জুলাই ২৯, ২০২১ ১৫:৫৭ Asia/Dhaka
  • কঠোর লকডাউনের মধ্যে কারখানা খুলে দেয়ার দাবি শিল্প উদ্যোক্তাদের

মহামারী করোনা প্রতিরোধে চলমান কঠোর বিধিনিষেধের মধ্যে ২৩ জুলাই থেকেও বন্ধ রয়েছে বাংলাদেশের গার্মেন্টসসহ সকল কলকারখানা। এ পরিস্থিতিতে শিল্প উদ্যোক্তা ও ব্যবসায়ীদের শীর্ষ নেতারা তাদের হতাশার কথা জানিয়ে উৎপাদনমুখী সব কল-কারখানা দ্রুত খুলে দিতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। 

এ প্রসঙ্গে বৃহস্পতিবার সচিবালয় মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলামের সঙ্গে বৈঠকে করেছেন ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই, তৈরি পোশাক উৎপাদক রপ্তানিকারকদের সংগঠন বিজিএমইএ, বিকেএমইএ, বিটিএমএ, ঢাকা চেম্বারসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

বৈঠকে মন্ত্রিপরিষদ সচিব ব্যবসায়ীদের আশ্বস্ত করে বলেছেন, ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে কারখানা খোলা রাখার যে প্রস্তাব দেয়া হয়েছে তা দ্রুত সময়ে প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করা হবে। প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শক্রমে পরবর্তী সিদ্ধান্ত আসবে।

বৈঠক শেষে বিজিএমইএর সহসভাপতি মোহাম্মদ হাতেম বলেন, "কারখানা কবে খুলবে তার নির্দিষ্ট তারিখ আমাদেরকে বলা হয়নি, তবে ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে দ্রুত কল কারখানা খুলে দেয়ার জন্য আমরা প্রস্তাব করেছি। এটি আমাদের আগের প্রস্তাব যা আজ আবার নতুন করে সরকারের নিকট তুলে ধরা হয়েছে। মন্ত্রিপরিষদ সচিব বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হচ্ছে বলে আমাদের আশ্বস্ত করেছেন।"

এর আগেও ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতারা মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিবের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে শিল্প কারখানাগুলো খুলে দেওয়ার দাবি জানান। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গত মঙ্গলবার করোনা সংক্রান্ত সরকারে উচ্চপর্যায়ের বৈঠক হয়। বৈঠক শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, লকডাউন ৫ আগস্ট পর্যন্ত চলবে। শিল্পমালিকরা অনুরোধ জানালেও কারখানা খুলে দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না।#

পার্সটুডে/আবদুর রহমান খান/আশরাফুর রহমান/২৯

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ