণে যাব। 

কথাবার্তার বিশ্লেষণের বিষয়:

১. বাংলোদেশের আসন্ন জাতীয় সংসদে নির্বাচনের জন্য জমা দেয়া হলফনামা পর্যালোচনা করে দেখা যাচ্ছে যে, বহুসংখ্যক মন্ত্রী ও সংসদ সদস্য এবং তাদের স্ত্রীদের সম্পদ বেড়েছে কয়েকগুণ। বিষয়টিকে আপনি কীভাবে দেখছেন?

২. সৌদি যুবরাজকেই খাশোগির খুনি মনে করেন মার্কিন সিনেটররা। মার্কিন সিনেটরদের এই অবস্থানকে আপনি কীভাবে মূল্যায়ন করবেন?

বিশ্লেষণের বাইরে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ খবর

ডিবি কার্যালয়ে ঢোকার পর নিখোঁজ?-দৈনিক প্রথম আলো

•    যশোরের কেশবপুর উপজেলার মজিদপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য সাইফুর রহমান ঢাকায় এসে নিখোঁজ হন

•    ২৭ নভেম্বর দুপুর ১২টার দিকে তিনি মিন্টো রোডে ডিবি কার্যালয়ে ঢোকেন

•    মনোনয়নপত্র তুলতে ঢাকায় এসে লাশ হয়ে ফিরেছিলেন একই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বিএনপির নেতা আবু বকর

তথ্য যাচাই না করে আপলোড-শেয়ার নয়: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী-দৈনিক প্রথম আলো

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, ‘তথ্য যাচাই না করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আপলোড বা শেয়ার করা যাবে না। গুজব যেই ছড়াক, আমরা তাঁদের চিহ্নিত করেছি এবং করছি। যাঁরা এই কাজগুলো করছেন, তাঁদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

আজ বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‍্যাবের মিডিয়া সেন্টারে ‘মিথ্যে রুখে সত্য জান’ শীর্ষক গুজববিরোধী তথ্যচিত্রের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

গুজবের খারাপ দিকের কথা বলতে গিয়ে আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ‘রামুর কথা আমরা ভুলিনি। আবার ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরের কথাও ভুলিনি। শিক্ষার্থীদের নিরাপদ আন্দোলনের সময় গুজব রটিয়ে কত দিকে প্রবাহিত করার চেষ্টা করা হয়েছে, সেটিও দেখেছি।’

মন্ত্রী হয়ে আয় বেড়েছে, বাড়বাড়ন্ত সম্পদেও-দৈনিক প্রথম আলো

জাতীয় সংসদ

মন্ত্রিসভার আট সদস্যের হলফনামা বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, মন্ত্রী হওয়ার পর তাঁদের আয় বেড়েছে, বেড়েছে সম্পদও। অনেকেরই আয়ের বড় উৎস মন্ত্রী হিসেবে পাওয়া ভাতা। অবশ্য কেউ কেউ ব্যবসা থেকে বাড়তি আয় দেখিয়েছেন।

হলফনামায় মন্ত্রীরা স্ত্রীসহ নির্ভরশীলদের সম্পদের বিবরণও দিয়েছেন। দেখা যাচ্ছে, তাঁদের স্ত্রীদের সম্পদও বেড়েছে। আবার উভয়েরই নগদ অর্থ ছাড়াও আছে নানা ধরনের বিনিয়োগ।

*১০ বছরে আমুর আয় বেড়েছে ১৩ গুণের বেশি

*৫ বছরে মায়ার মোট আয় বেড়েছে পাঁচ গুণের বেশি

*মৎস্য খাতে আইনমন্ত্রীর বার্ষিক আয় ৩ কোটির বেশি

*খাদ্যমন্ত্রীর ভাতার বাইরে বিশেষ কোনো আয় নেই

*রেলমন্ত্রীর কাছে নগদ ২০৩২ টাকা

*মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রীর এখন গাড়ির সংখ্যা তিনটি

*ভূমিমন্ত্রী ডিলুর কাছে নগদ টাকা ১ কোটি ৩১ লাখ 

*জুনাইদের স্থাবর-অস্থাবর সম্পদ বেড়েছে ১০ গুণের বেশি

বিএনপির দুই জোট: সিরিজ বৈঠকেও আসন বণ্টনের রফা হয়নি-দৈনিক যুগান্তর

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির সঙ্গী দুই জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ও ২০-দলীয় জোট (সম্প্রসারিত ২৩ দল)। দুই জোটের শরিকদের সঙ্গে আসন বণ্টন নিয়ে এখন পর্যন্ত কোনো সমঝোতা হয়নি বিএনপির। আসন ভাগাভাগি নিয়ে জোটের নেতাদের সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠক করছেন বিএনপি নেতারা। কিন্তু দৃশ্যমান কোনো অগ্রগতি হয়নি।

মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের বাকি মাত্র দুদিন।এখনও বিএনপি ও তাদের জোটের দলগুলো জানে না কে কতটি আসন পাচ্ছে। নেতারা জানেন না কে কোন আসনে ভোট করছেন। মনোনয়ন যাচাই-বাছাইয়ের পর টিকে যাওয়া বিএনপির চূড়ান্ত মনোনয়ন পাওয়া ৫৫৫ জন প্রার্থীর বেশিরভাগই নিজেদের আসনে নির্বাচন করা নিয়ে অন্ধকারে। তারা জানেন না কে শেষ পর্যন্ত থাকছেন নির্বাচনে, আর কাকে মাঠ ছেড়ে দিতে হবে।

১০০ জনের মধ্যে ৫৬ জনেরই মনোনয়ন আপিলে বৈধ-দৈনিক ইত্তেফাক

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিলে দুপুর পৌনে দু্ইটা পর্যন্ত ১০০ জনের আপিল নিষ্পত্তি করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এর মধ্যে ৫৬ জনের প্রার্থিতা বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে। বাকি ৪৪ জনের মধ্যে ৪০ জনের আপিলের সিদ্ধান্ত গ্রহণ না করায় তাদের প্রার্থিতা বাতিল করা হয়েছে। চট্টগ্রাম-৫ আসনে বিএনপি নেতা মীর নাসির মনোনয়নপত্র বাতিলের বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত দেয়া হয়নি। আর তিন জন অনুপস্থিত ছিলেন আপিল শুনানিতে। তাদের প্রার্থিতাও বাতিল করা হবে।

আজ বৃহস্পতিবার আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশন ভবনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদার নেতৃত্বে চার নির্বাচন কমিশনার আপিল শুনানি নিচ্ছেন। সকাল ১০টায় শুরু হয় প্রথম দিনের এই আপিল শুনানি।

ভোট দেয়াই এখন বড় চ্যালেঞ্জ-দৈনিক মানবজমিন

সুজন সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার

আসন্ন সংসদ নির্বাচনে ভোটারদের ভোট দেয়াই এখন বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে বলে জানিয়েছেন সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদার। আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে নির্বাচনী ইশতেহার: নাগরিক ভাবনা শীর্ষক সুজন আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি। রাজনৈতিক দলগুলোর উদ্দেশ্যে নির্বাচনী ইশতেহার বিষয়ে বদিউল আলম মজুমদার বলেন, ইশতেহারে এমন বিষয় থাকতে হবে যা সত্যিকার অর্থে জনগণের শাসন প্রতিষ্ঠিত হয়। ভোটের অধিকার নিশ্চিত হয়। এমন নির্বাচনী রূপরেখা থাকতে হবে যাতে আমাদের গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা শক্তিশালী হয়। নির্বাচন কমিশনে নিয়োগের বিষয়ে আইন তৈরি প্রসঙ্গে সুজন সম্পাদক বলেন, ইসি কর্মকর্তা নিয়োগে একটি আইন তৈরি করতে হবে যাতে সংস্থাটিতে সৎ, যোগ্য, নিরপেক্ষ ও স্বাধীনচেতা লোক নিয়োগ পায়। রাজনৈতিক দলগুলোর ইশতেহারে আর্থিক, শিক্ষা খাতে বৈষম্য দূর করার প্রতিশ্রুতি থাকতে হবে। রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানগুলো শক্তিশালী করার বিষয়ে তিনি আরো বলেন, সংসদকে প্রভাবমুক্ত করতে হবে। রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারকেই নিজ দেশে নিরাপদ পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে : মার্কিন রাষ্ট্রদূত-দৈনিক নয়া দিগন্ত

বাংলাদেশে নবনিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার বলেছেন, বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারকেই নিজ দেশে নিরাপদ পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে। এবং রোহিঙ্গাদের অধিকার ফিরিয়ে দিতে হবে। রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন হতে হবে নিরাপদ এবং স্বেচ্ছামূলক। এ লক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্র সরকার আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে নিয়ে কাজ করছে।

তিনি আজ বৃহস্পতিবার সকালে কক্সবাজার শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনারের সাথে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের সংক্ষিপ্ত ব্রিফিংকালে এসব কথা বলেন।

মার্কিন রাষ্ট্রদূত আরো বলেন, দ্রুত সময়ে বিপুল পরিমাণ রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিতে গিয়ে কক্সবাজারের পরিবেশসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। পরিবেশের অপূরণীয় ক্ষতি পুনরুদ্ধারে যুক্তরাষ্ট্র সরকার সহায়তা করবে। শুধু রোহিঙ্গাদের জন্য নয়, কক্সবাজারের স্থানীয় জনগণের জন্যও যুক্তরাষ্ট্র সরকার সহায়তা অব্যাহত রাখবে।

এবার ভারতের কয়েকটি খবর তুলে ধরছি

পুলিশ নয়, গোহত্যা নিয়েই এখন চিন্তা বেশি যোগীর!দৈনিক আনন্দবাজার

বুলন্দশহর জ্বললেও তিনি নিষ্ক্রিয়— এমন অভিযোগ উঠেছিল উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের বিরুদ্ধে। সেই চাপের মুখে মঙ্গলবার রাতে পুলিশ-প্রশাসনের সঙ্গে বৈঠকে বসেন তিনি। কিন্তু তাতে সমালোচনা বাড়ল বৈ কমল না। কারণ, বৈঠকে হিংসা এবং পুলিশ ইনস্পেক্টর সুবোধকুমার সিংহ এবং যুবক সুমিতকুমার সিংহের হত্যা নিয়ে নীরবই থাকলেন তিনি। বরং গোহত্যাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ করার নির্দেশ দিলেন। তবে কাল যোগী সুবোধকুমারের পরিবারের সঙ্গে দেখা করবেন। 

গোহত্যার অভিযোগে বুলন্দশহরের চিঙ্গারওয়াতি থেকে তিন কিমি দূরে নয়াবংশ গ্রামের সাত জনের বিরুদ্ধে এফআইআর করে তদন্তে নেমেছে পুলিশও। এই সাত সংখ্যালঘুর বিরুদ্ধে গোহত্যার অভিযোগ দায়ের করেছেন হিংসায় মূল অভিযুক্ত বজরং দলের নেতা যোগেশ রাজ। এদের মধ্যে এক জনের বয়স ১০ এবং এক জনের বয়স ১২। ফলে তদন্ত নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। প্রশ্ন উঠেছে, যোগেশের অভিযোগ কেন এত গুরুত্ব পাচ্ছে?

বাবরি মসজিদ ধ্বংসের বর্ষপূর্তি, কড়া নিরাপত্তা অযোধ্যায়-দৈনিক আজকাল

বাবরি মসজিদ ভাঙার কালা দিবস

৬ ডিসেম্বর, ১৯৯২ সালের পর দেখতে দেখতে কেটে গেল ২৬ বছর। ওই দিনই অযোধ্যায় বাবরি মসজিদ ধ্বংস করা হয়েছিল। তারপর থেকেই চলছে দ্বৈরথ। বিতর্কিত জমিতে রামমন্দির হবে না মসজিদ, তার উত্তর এখনও লুকিয়ে সময়ের গর্ভে। কারণ বিতর্কিত জমিটি নিয়ে মামলা এখনও বিচারাধীন সুপ্রিম কোর্টে। তবে বাবরি মসজিদ ধ্বংসের বর্ষপূর্তিতে কোনওরকম অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা হয়েছে অযোধ্যাকে। কোনও গণ্ডগোল যাতে না হয়, সেজন্য চারিদিকে কড়া নজর রেখেছে পুলিস প্রশাসন। পরিস্থিতি বেগতিক দেখলেই কড়া পদক্ষেপ করতে পারে পুলিস, প্রয়োজনে কাউকে গ্রেপ্তার করতেও বাধা নেই। এমনই নির্দেশ জারি করা হয়েছে। প্রতিবছর ৬ ডিসেম্বর দিনটিকে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ ও বজরং দল 'শৌর্য দিবস' ও 'বিজয় দিবস' হিসেবে পালন করে। অন্যদিকে মুসলিম সম্প্রদায় দিনটিকে 'ইয়াম-ই-গম' (দুঃখের দিন) ও 'ইয়াম-ই-শ' (কালা দিবস) হিসেবে পালন করে।

সব ধর্ম, সম্প্রদায়, জাতি ও বিশ্বাস ছাড়া ভারত অসম্পূর্ণ: মমতা-দৈনিক সংবাদ প্রতিদিন

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী

লিঙ্গ, ধর্ম, জাতি, সম্প্রদায়ের পারষ্পরিক সহাবস্থানের নামই ভারত। টুইট করে আজ, বৃহস্পতিবার একথা লিখলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ভীমরাও রামজি আম্বেদকরের প্রয়াণ দিবসেও শ্রদ্ধা জানালেন তিনি। এদিনই উত্তরপ্রদেশের অযোধ্যায় বাবরি মসজিদ ধ্বংসের ২৬ বছর পূর্তি। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ৬ ডিসেম্বর মানবিকতার স্বার্থে বাংলায় সংহতি দিবস পালন করা হয়। সংহতি ভারতকে সম্পূর্ণ করে।

মুখ্যমন্ত্রী টুইট করে লেখেন, “আজ ৬ ডিসেম্বর। আমরা এদিন বাংলায় সংহতি দিবস হিসেবে পালন করি। মানবশরীর যেমন সব অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ ছাড়া অসম্পূর্ণ, তেমনই সব সম্প্রদায়, জাতি, বিশ্বাস বা লিঙ্গ ছাড়া এদেশও সম্পূর্ণ নয়। আসুন আমরা ভারতের ধর্মনিরপেক্ষতাকে তুলে ধরি।” #

পার্সটুডে/গাজী আবদুর রশীদ/৬

ট্যাগ

২০১৮-১২-০৬ ১৬:৪৮ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য