অক্টোবর ১৬, ২০২০ ১৪:৪৫ Asia/Dhaka
  • বাংলাদেশে ৭ মাস পর খুলল সিনেমা হল: পুজায় সীমিত অনুষ্ঠান

বাংলাদেশে করোনা পরিস্থিতির কারণে হলে সিনেমা প্রদর্শন টানা সাত মাস বন্ধ থাকার পর স্বাস্থ্যবিধি মেনে আজ (শুক্রবার) থেকে সিনেমা হল খুলে দেওয়া হয়েছে। বুধবার তথ্য মন্ত্রণালয় এ সংক্রান্ত একটি পত্রে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালন, সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতকরণ ও সিনেমা হলের আসন সংখ্যার কমপক্ষে অর্ধেক আসন খালি রাখা সাপেক্ষে ১৬ অক্টোবর থেকে সারা দেশের সিনেমা হলগুলোতে চলচ্চিত্র প্রদর্শনের অনুমতি প্রদান করে।   

তথ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে দেশের সব হল মালিক ও জেলা প্রশাসকদের কাছে এ পত্রের অনুলিপি পাঠানো হয়।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের মধ্যে অন্যসব বিনোদনকেন্দ্রের মত দেশের সব সিনেমা হলও ১৮ মার্চ থেকে বন্ধ রাখা হয়। তবে সিনেমা হল খোলার অনুমতি মিললেও দর্শক উপস্থিতি কম হবার আশঙ্কায় মুক্তির অপেক্ষায় থাকা বড় বাজেটের চলচ্চিত্রগুলো হলে ছাড়তে  আরও সময় চেয়েছিলেন প্রযোজকরা।

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রযোজক পরিবেশক সমিতি জানিয়েছে, আজ (শুক্রবার) ‘সাহসী হিরো আলম’ নামে একটি ছবি মুক্তির তালিকায় রয়েছে। এর বাইরে আপাতত কোনও ছবি মুক্তির ব্যাপারে প্রযোজকরা যোগাযোগ করেননি।

অন্যদিকে রাজধানীর সিনেমা হলের পক্ষ থেকে কেউ কেউ জানিয়েছেন, “হিরো আলমের ছবি দিয়ে আপাতত সিনেমা হল খুলব না। প্রয়োজনে আরও দেরি করব কিন্তু ভালো ছবি নিয়েই হল খুলব।”

এদিকে, শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে আগামী ২৩ অক্টোবর থেকে খুলছে জনপ্রিয় প্রেক্ষাগৃহ স্টার সিনেপ্লেক্সের সবকটি শাখা।

বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ থেকে দেওয়া এক পোস্টে বিষয়টি জানিয়েছে সিনেপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ।

তারা জানিয়েছে, সবগুলো শাখায় সর্বোচ্চ ৪০% টিকিট বিক্রি করা হবে। দর্শকদের অবশ্যই শারীরিক দূরত্ব মানতে হবে। প্রেক্ষাগৃহের ভেতরে বজায় রাখা হবে ১ মিটার দূরত্ব।

পাশাপাশি, প্রেক্ষাগৃহে অবস্থানের সময় দর্শকদের সার্বক্ষণিক মাস্ক পরে থাকার জন্য বলেছে স্টার সিনেপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ। আর নিরাপত্তার জন্য পরিচ্ছন্নতা ব্যবস্থা আরও জোরদার করা হবে বলে জানিয়েছে তারা।

চলচ্চিত্র ও টিভি নাটকের শুটিংও কয়েক মাস বন্ধ থাকার পর চালু করা হয়েছে। মঞ্চনাটকের প্রদর্শনী এখনও বন্ধ থাকলেও ২৩ অক্টোবর থেকে চালুর কথা রয়েছে।

পুজায় সীমিত অনুষ্ঠান

এদিকে, হিন্দু ধর্মাবলম্বিদের প্রধান উৎসব শারদীয় দুর্গা পূজা উদ্বোধন উপলক্ষে সীমিত লোক সমাগম ও যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে অনুষ্ঠান পালন করার নির্দেশ দিয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) । 

গতকাল এ সংক্রান্ত  এক নির্দেশে  ইলেকট্রনিক্স মিডিয়া এবং অনলাইনে ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে দুর্গা পূজার অনুষ্ঠান আয়োজনের পরামর্শ দেয়া হয়েছে। এ নির্দেশে জানানো হয়েছে, পূজা উপলক্ষে কোন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, মেলা, সার্কাস ইত্যাদি আয়োজন করা যাবে না এবং উচ্চ শব্দে বাজনা বাজানো নিরুৎসাহিত করাসহ পটকা ও আতোশবাজি না ফুটানো নিশ্চিত করতে হবে।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে স্বল্প পরিসরে দর্শনার্থীদের পূজা মন্ডপে প্রবেশের ব্যবস্থা করার হবে। অনুষ্ঠান স্থলে মাস্ক ছাড়া কাউকে প্রবেশ করতে দেওয়া যাবে না।

করোনাকালীন বিশেষ পরিস্থিতিতে শিশু, বয়স্ক ও অসুস্থ ব্যক্তিদের পূজা মন্ডপে আসতে নিরৎসাহিত করতে হবে।

পূজা শেষে লোক সমাগম করে কোন সমাপনী অনুষ্ঠান করা যাবে না। শোভাযাত্রা সহকারে প্রতিমা বিসর্জন পরিহার করতে হবে। বিসর্জনকালীন প্রতিমা বহনে একটি ট্রাকে ন্যূনতম সংখ্যক লোক থাকবে। এছাড়া অতিরিক্ত ট্রাক/গাড়ি বা ভক্তদের শোভাযাত্রা  থাকতে পারবে না।#

পার্সটুডে/আবদুর রহমান খান/আশরাফুর রহমান/১৬

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ

মন্তব্য