জানুয়ারি ২৯, ২০২২ ১৬:৩৮ Asia/Dhaka

বাংলাদেশের সরকারি-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়সহ উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ২০২১ সালে ১০১ জন শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছেন। এর আগের বছর এ সংখ্যা ছিল ৭৯ জন। আত্মহত্যাকারীদের ৬১ শতাংশের বেশি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। তরুণদের  মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে  কাজ করছে এমন একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন আঁচল ফাউন্ডেশনের গবেষণায় এ তথ্য উঠে এসেছে।

২০২১ সালের তথ্য পর্যালোচনায়  দেখা গেছে, ২২ থেকে ২৫ বছর বয়সীদের মধ্যে আত্মহত্যার প্রবণতা তুলনামূলকভাবে বেশি। গতবছর এই বয়সসীমার ৬০ জন শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছেন। অন্যদিকে ১৮ থেকে ২১ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের মধ্যে আত্মহত্যা করেছেন ২৭ জন। আর আত্মহত্যার প্রবণতা ছাত্রীদের চেয়ে ছাত্রদের মধ্যে বেশি পাওয়া গেছে।

আঁচল ফাউন্ডেশনের  হিসাবে, গত বছর (২০২১) সালে সবচেয়ে বেশি আত্মহত্যা করেছেন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। একই সময়ে মেডিকেল কলেজ ও অনার্স কলেজের ১২ জন শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেন, যা মোট আত্মহত্যাকারীর ১১ দশমিক ৮৮ শতাংশ। গত বছর ইঞ্জিনিয়ারিং বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪ জন শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছেন। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আত্মহত্যার হার ২২ দশমিক ৭৭ শতাংশ, যা সংখ্যায় ২৩।

আঁচল ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি তানসেন রোজ বলেন, করোনাকালে সারা দেশেই বেড়েছে আত্মহত্যার প্রবণতা। আর্থিক টানাপোড়েন, লেখাপড়া ও পরীক্ষা নিয়ে হতাশা, পারিবারিক সহিংসতা, অভিমান—এসব কারণে আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে।

এ প্রসঙ্গে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লিনিক্যাল সাইকোলজি বিভাগের অধ্যাপক কামাল উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী বলেছেন, আত্মহত্যা প্রতিরোধে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের একটা  গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রয়েছে। তাছাড়া কমিউনিটি পর্যায়ে স্বাস্থ্যসেবাকর্মীদের প্রশিক্ষণ  দিয়ে পরিস্থিতি মকাবেলা করা যেতে পারে। এক্ষেত্র সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি সংস্থাসমূহকে এগিয়ে আসতে  হবে। 

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিটি হলে মানসিক স্বাস্থ্যের জন্য পরামর্শ  ব্যবস্থা করতে হবে। এর জন্য অবকাঠামো, লোকবল এবং অর্থ বরাদ্ধ প্রয়োজন।

উল্লেখ্য, বছর দশেক আগে থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রীদের হলে একজন করে মনোবিজ্ঞানী রাখা হয়েছে। কিন্তু ছাত্রদের হলে সেই ব্যবস্থা নেই। পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে শিক্ষার্থীর সংখ্যা অনেক বেশি। সেই বিবেচনা থেকে এখানে আরও বেশি জনবল এবং পর্যাপ্ত বাজেট থাকা উচিত।#

পার্সটুডে/আবদুর রহমান খান/আশরাফুর রহমান/২৯

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

 

 

 

ট্যাগ