আগস্ট ১৪, ২০২০ ১২:৩৬ Asia/Dhaka
  • বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী
    বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী

বাংলাদেশে ভারতীয় হাইকমিশনের প্রধান হিসেবে বিক্রম ‍কুমার দোরাইস্বামীকে নিয়োগ দিয়েছে দিল্লি। ঢাকায় রীভা গাঙ্গুলি দাশের স্থলাভিষিক্ত হবেন তিনি।

ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, অতিরিক্ত সচিব বিক্রম কুমার দোরাইস্বামীকে বাংলাদেশে পরবর্তী ভারতীয় হাইকমিশনার হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। শিগগিরই তিনি এই দায়িত্ব বুঝে নেবেন।

ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ১৯৯২ ব্যাচের কর্মকর্তা দোরাইস্বামী অতিরিক্ত সচিব হিসেবে কাজ করছেন। তিনি ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের হয়ে আন্তর্জাতিক সংস্থা ও সামিট বিভাগের দেখভালের দায়িত্বে রয়েছেন।

এদিকে ভারতীয় গণমাধ্যমগুলোর খবর, ১৯৮৬ ব্যাচের আইএফএস অফিসার রীভা গাঙ্গুলি দাশকে ঢাকা থেকে দিল্লিতে ফিরিয়ে নেওয়া হচ্ছে। তিনি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব (পূর্ব) পদে বিজয় ঠাকুর সিংয়ের স্থলাভিষিক্ত হবেন। আগামী সেপ্টেম্বরে বিজয় ঠাকুরের অবসরে যাওয়ার কথা রয়েছে।

ঢাকা ছাড়ার প্রস্তুতিও এরই মধ্যে নিতে শুরু করেছেন বিদায়ী ভারতীয় হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশ। ঈদের আগে ২৮ জুলাই তিনি ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সরকারের সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। গত ৬ আগস্ট তিনি বিদায়ী সাক্ষাৎ করেন মন্ত্রিসভার জ্যেষ্ঠ সদস্য মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হকের সঙ্গে। এর ধারাবাহিকতায় ১০ আগস্ট সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদের সঙ্গে মন্ত্রণালয়ে তার কার্যালয়ে বিদায়ী সাক্ষাৎ করেন রীভা।

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন ভারতের বিদায়ী হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলী দাস

সবশেষ বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন ভারতের বিদায়ী হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলী দাস। সাক্ষাৎ শেষে তিনি বলেন, 'ভারত-বাংলাদেশের সম্পর্ক স্বাভাবিক আছে। আমরা কোভিডের মধ্যেও একসাথে কাজ করেছি। সম্পর্ক ঘনিষ্ঠ হওয়ার কারণেই হয়েছে। এখানে ট্রেড ট্রেন চলছে। সাপ্লাই চেইন ঠিক আছে জানিয়ে রীভা গাঙ্গুলী বলেন, এখানে অনেকগুলো চুক্তি হয়েছে। একসাথে অনেকগুলো প্রজেক্ট করেছি। এটি দুদেশের জন্য উইন উইন অবস্থান। আমাদের ট্রেড বাড়বে। এটাতে বাংলাদেশেরও লাভ হবে, কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে।'

এসময় নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ভারতের সাথে বাংলাদেশের সম্পর্ক অত্যন্ত সুস্থ ও সবল আছে। মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতের সঙ্গে যে সম্পর্ক তৈরি হয়েছে সেটি রক্তের সম্পর্ক। এ সম্পর্ক কখনোই দুর্বল হওয়ার নয়।

রীভা গাঙ্গুলি দাশের আগে ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশনার হিসেবে নিযুক্ত ছিলেন হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা। বাংলাদেশে দায়িত্ব পালন শেষে তিনি আমেরিকায় ভারতীয় রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিযুক্ত হন। গত জানুয়ারি থেকে তিনি ভারতের ৩৩তম পররাষ্ট্র সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।#

পার্সটুডে/আশরাফুর রহমান/১৪

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

 

ট্যাগ

মন্তব্য