২০১৯-১০-২১ ১৭:৫৪ বাংলাদেশ সময়
  • মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ক্রিকেটাররা
    মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ক্রিকেটাররা

বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা হুমকি দিয়েছেন যে, তাদের পারিতোষিক বৃদ্ধিসহ ১১ দফা দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত তারা সব ধরনের খেলা থেকে বিরত থাকবেন। আজ (সোমবার) দুপুরে মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে নজীরবিহীন এক সংবাদ সম্মেলনে এসব দাবির কথা জানান সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, মুশফিক রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদসহ জাতীয় দলের তারকা ক্রিকেটাররা।

আগামী মাসে ভারত সফরে যাওয়ার কথা সাকিবদের। ভারতের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি এবং দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলার কথা রয়েছে। তবে, মাসোহারা বাড়ানোর দাবি পুরণ না হলে এই সফরে না যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ক্রিকেটাররা। তাতে হুমকির মধ্যে পড়তে যাচ্ছে ভারত সফর। তবে, বয়সভিত্তিক খেলাগুলো  জাতীয় ক্রিকেটারদের এসব দাবির আওতামুক্ত থাকবে।

সংবাদ সম্মেলনে খেলোয়াড়, কোচসহ সংশ্লিষ্ট সকলের সুবিধা এবং পারিশ্রমিক বাড়ানো নিয়ে কথা বলেন সাকিব, তামিমরা। তারা জানান, চলতি মাসে শুরু হওয়া জাতীয় ক্রিকেট লিগে খেলোয়াড়দের ম্যাচ ফি বাড়ানো হয়নি। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে গত কয়েক বছর ধরে পারিশ্রমিক বাড়ানো হয়নি। চলমান জাতীয় ক্রিকেট লিগে খেলোয়াড়দের ম্যাচ ফি এবং অন্য সুযোগ-সুবিধা বাড়ানোর প্রতিশ্রুতি দেয়া হলেও সেগুলোর কিছুই বাস্তবায়ন করা হয়নি।

সব দাবি-দাওয়া জানানো শেষে ধর্মঘটের ঘোষণা দেন টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক সাকিব আল হাসান, "আমরা জানি যে সব ক্রিকেটার আমাদের সঙ্গে আছেন। যতদিন পর্যন্ত আমাদের এই দাবিগুলো পূরণ না হচ্ছে, ততদিন পর্যন্ত আমরা ক্রিকেটের কোনো কার্যক্রমে জড়িত থাকতে চাচ্ছি না।"

সংবাদ সম্মেলনের বক্তব্য রাখছেন সাকিব আল হাসান

তিনি বলেন, "জাতীয় দল, প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটারসহ সবাই এই ধর্মঘটের অন্তর্ভূক্ত এবং সেটা আজ থেকেই। জাতীয় লিগ থেকে শুরু করে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট বলেন, জাতীয় দলের প্রস্তুতি বলেন, আন্তর্জাতিক ক্রিকেট বলেন সবগুলোই এর অন্তর্ভূক্ত।"

সাকিবের এই ঘোষণার সময় তুমুল করতালি দিয়ে স্বাগত জানান উপস্থিত ক্রিকেটাররা।

সাকিব আরও বলেন,  "আলোচনা সাপেক্ষে অবশ্যই সবকিছুর সমাধান হবে। দাবিগুলো যখন মানা হবে তখন আমরা স্বাভাবিক কার্যক্রমে ফিরে যাব।"

তিনি বলেন, "আমরাও সবাই চাই ক্রিকেটের উন্নতি হোক। এখানে ক্রিকেটারদের কেউ তিন-চার বছর খেলবে, কেউ দশ বছর আছে। যারা ভবিষ্যতে আসবে, তাদের জন্য আমরা একটা ভালো পরিবেশ রেখে যেতে চাই যেখান থেকে বাংলাদেশের ক্রিকেট সামনে এগিয়ে যাবে।"

ক্রিকেটারদের ১১ দফা দাবি:

১. ক্রিকেটার্স অ্যাসোসিয়েশন (কোয়াবের) বর্তমান কমিটিকে অবিলম্বে পদত্যাগ করতে হবে। ক্রিকেটারদের সরাসরি ভোটে ঠিক করা হবে নতুন সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক।

২. ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের দলবদলের নিয়ম আগের মতো করতে হবে। যে যার পছন্দমতো দলে যাবে। 

৩. এ বছর না হোক, তবে পরের বছর থেকে আগের মতো (ফ্র্যাঞ্চাইজি পদ্ধতিতে) বিপিএল আয়োজন করতে হবে। স্থানীয় ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিক বাড়াতে হবে।

৪. প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ম্যাচ ফি ১ লাখ করতে হবে। চুক্তিভুক্ত প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটারদের বেতন ৫০% বাড়াতে হবে। ১২ মাস কোচ-ফিজিও দিতে হবে, প্রতি বিভাগে অনুশীলনের ব্যবস্থা করতে হবে।

৫. আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে যে বল দিয়ে খেলা হয়, ঘরোয়া লিগে সেই বল ব্যবহার করতে হবে। দৈনিক ভাতা ১৫০০ টাকায় কিছু হয় না, তা বাড়াতে হবে। এক ভেন্যু থেকে আরেক ভেন্যুতে যাওয়ার জন্য যাতায়াত ভাড়া মাত্র ২৫০০ টাকা। তা বাড়াতে হবে অথবা প্লেন ভাড়া দিতে হবে। হোটেল ভালো হতে হবে, জিম ও সুইমিংপুল সুবিধা থাকতে হবে। 

৬. জাতীয় দলে চুক্তিভুক্ত ক্রিকেটারের সংখ্যা অন্তত ৩০ করতে হবে ও বেতন বাড়াতে হবে।

৭. দেশি সব স্টাফদের বেতন বাড়াতে হবে। কোচ থেকে শুরু করে গ্রাউন্ড স্টাফ, আম্পায়ার- সবার বেতন বাড়াতে হবে।

৮. জাতীয় লিগের পর আগে একটি ওয়ানডে লিগ হতো, সেটি ফিরিয়ে আনতে হবে। বিপিএলের আগে আরেকটি টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট দিতে হবে।

৯. ঘরোয়া ক্যালেন্ডার চূড়ান্ত হতে হবে। 

১০. ডিপিএলের (ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ) পাওনা টাকা নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে দিতে হবে।

১১. বিদেশে ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ দুটির বেশি খেলা যাবে না, এমন নিয়ম তুলে দিতে হবে। সুযোগ থাকলে সবাই খেলবে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সাকিবল আল হাসান, তামিম ইকবাল, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মুশফিকুর রহিম, মিরাজ, ইমরুল, সৌম্য, মুশফিক, সাইফউদ্দিন, এনামুল বিজয়, মুমিনুল, মিঠুন, জুনায়েদ সিদ্দিকী, নুরুল হাসান সোহান, রনি তালুকদার, শফিউল ইসলাম, তাসকিন, মোস্তাফিজ, রুবেল, তাইজুলসহ ৬০ জনেরও বেশি ক্রিকেটার।

এদিকে, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী উদযাপনে এবারের প্রিমিয়ার লীগ ‘বঙ্গবন্ধু বিপিএল’ নামে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। যেখানে থাকবে না কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি। তাতে ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিকও কমে যাবে বলে জানান বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।  জাতীয় দলের ক্রিকেটার থেকে শুরু করে জাতীয় লিগের ক্রিকেটাররা এই বিষয়টি নিয়েও তাদের অসন্তোষের কথা জানিয়েছেন।#

পার্সটুডে/আবদুর রহমান খান/আশরাফুর রহমান/ ২১

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ

মন্তব্য