২০১৯-১১-০৮ ১৫:৩৩ বাংলাদেশ সময়
  • ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ
    ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, বর্তমান সরকার তাদের দুর্নীতির কারণেই নিজের পতন ডেকে আনবে। তাদের নিজস্ব দুর্বলতা ও ব্যর্থতার কারণেই পতন হবে।

আজ (শুক্রবার) দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক স্মরণ সভায় তিনি এ কথা বলেন। সাবেক মেয়র ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা সাদেক হোসেন খোকার স্মরণে স্বাধীনতা ফোরাম এই সভা আয়োজন করে।

মওদুদ আহমদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী জাসদ নেতা মঈনউদ্দীন খান বাদল মারা যাওয়ায় তার জন্য জাতীয় সংসদে শোক প্রকাশ করেছেন। ক্ষণিকের জন্যও তিনি সাদেক হোসেন খোকার নাম উল্লেখ করেননি। তিনি একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। তার কথা কি প্রধানমন্ত্রীর মনে আসে নাই? আমরা তো মনে করি, প্রধানমন্ত্রী একজন বিরাট মনের মানুষ। তার উচিত ছিল সর্বপ্রথম খোকার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বক্তব্য রাখা।

বিএনপি নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আমাদের অনেকের মধ্যে একটা শঙ্কা ও ভয়ভীতি আছে। আমরা রাস্তায় নামছি না বা নামতে পারছি না। আর সে কারণে হয়তো এই সরকারের পতন হবে না। কিন্তু আমি হতাশ নই।

ব্যারিস্টার মওদুদ আরও বলেন, অতীত বলছে, যেভাবে আন্দোলন করে একটা সরকারকে পতন ঘটাতে হয়, সেই ধরনের আন্দোলন সব সময় হয় না। তবে আমি মনে করি, বর্তমান সরকার নিজেদের দুর্নীতির কারণেই তাদের পতন ডেকে আনবে। খালেদ আর শামীমদের মতো কয়েকজনের বিচার করে পার পাওয়া যাবে না। ব্যর্থতার কারণেই সরকারের পতন ঘটবে। 

বিএনপির এ নেতা বলেন, বর্তমান সরকার দলীয় শাসন চালাচ্ছেন। বিএনপির চেয়ারপারসন ২১ মাস ধরে কারাগারে বন্দি আছেন। তিনি চিরদিন বন্দি থাকবেন না। আমরা খালেদা জিয়াকে যে কোনও সময় মুক্ত করে আনব। যে কোনও সময় ছোট্ট একটি ঘটনা সরকারের পতন ডেকে আনতে পারে। এরআগে বেশ কয়েকটি উদাহরণ আমরা দেখেছি।

আর প্রেস ক্লাবে নয়, যা হবে রাস্তায় হবে: গয়েশ্বর

এদিকে, বিএনপি'র স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, ‘নেতারা অনেক সময় নির্দেশ দিতে পারেন না। তাই বলে কর্মীদের বসে থাকলে চলবে না। ’৭১-এ নেতারা নির্দেশ দিতে পারেননি। তখন অখ্যাত একজন মেজর স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছিলেন। কেউ প্রশ্ন করেনি- ‘তুমি কে হে স্বাধীনতার ঘোষণা দেয়ার। সবাই তার ঘোষণার সাথে সাথে যুদ্ধে নেমেছিল। সুতরাং আর প্রেস ক্লাবে নয়, যা হবে রাস্তায় হবে।’

শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হল রুমে তারেক পরিষদ ঢাকা মহানগর উত্তর আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

গয়েশ্বর চন্দ্র রায় আরও বলেন, আদালতের মাধ্যমে নেত্রীর মুক্তি হবে না, এটা বুঝে গেছি। সুতরাং আপনাদের যদি প্রাণের দাবি ও আকাঙ্ক্ষাবোধ তীব্র হয় খালেদা জিয়ার মুক্তি চান, তাহলে আপনারা প্রস্তুত হন কারো আশা-ভরসার ওপর নির্ভর না করে। নেতা ডাকলো কি ডাকলো না সেটা দেখার দরকার নেই। আমার অধিকার আছে খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য পথে নামার।’

তারেক পরিষদ ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি সাহেদুল ইসলাম লরেন এর সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য রাখেন, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, যুগ্ম-মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, নির্বাহী কমিটির সদস্য মেজর (অব:) মো. হানিফ প্রমুখ।#

পার্সটুডে/শামস মণ্ডল/আশরাফুর রহমান/৮

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ

মন্তব্য