জুলাই ২৪, ২০২১ ১৯:২৬ Asia/Dhaka
  • ঈদে মানুষের চলাচল বৃদ্ধির কারণে করোনা সংক্রমণ বাড়বে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ঈদুল আজহায় মানুষের চলাচলের কারণে করোনা সংক্রমণ কিছুটা বাড়বে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। শনিবার (২৪ জুলাই) বিকেলে ‘কোভিড-১৯ সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি প্রতিরোধ, অক্সিজেন সঙ্কট, হাসপাতালের সুযোগ-সুবিধা ও শয্যা সংখ্যা বৃদ্ধি’ শীর্ষক ভার্চুয়াল মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা জানান।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, জনসাধারণকে স্বাস্থ্যবিধি মানাতে সরকার চেষ্টা করেছে, জরিমানা করেছে, জেলে ঢুকিয়েছে, তারপরও মানুষ মানেনি। তারা বেপরোয়াভাবে ঘুরে বেড়িয়েছে। মানুষের ঈদে গরুর হাটে যাতায়াত, গ্রামের বাড়িতে যাওয়া-আসা, বাজার, দোকানপাট, আত্মীয় বাড়িতে যাতায়াত এসবের  ফলে নিশ্চয়ই সংক্রমণ বৃদ্ধি পেয়েছে।

জাহিদ মালেক আরও বলেন, ‘করোনা সংক্রমণ বাড়ার আরেকটি কারণ হলো ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট। এই ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণের ক্ষমতা অনেক বেশি। এটা ভারত থেকে আমরা পেয়েছি। ভারতের যে জনগণ এবং আমাদের জনগণ কিন্তু একই ধরনের। তারাও গ্রামগঞ্জে আক্রান্ত হয়েছে। সে কারণে আমাদেরও গ্রামে বেশি আক্রান্ত হচ্ছে। সে তুলনায় শহরে আক্রান্ত কম। এর আগে যখন করোনা বেড়েছিল তখন আমরা ইউরোপ বা মধ্যপ্রাচ্য থেকে পেয়েছিল্যাম্ব। তখন শহরে আক্রান্তের সংখ্যা বেশি ছিল, গ্রামে আক্রান্ত কম ছিল। ভারতের এই ভাইরাসের সংক্রমণ নামতে তিন মাস লেগেছে। আমাদের দেশেও আমি মনে করি এরকমই একটা সময় লাগার সম্ভাবনা রয়েছে।’

সংক্রমণের সর্বশেষ তথ্য

এদিকে, একদিনের ব্যবধানে দেশে করনা সংক্রমণ  ও মৃত্যুর হার বৃদ্ধি পেয়েছে। আজ শমিবার বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদফতরের সর্বশেষ সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে  দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ১৯৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৯ হাজার ৪৬ জনে। এ সময় নতুন করে করনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছেন ৬ হাজার ৭৮০ জন । পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার পাওয়া গেছে ৩২.৫৫ শতাংশ । এটা গতকাল ছিল ৩১.০৫ শতাংশ। এছাড়া,  আজকে সংক্রমণের তুলনায়  মৃত্যুর হার পাওয়া গেছে ১.৬৫ শতাংশ যা গতকাল ছিল ১.৬৪ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায়  মৃতদের মধ্যে ১০৩ জন পুরুষ এবং ৯২ জন মহিলা। বিভাগভিত্তিক হিসেবে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েহে  ঢাকা বিভাগে ৬৮ জন । মৃত্যুর তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে খুলনা ৪১ জন ও তৃতীয় অবস্থানে চট্টগ্রাম বিভাগে ৩৬ জন।

এছাড়া, রাজশাহীতে ১৮ জন, রংপুরে ১৬ জন, ময়মনসিংহে ১০ জন, বরিশালে ৫ জন ও সিলেটে ১ জন মারা গেছেন। গত ৭ জুলাই প্রথমবারের মতো দেশে মৃতের সংখ্যা ২০০ ছাড়িয়ে যায়। এদিন মৃত্যু হয় ২০১ জনের। গতকাল শুক্রবার মারা যায় ১৬৬ জন,  বৃহস্পতিবার ১৮৭ জন,  বুধবার ১৭৩,  মঙ্গলবার ২০০ ও সোমবার সর্বোচ্চ ২৩১ জনের মৃত্যু হয়।#

 

পার্সটুডে/আবদুর রহমান খান/ বাবুল আখতার/২৪

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

 

 

 

 

ট্যাগ