জানুয়ারি ২৫, ২০২০ ২০:০১ Asia/Dhaka
  • ভারতে গরু আনতে গিয়ে নিহত হলে দায় নেবে না সরকার: সাধন চন্দ্র

বাংলাদেশের খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার আজ স্পষ্ট করেই বলেছেন, অবৈধভাবে ভারতে ঢুকে কেউ গরু আনতে গিয়ে নিহত হলে, তার দায় নেবে না সরকার। আজ (শনিবার) রাজশাহীর দামকুড়াহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের হীরক জয়ন্তী উৎসবে যোগ দিয়ে তিনি এ মন্তব্য করেন।  

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, আমাদের উপজেলা, বিজিবি ও জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির রেজুলেশন আছে আমরা গরুর বিট খুলতে দিবো না। কেউ যদি জোর করে কাঁটা তারের বেড়া খুলে গরু আনতে যায়, আর ইন্ডিয়ার মধ্যে যদি গুলি খেয়ে মারা যায় তাহলে তাদের দায়-দায়িত্ব বাংলাদেশ সরকার নিবে না।

অপরদিকে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলছেন, সীমান্তে হত্যাকাণ্ড অনিয়মিত ঘটনা। এতে ভারতের সাথে বাণিজ্যিক সম্পর্কে কোনো প্রভাব পড়বে না।

আজ সকালে রংপুরের নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের কাছে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, পেঁয়াজের সমস্যা এবং সীমান্তের সমস্যা আলাদা। তাদের পেঁয়াজ ছিল না তাই তারা বন্ধ করে দিয়েছে। খুব স্বাভাবিক, আমরা যেটা চেয়েছিলাম আমাদের আগে থেকে জানানো হোক। তাদের দেশের পেঁয়াজতো আমাদের দেশের থেকে বেশি দাম ওঠেছে তাই এটার সাথে রিলেটেড নাই। আর বর্ডারে যেটা সেটা অনিয়মিত মাঝেমাঝে হচ্ছে। কখনও দুই পক্ষের মিটিং হচ্ছে তারা সমাধান করার চেষ্টা করছে। এর সাথে ব্যবসা বাণিজ্যের কোনো সম্পর্ক নাই। যেটা আমাদের ধারাবাহিকভাবে চলছে সেটা চলবে আমরা আশাবাদী আমাদের আমদানি আরও বাড়বে।

ওদিকে, নওগাঁর দুয়ারপাল সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে নিহত দুই বাংলাদেশি নাগরিকের পরিবারের আবেদনের প্রেক্ষিতে তাদের লাশ ফেরত আনার উদ্যোগ নিয়েছে বিজিবি।

১৬ বিজিবির কমান্ডিং অফিসার আরিফুল ইসলাম জানান, বিএসএফের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা চলছে। তবে কখন মরদেহ ফেরত আসবে, সে বিষয়ে পরিষ্কার কিছু জানা যায়নি।

২২ জানুয়ারি, দুয়ারপাল সীমান্তে ৩ বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যা করে ভারতের সীমান্তরক্ষী বাহিনী-বিএসএফ। সনজিত ও কামাল নামে দুই বাংলাদেশির মরদেহ নিয়ে যায় বিএসএফ।

উল্লেখ্য, চলতি জানুয়ারি মাসে সীমান্তে বিএএফের গুলিতে অন্তত: নয়জন বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন।#

পার্সটুডে/আবদুর রহমান খান/আশরাফুর রহমান/২৫

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ

মন্তব্য