অক্টোবর ২৮, ২০২১ ১৩:৩৩ Asia/Dhaka
  • নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে নিহত আওয়ামী লীগ নেতা আবু সায়েদ রিপন
    নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে নিহত আওয়ামী লীগ নেতা আবু সায়েদ রিপন

বাংলাদেশে চলমান ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন এবং আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ভিন্ন ভিন্ন ঘটনায় দশ ঘণ্টায় তিনজন জন নিহত এবং অন্তত ৬ জন আহত হয়েছে।

আজ (বৃহস্পতিবার) ভোরে উপজেলার নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলায় কাচারীকান্দি গ্রামে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দু'পক্ষের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে দু’জন নিহত হয়েছেন। নিহতরা হলেন- কাচারীকান্দি গ্রামের মৃত মলফত মিয়ার ছেলে সাদির মিয়া (২২) ও আসাদ মিয়ার ছেলে হিরণ মিয়া (৩৫)।

এ সময় গুরুতর আহত হয়েছেন অন্তত আরও ৪০ জন। আহতদের রায়পুরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, নরসিংদী সদরসহ বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জানা গেছে, উপজেলার পাড়াতলী ইউপি সদস্য শাহ আলম মিয়া ও প্রয়াত ইউপি সদস্য ফজলু মিয়া ছেলে ছোট শাহ আলমের মধ্যে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এর আগেও দু'পক্ষের সংঘর্ষে তিনজন নিহত হয়েছিল। আজ ভোরে দু'পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনায় নিহত দুজন ছোট শাহ আলমের পক্ষের লোক বলে জানা গেছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কাজ করছে।

আওয়ামী লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

ওদিকে, নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার মিরওয়ারিশপুর ইউনিয়নে আবু সায়েদ রিপন (৫০) নামের এক আওয়ামী লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। আজ ভোরে বারিরহাট বাজার থেকে তার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

নিহত আবু সায়েদ রিপন ওই ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। তিনি বেগমগঞ্জের চৌমুহনী চৌরাস্তায় লাল-সুবজ বাস কাউন্টারের মালিক ছিলেন।

বেগমগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহিদুল হক রনি স্থানীয়দের বরাত দিয়ে জানান, গতকাল বুধবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে বেগমগঞ্জ বাস কাউন্টার থেকে আবু সায়েদ রিপন মোটরসাইকেলে নিজ বাড়ি যাচ্ছিলেন। এ সময় তার গতিরোধ করে দুর্বৃত্তরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকে ৮-১০টি আঘাত করে। এতে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

ভোলায় দুই মেম্বারপ্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে আহত ২০

অপরদিকে ভোলার দৌলতখানে দুই মেম্বারপ্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে অন্তত ২০ জন আহত হয়েছে। এসময় একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও কয়েকটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়। গতকাল রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার চরখলিফা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের হাজি বাড়ির দরজায় এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, গতকাল রাতে কলাকোপা ১নং ওয়ার্ডের তালা প্রতীকের মেম্বারপ্রার্থী ইয়ার হোসেন তার নির্বাচনী এলাকায় কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছিলেন। এসময় প্রতিদ্বন্দ্বী ফুটবল প্রতীকের প্রার্থী রাহাত তালুকদারের কর্মী-সমর্থকরা ওই প্রচারণায় হামলা চালায়। একপর্যায়ে উভয়পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

কক্সবাজার গুলিবিদ্ধ ছাত্রলীগ নেতা

কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি মোনাফ সিকদারকে গতকাল বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে শহরের সুগন্ধা পয়েন্টে দুর্বৃত্তরা গুলি করে পালিয়ে যায়। গুলিবিদ্ধ ছাত্রলীগ নেতা মোনাফকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে পাঠায়। সেখানে জরুরি বিভাগে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে চট্টগ্রামে স্থানান্তর করা হয়েছে।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মুনীর উল গীয়াস জানান, ঘটনাটি কারা ঘটিয়েছে তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। ঘটনাস্থলে পুলিশ রয়েছে। ঘটনাটি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।#

পার্সটুডে/আবদুর রহমান খান/আশরাফুর রহমান/২৮

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন। 

ট্যাগ