জানুয়ারি ১৭, ২০২২ ১৮:৩৭ Asia/Dhaka
  • ভারতে করোনার সময় ১.৪৭ লাখ শিশু তাদের মা-বাবাকে হারিয়েছে: এনসিপিসিআর

ভারতে শিশুর অধিকার রক্ষায় জাতীয় কমিশন (এনসিপিসিআর) সুপ্রিম কোর্টকে জানিয়েছে, ২০২০ সালের এপ্রিল থেকে দেশের ১ লাখ ৪৭ হাজার ৪৯২ জন শিশু করোনা এবং অন্যান্য কারণে তাদের বাবা-মায়ের মধ্যে কোনো একজন অথবা দুজনকেই হারিয়েছে। এর মধ্যে ৭৬,৫০৮ জন ছেলে, ৭০,৯৮০ জন মেয়ে এবং ৪ টি হিজড়া শিশু রয়েছে।

আজ (সোমবার) হিন্দি গণমাধ্যম ‘দৈনিক ভাস্কর’ সূত্রে প্রকাশ- 'এনসিপিসিআর’ বলেছে, তাদের পরিসংখ্যান রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলোর পক্ষ থেকে বাল স্বরাজ পোর্টাল-কোভিড কেয়ারে দেওয়া তথ্যের উপর ভিত্তিতে তৈরি করা হয়েছে।

কমিশন বলেছে, ১১ জানুয়ারি পর্যন্ত তথ্য অনুযায়ী, ২০২০ সালের এপ্রিল থেকে দেশে ১০,০৯৪ শিশু এতিম হয়েছে, ১ লাখ ৩৬ হাজার ৯১০টি শিশু পিতা-মাতার মধ্যে কোনও একজনকে হারিয়েছে এবং ৪৮৮ শিশু তাদের পিতামাতার দ্বারা পরিত্যক্ত হয়েছে। সব মিলিয়ে এই সংখ্যা ১ লাখ ৪৭ হাজার ৪৯২। 

প্রতিবেদনে প্রকাশ   

এই শিশুদের মধ্যে, ৫৯,০১০ টি শিশুর বয়স ৮ থেকে ১৩ বছরের মধ্যে। এরপরে ২২,৭৬৩ টি শিশু ১৪ থেকে ১৫ বছর বয়সী রয়েছে। ১৬ থেকে ১৮ বছর বয়সী ২২,৬২৬ শিশু এবং ৪ থেকে ৭ বছর বয়সী ২৬,০৮০ জন শিশু রয়েছে।     

এরমধ্যে ১ লাখ ২৫ হাজার ২০৫ টি শিশু তাদের মা অথবা বাবার সাথে আছে, ১১,২৭২টি শিশু পরিবারের কোনও সদস্যদের সাথে বাস করছে এবং  ৮,৪৫০টি শিশু অন্য অভিভাবকদের তত্ত্বাবধানে আছে। ১ হাজার ৫২৯টি শিশু শিশু হোমে, ১৯টি শিশু আশ্রয়কেন্দ্রে, ২টি শিশু পর্যবেক্ষণ হোমে, ১৮৮টি এতিমখানায়, ৬৬টি শিশু বিশেষ দত্তক সংস্থায় এবং ৩৯টি শিশু হোস্টেলে রয়েছে।    

ওই শিশুদের মধ্যে উড়িষ্যার ২৪,৪০৫টি শিশু,১৯ হাজার ৬২৩ শিশু মহারাষ্ট্রের, ১৪ হাজার ৭৭০টি শিশু গুজরাটের, তামিলনাড়ুর,  ১১ হাজার ১৪টি শিশু, উত্তর প্রদেশের, ৯২৪৭টি শিশু, ৮ হাজার ৭৬০টি শিশু অন্ধ্র প্রদেশের, ৭ হাজার ৩৪০টি শিশু মধ্য প্রদেশের, ৬ হাজার ৮৩৫টি শিশু, পশ্চিমবঙ্গের, ৬ হাজার ৮৩৬টি শিশু, দিল্লির ৬ হাজার ৬২৯টি শিশু এবং রাজস্থানের ৬ হাজার৮২৭টি শিশু রয়েছে।  

কমিশন বলেছে, এই মহামারীতে শিশুরা যাতে কোনোভাবেই ক্ষতিগ্রস্ত না হয় তা নিশ্চিত করা হচ্ছে। এই বিষয়ে, রাজ্য কমিশনের সাথে একটি ভার্চুয়াল বৈঠকে শিশুদের স্বার্থ রক্ষায় তাদের প্রস্তুতির পর্যালোচনা করছে কমিশন। #

পার্সটুডে/এম এ এইচ/গাজী আবদুর রশীদ/১৭ 

ট্যাগ