এপ্রিল ২১, ২০২১ ১৮:৩৮ Asia/Dhaka
  • বাংলাদেশে করোনার নতুন ধরন ও মিউটেশনের কারণে সংক্রমণ ও মৃত্যু বেড়েছে

বাংলাদেশে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ চলছে। করোনার নতুন ধরন ও মিউটেশনের কারণে এই ভাইরাস ছড়াচ্ছে। ফলে সংক্রমণ ও মৃত্যু বেড়েছে। আজ (বুধবার) কোভিড-১৯ পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের আয়োজিত ভার্চুয়াল স্বাস্থ্য বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এসময় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মুখপাত্র ডা. মোহাম্মদ রোবেদ আমিন বলেন, করোনা রোগীদের চিকিৎসায় ডিএনসিসি ডেডিকেটেড কোভিড-১৯ হাসপাতাল নতুন করে যোগ হয়েছে। হাসপাতালটিতে ইতোমধ্যে ১৩৮ জন চিকিৎসককে পদায়ন করা হয়েছে। যারা নতুন করে আক্রান্ত হচ্ছেন, তারাই শুধু এই হাসপাতালে যাবেন। আর যারা ইতোমধ্যেই আক্রান্ত হয়ে কোথাও চিকিৎসাধীন, তারা এখানে এসে ভিড় না জমাতে অনুরোধ করা হয়েছে। 

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এ মুখপাত্র বলেন, দেশে করোনা আক্রান্ত রোগীদের জন্য সবচেয়ে জরুরি প্রয়োজন হলো অক্সিজেন সিলিন্ডার। আর এজন্য সারাদেশে ২০/২৫ হাজার অক্সিজেন সিলিন্ডার ছড়িয়ে দেওয়া আছে। করোনায় ষাটোর্ধ্বরাই বেশি মৃত্যুবরণ করছে এবং তাদের মধ্যে ডায়াবেটিস ও হাইপারটেনশনের রোগীরাই বেশি। তবে করোনার নতুন যে ধরন এসেছে, তাতে তরুণরাও ব্যাপক হারে আক্রান্ত হচ্ছে। সুতরাং জটিল রোগে আক্রান্ত বা আক্রান্ত নয়, এটা দেখার কোনও সুযোগ নেই। সবাইকেই সচেতন হতে হবে।

২৪ ঘণ্টায় ৯৫ জনের মৃত্যু

এদিকে, বাংলাদেশে করোনা সংক্রমণে গত ২৪ ঘণ্টায় ৯৫ জনের মৃত্যু এবং ৪ হাজার ২৮০ জন নতুন রোগী শনাক্ত হবার খবর দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। 

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে আজ (বুধবার) সকাল ৮টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ২৮ হাজার ৪০৮ জনের। নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় রোগী শনাক্তের হার ১৫ দশমিক শূন্য ৭ শতাংশ।

এ পর্যন্ত দেশে মোট ৭ লাখ ৩২ হাজার ৬০ জনের করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। তাঁদের মধ্যে মারা গেছেন ১০ হাজার ৬৮৩ জন। মোট সুস্থ হয়েছেন ৬ লাখ ৩৫ হাজার ১৮৩ জন।

গতকাল করোনায় ৯১ জনের মৃত্যু হয়েছিল এবং ৪ হাজার ৫৫৯ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছিল।

অন্য দেশ থেকেও সরকার করোনার টিকা আনার উদ্যোগ

অপরদিকে, তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ আজ জানিয়েছেন, বিভিন্ন প্রচার মাধ্যমে টিকার সরবরাহ নিয়ে যা প্রচার করা হচ্ছে বাস্তবে তা ঠিক নয়। ভারতের পাশাপাশি অন্যান্য দেশ থেকেও সরকার করোনার টিকা আনার উদ্যোগ নিয়েছে। 

বুধবার দুপুরে সচিবালয়ে ক্লিনিক ভবনে করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণের পর সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে তিনি একথা জানান। ড. হাছান জানান, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই করোনা মহামারির মধ্যে মানুষকে স্বাস্থ্য সুরক্ষা দেয়ার জন্য প্রথম থেকেই সচেষ্ট ছিলেন এবং সেই কারণে এই মরণঘাতী করোনা মহামারি মোকাবিলা ও জনগণকে করোনা ভ্যাকসিন দেয়ার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ অনেক উন্নত দেশের তুলনায় এগিয়ে আছে।#

পার্সটুডে/আবদুর রহমান খান/আশরাফুর রহমান/২১

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।  

ট্যাগ