জানুয়ারি ২৯, ২০২২ ১৪:২৪ Asia/Dhaka
  • নারায়ণগঞ্জে পুড়ে যাওয়া পোশাক কারখানায় তল্লাশি, অগ্নিদগ্ধ কাউকে পাওয়া যায়নি

নারায়ণগঞ্জের বন্দরে আগুনে পুড়ে যাওয়া জাহিন নিটওয়্যার পোশাক কারখানার চারটি ভবনে তল্লাশি চালিয়ে অগ্নিদগ্ধ কাউকে পাওয়া যায়নি। আজ (শনিবার) সকালে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা অগ্নিনির্বাপণ কাজ শেষে পুরো চারটি ভবন তল্লাশি চালিয়ে হতাহত কারও খবর জানাতে পারেননি।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স নারায়ণগঞ্জ অফিসের উপসহকারী পরিচালক আবদুল্লাহ আরেফিন সাংবাদিকদের বলেছেন, আগুন নেভানো শেষে কারখানার চারটি ভবনে তল্লাশি চালিয়ে কাউকে পাওয়া যায়নি। কেউ নিখোঁজ আছেন, এমন কোনো অভিযোগও কেউ করেননি। আগুনে ওই কারখানার বিপুল পরিমাণ কাপড়সহ বিভিন্ন মালামাল পুড়ে গেছে। আগুনে স্টিলের অবকাঠামো বিশিষ্ট ভবনগুলো বাঁকা হয়ে দুমড়েমুচড়ে গেছে।’

নারায়ণগঞ্জ শিল্প পুলিশ-৪ এর পরিদর্শক বশির আহম্মেদ সাংবাদিকদের জানান,  ওই কারখানায় দেড় হাজার শ্রমিক কাজ করেন। শুক্রবার কারখানা বন্ধ ছিল। শুধু নিটিং সেকশন ২০ জন ও ডাইং সেকশনে ৪০–৪৫ জন শ্রমিক কর্মরত ছিলেন। বিকেল সাড়ে চারটার দিকে কারখানার পূর্ব পাশে ৫ নম্বর ইউনিটে আগুনের সূত্রপাত ঘটে। আগুন পরে আশপাশে ছড়িয়ে পড়ে। 

গতকাল (শুক্রবার) বিকেলে ওই কারখানার চারটি ভবনে আগুন লাগলে ফায়ার সার্ভিসের ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জের ১৩টি ইউনিট সাড়ে চার ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে রাত সাড়ে নয়টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

গত রাতে ফায়ার সার্ভিসের পরিচালক (অপারেশন) লে. কর্নেল জিল্লুর রহমান সাংবাদিকদের বলেছেন, কারখানার ভেতরে প্রচুর পরিমাণে তৈরি পোশাক ও কাপড় ছিল। এ কারণে আগুন দ্রুত পাশের ভবনগুলোয় ছড়িয়ে পড়ে। কারখানার ভেতরে আগুন নেভানোর পর্যাপ্ত ব্যবস্থা ছিল না। কারখানার ভেতরে পানির ব্যবস্থা না থাকায় আগুন নেভাতে বেগ পেতে হয়। ছুটির দিন হলেও কারখানার ভেতরে বিল্ডিং কোড নীতিমালা অনুযায়ী ফায়ার ফাইটিং দল থাকার যে নিয়ম আছে, তা এখানে দেখা যায়নি।#

পার্সটুডে/আবদুর রহমান খান/আশরাফুর রহমান/২৯

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।


 

ট্যাগ