মে ০৬, ২০২২ ১৮:৪৫ Asia/Dhaka

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কাশীপুরে এক বিজেপি যুব মোর্চা নেতার অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ বলেছেন, রাজনৈতিক উদ্দেশ্য অর্জুনকে হত্যা করা হয়েছে, ওই ঘটনার ‘সিবিআই’তদন্ত হওয়া উচিত।

পশ্চিমবঙ্গ সফররত অমিত শাহ আজ (শুক্রবার) বলেন, ‘রাজনৈতিক উদ্দেশ্যেই হত্যা করা হয়েছে। গতকালই তৃণমূল সরকারের একবছর পূর্তি হয়েছে। তার পরের দিন বাংলায় রাজনৈতিক হত্যা হল। জঘন্যভাবে। সারা বাংলায় বিরোধী নেতা-কর্মীদের  বেছে বেছে টার্গেট করা হচ্ছে। বিজেপি অর্জুন চৌরাসিয়ার হত্যার তীব্র নিন্দা করছে।  এর ‘সিবিআই’ তদন্ত হওয়া উচিত।’  

অমিত শাহ আরও বললেন, ‘গত কিছুদিনের মধ্যে অনেকগুলো ক্ষেত্রে সিবিআই তদন্তের নির্দেশে দিয়েছে আদালত। দেশের কোথাও এত কম সময়ের মধ্যে এতগুলো সিবিআই তদন্তের নির্দেশের নজির নেই। এটাই প্রমাণ করে যে সাধারণ মানুষের মতো আদালতেরও রাজ্য পুলিশের উপরে আস্থা নেই।’

এদিকে, বিজেপি অর্জুন চৌরাসিয়ার মৃত্যুর ঘটনায় তৃনমূলকে দায়ী করায় এ প্রসঙ্গে রাজ্য তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক ও দলীয় মুখপাত্র কুণাল ঘোষ আজ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কটাক্ষ করে বলেন, ‘তান্ত্রিকদের নরবলির মত। আত্মহত্যা, নাকি আসলে নিজেদেরই বিক্ষুব্ধ শিবিরের কাউকে শেষ করে ইস্যু তৈরির চেষ্টা? তার সফরের মধ্যে হলে নাটক করার সুযোগও থাকছে। ওদেরই ‘সুপরিকল্পিত চিত্রনাট্য’ নয় তো? জনবিচ্ছিন্ন সরীসৃপরা প্রচার আর কুৎসার জন্য আর কত নামবে? তদন্ত চলুক।’      

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহের পক্ষ থেকে কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা ‘সিবিআই’ তদন্তের দাবি প্রসঙ্গে আজ শুক্রবার তৃণমূল মুখপাত্র কুণাল ঘোষ গণমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘ওনার মুখে ‘সিবিআই’তদন্তের কথা শোভা পায় না। কারণ, নারদ আর্থিক দুর্নীতি মামলায় সিবিআইয়ের এফআইআরে শুভেন্দু অধিকারীর (রাজ্যে বিরোধী দলনেতা ও বিজেপি বিধায়ক) নাম রয়েছে। তিনি দল বদল করে অমিত শাহের দলে নাম লিখিয়ে অমিত শাহের পাশে ঘুরে বেড়াচ্ছেন! ‘সিবিআই’যদি নিরপেক্ষ হবে আগে তো শুভেন্দু অধিকারীকে গ্রেফতার করবে। সিবিআইকে কেন্দ্রীয় বিজেপির শাখা সংগঠনে অমিত বাবুরা পরিণত করছেন, সেটা তো এ থেকে বোঝা যাচ্ছে। যিনি মারা গেছেন, মৃত্যু খুব খারাপ জিনিস। কিন্তু কীসে মারা গেলেন? কীভাবে মারা গেলেন, কেন মারা গেলেন তার তদন্ত হোক। কিন্তু তার আগে সুপরিকল্পিতভাবে  বিজেপি একটা পরিবেশ ফ্রেম করার চেষ্টা করছে যে এটা নাকি তৃণমূল করেছে বা তৃণমূলের কোনও সম্পর্ক আছে। তৃণমূলের কণো অবস্থায় এর সঙ্গে কোনও সম্পর্ক নেই।’   

কুণাল ঘোষ বলেন, ‘তৃণমূল কংগ্রেস এর সঙ্গে জড়িত নয়। বরং এই অভিযোগ আমরা তুলতে চাচ্ছি যে, এটা অমিত শাহদের একটা ‘নাটক’করার মঞ্চ করে দেওয়ার জন্য এই অর্জুন ছেলেটি, যেটুকু খবর পাওয়া যাচ্ছে বিজেপির এক বিক্ষুব্ধ নেতার ঘনিষ্ঠ ছিলেন। এবং পরবর্তীকালে আমাদের বিধায়ক অতীন ঘোষ জানিয়েছেন তিনি কিন্তু বিজেপির প্রতি বীতশ্রদ্ধ হয়ে গিয়েছিলেন। যা জানা যাচ্ছে এখানে তৃণমূলের যোগাযোগের কোনও জায়গা নেই’বলেও মন্তব্য করেন রাজ্য তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক ও দলীয় মুখপাত্র কুণাল ঘোষ।#

পার্সটুডে/এমএএইচ/আবুসাঈদ/০৬

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ