নভেম্বর ২৪, ২০২২ ১৮:৩৮ Asia/Dhaka
  • যশোর স্টেডিয়ামে আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
    যশোর স্টেডিয়ামে আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, "দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা অন্য যেকোনো সময়ের তুলনায় অনেক ভালো। আমাদের ব্যাংকে টাকার কোনো সংকট নেই। গতকালও বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলেছি। তারা আমাকে জানিয়েছেন দেশে রিজার্ভের কোনো সংকট নেই। রিজার্ভের টাকা দেশবাসীর কল্যাণে ব্যয় করেছি।"

আজ (বৃহস্পতিবার) বিকালে যশোর স্টেডিয়ামে আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা এসব কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, "অনেকে আমাদের রিজার্ভ নিয়ে কথা বলে, রিজার্ভ গেল কোথায়? রিজার্ভ কোথাও যায়নি। রিজার্ভ মানুষের কাজে লেগেছে। যেহেতু যুদ্ধ লেগেছে, নিষেধাজ্ঞা, যে গম ২০০ ডলারে আনতাম সেই গম এখন ৬০০ ডলার। তারপরও আমরা কিনে নিয়ে এসেছি, আমাদের দেশের মানুষের জন্য। ভুট্টা, সার, প্রত্যেকটা জিনিসের দাম বেড়েছে আন্তর্জাতিকভাবে। পরিবহন খরচ বেড়েছে, তারপরও আমরা খরচ করছি এবং কিনে নিয়ে আসছি, আমার দেশে কোনো মতে যেন খাদ্য ঘাটতি না দেখা দেয়। সে জন্য আমি দেশের মানুষের প্রতি আহ্বান করেছি, ১ ইঞ্চি জমি যাতে অনাবাদি না থাকে। প্রত্যেকটা জমি আবাদ করতে হবে। যাতে করে আমাদের কোনোদিন খাদ্য ঘাটতি না হয়। কারো কাছে হাত পেতে-চেয়ে চলতে না হয়।"

তিনি বলেন, "জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে ১৯৭১ সালে পাকিস্তানের পরাধীনতা থেকে দেশ স্বাধীন হয়েছিল। আর আমরা দেশবাসীকে অর্থনৈতিক মুক্তি দিয়েছি। যশোরে সরকারের ব্যাপক উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড সম্পন্ন হয়েছে। যশোরে দেশের প্রথম আইসিটি পার্ক স্থাপন করে বেকার যুব সমাজের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করেছি। আমাদের সরকার দেশের মানুষের হাতে হাতে মোবাইল ফোন তুলে দিয়েছে।"

প্রধানমন্ত্রী আগামী নির্বাচনে নৌকা মার্কার পক্ষে দুই হাত তুলে উপস্থিত জনতাকে সমর্থন জানানোর আহ্বান জানালে উপস্থিত জনতা দুই হাত তুলে নৌকা মার্কার পক্ষে তাদের সমর্থন ব্যক্ত করেন।

শেখ হাসিনা বলেন৭৫ পরবর্তী বাংলাদেশে কোন সরকারই উন্নয়ন করেনি। বিএনপি জামাত সরকার যখনই রাষ্ট্রিয় ক্ষমতায় এসেছে তখনই তারা দেশটাকে লুটপাটের কারখানা বানিয়েছে। দেশ থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা পাচার করেছে। টাকা পাচারের ঘটনায় বিএনপি নেতা তারেক রহমান সাজা প্রাপ্ত হয়ে পলাতক জীবন যাপন করছে। বেগম জিয়া এতিমদের টাকা আত্মসাতের মামলায় সাজা ভোগ করছে। সেই দলের নেতারা বলে তারা নাকি ফের এদশের রাষ্ট্র ক্ষমতায় গিয়ে দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করবে। অর্থ লুটপাটকারীদের মুখে রিজার্ভ নিয়ে কথা বলা মানায় না।

সকালে যশোর মতিউর রহমান বিমান ঘাঁটিতে বিমান বাহিনীর শীতকালীন কুচকাওয়াজ পরিদর্শণ ও অভিবাদন গ্রহন অনুষ্ঠান শেষ করে বেলা ২টা ৪০ মিনিটে যশোর জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত যশোর শামস উল হুদা স্টেডিয়ামে জনসভাস্থলে পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী।

বেলা ৩টা ১৫ মিনিটে প্রধানমন্ত্রীর নাম ঘোষণা করেন জনসভার সঞ্চালক যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার এমপি। বক্তৃতা মঞ্চে দাঁড়িয়ে বক্তব্যের শুরুতেই প্রধানমন্ত্রী একটি শান্তিপূর্ণ জনসভায় উপস্থিত থাকার জন্য যশোরবাসীকে ধন্যবাদ জানান।#

পার্সটুডে/আশরাফুর রহমান/২৪

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ