মে ১৪, ২০২২ ১৯:৪৪ Asia/Dhaka
  • আচমকা ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীর ইস্তফা, বিজেপিকে তীব্র কটাক্ষ করল তৃণমূল

ভারতের বিজেপিশাসিত ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন। আজ (শনিবার) আচমকা ত্রিপুরার রাজ্যপালের কাছে তিনি পদত্যাগপত্র তুলে দেন। এ নিয়ে রাজনৈতিক মহলে ব্যাপক জল্পনা শুরু হয়েছে।

আজ ইস্তফা দেওয়ার পরে বিজেপি নেতা বিপ্লব দেব বলেন ‘দল চাচ্ছে ২০২৩ সালের নির্বাচনের আগে সংগঠনের শক্তি বাড়াতে। দীর্ঘ সময় সরকারে থাকার জন্য সংগঠনের শক্তি বাড়ানোর দরকার। সংগঠন থাকলে তবেই সরকার থাকবে। তাই দল আমাকে সংগঠনের কাজে লাগাতে চাচ্ছে।’

‘এত দিন প্রধানমন্ত্রীর মার্গ-দর্শনে আমি কাজ করে এসেছি। আমি ত্রিপুরায় ন্যায় প্রতিষ্ঠা করার চেষ্টা করেছি। এ বার কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের ইচ্ছাতেই সংগঠনের কাজ করব’ বলেও বিপ্লব দেব মন্তব্য করেন।    

এ প্রসঙ্গে পশ্চিমবঙ্গে ক্ষমতাসীন তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক ও মুখপাত্র কুণাল ঘোষ বিজেপিকে কটাক্ষ করে বলেন, 'এটা হচ্ছে ক্ষমতা দখলের চেষ্টা। এরসঙ্গে মানুষের উন্নয়নের কোনও সম্পর্ক নেই। বাংলার বিজেপি যেমন বাংলার মানুষের কথা ভাবে না, দিল্লির বিজেপির যেমন বাংলার মানুষের কথা ভাবে না, ত্রিপুরার বিজেপিটাও তেমন ত্রিপুরার মানুষের কথা ভাবে না। ওরা শুধু যেনতেন প্রকারে সরকারে থাকার চেষ্টা করে। একটা দল, পুরো একটা টার্মে একটা মুখ্যমন্ত্রীকে নিয়ে চলতে পারে না। বিজেপিকে একটা ভোট দেওয়া মানে একটা গোষ্ঠীবাজ, নিজেদের মধ্যে লড়াই করা, ক্ষমতালোভী দলকে ভোট দেওয়া।' 

তৃণমূল নেতা কুণাল ঘোষ আরও বলেন, ‘গোষ্ঠীবাজির পরিণতি হল বিপ্লব দেবের ইস্তফা। গোষ্ঠীবাজ বিজেপি মানুষের কথা ভাবে না। তাদের শুধু ক্ষমতা চাই। বাংলাতেও এই বার্তাটা খুব স্পষ্ট হয়ে যাচ্ছে যে, এই গোষ্ঠীবাজ বিজেপি শুধু ক্ষমতা দখলের রাজনীতি করে উন্নয়ন নিয়ে ভাবে না।’ সন্ত্রাস করে, মিথ্যাচার করে, ধর্মীয় মেরুকরণ করে এরা ক্ষমতায় থাকার চেষ্টা করে বলেও মন্তব্য করেন পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক ও মুখপাত্র কুণাল ঘোষ।#

পার্সটুডে/এমএএইচ/এমআরএইচ/১৪      

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ