মে ২১, ২০২২ ১৯:৩১ Asia/Dhaka
  • মধ্যপ্রদেশে মুসলিম সন্দেহে মানসিক প্রতিবন্ধী বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্যা

ভারতে বিজেপিশাসিত মধ্যপ্রদেশের নিমাচে ৬৫ বছর বয়সী এক বৃদ্ধ ব্যক্তিকে মুসলিম সন্দেহে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। নিহত ওই ব্যক্তির নাম ভানওয়ারলাল জৈন।

হিন্দি গণমাধ্যম ‘জনসত্তা’ সূত্রে প্রকাশ, ওই ঘটনায় অভিযুক্ত হিসেবে উঠে এসেছে বিজেপি’র সাবেক কাউন্সিলরের স্বামী দীনেশ কুশওয়াহা ও তার সহযোগীর নাম।      

আজ (শনিবার) গণমাধ্যমে প্রকাশ্যে আসা বিষয়টি গত ১৯ মে’র রাতের। ঘটনার সাথে সম্পর্কিত ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পরে শনিবার বিষয়টি নিয়ে তীব্র চাঞ্চল্য ও শোরগোল সৃষ্টি হয়েছে। ভিডিও ক্লিপে সাদা জামা পরা একজন বৃদ্ধ ব্যক্তিকে দেখা গেছে, যেখানে তাকে একজন ব্যক্তি তার নাম এবং তিনি কোথা থেকে এসেছেন ইত্যাদি জিজ্ঞাসা করছেন। এ সময়ে তিনি সঠিকভাবে নিজের পরিচয় দিতে না পারায় তাকে বার বার চড় মারা হয় এবং ‘আধার কার্ড’ দেখাতে বলা হয়। জিজ্ঞেস করা হয়, ‘তোর নাম কী মুহাম্মাদ? আধার কার্ড বের কর।’ 

এ সংক্রান্ত ভিডিয়ো ক্লিপ কয়েকটি টিভি নিউজ চ্যানেলেও দেখানো হয়েছে। অতিরিক্ত মার খেয়ে বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গেছে। বলা হচ্ছে, ভিডিয়ো ক্লিপটিতে যিনি মারধর করছেন তিনি হলেন সাবেক বিজেপি কাউন্সিলরের স্বামী দীনেশ কুশওয়াহা। তার সঙ্গীর বিরুদ্ধেও মারধরের অভিযোগ রয়েছে। 

গণমাধ্যম সূত্রে প্রকাশ, পুলিশ পরে নিহতের লাশ উদ্ধার করে। তার কিছু ছবি  সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করা হয়েছিল, এবং এরপরে তার লাশ শনাক্ত করা যায়। প্রতিবেদনে মানসা থানার কর্মকর্তা কেএল ডাঙ্গিকে উদ্ধৃত করে বলা হয়েছে, বৃহস্পতিবার আমরা মৃতদেহটি পেয়েছি। সোশ্যাল মিডিয়ায় তার ছবি প্রকাশের পর তার পরিবারের সদস্যরা (যারা রতলামের বাসিন্দা) তাকে ভানওয়ারলাল জৈন হিসেবে শনাক্ত করেছে। 

পরিবারের সদস্যরা বলছেন, ভানওয়ারলাল শারীরিকভাবে প্রতিবন্ধী এবং তার স্মৃতিশক্তির সমস্যা ছিল। পুলিশ জানায়, অভিযুক্তদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। ঘটনাস্থল থেকে আশেপাশের সিসিটিভি ফুটেজও খতিয়ে দেখা হচ্ছে যাতে ওই ঘটনায় জড়িত অন্যদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা যায়। ওই ঘটনায় অভিযুক্ত ব্যক্তিকে শনাক্ত করা হয়েছে এবং তার বিরুদ্ধে ৩০২ এবং ৩০৪ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। নিহতের স্বজনরা জানান, তিনি প্রতিবন্ধী ছিলেন।  

রাজ্যের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নরোত্তম মিশ্র জানিয়েছেন, এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ভবিষ্যতে যাতে এমনটি না হয় সেদিকে খেয়াল রাখা হবে।

অন্যদিকে, রাজ্য কংগ্রেস সভাপতি ও সাবেক মুখ্যমন্ত্রী কমলনাথ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এক বার্তায় বলেছেন, মধ্যপ্রদেশে কী হচ্ছে? কমল নাথ বলেন, সিওনি, গুনা, মহু, মন্ডলায় আদিবাসীদের পিটিয়ে মারার ঘটনা এবং এখন রাজ্যের নিমুচ জেলার মনাসায় এক বৃদ্ধ লোককে পিটিয়ে মারার ঘটনা, যার নাম ভানওয়ারলাল জৈন বলা হচ্ছে। কমলনাথ বলেন, সিওনির মতোই বিজেপির সঙ্গে অভিযুক্তের যোগসূত্র প্রকাশ্যে আসছে। রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা কোথায়? আর কতদিন এ ভাবে মানুষকে হত্যা করতে থাকবে? ’

ওই ঘটনায় কংগ্রেস নেতা জিতু পাটোয়ারী বলেছেন, মুসলিম সন্দেহে বিজেপির লোকেরা যে কাউকে হত্যা করবে। ওই  বিষয়টির তদন্ত হওয়া উচিত এবং অনেকের বিরুদ্ধে মামলা করা উচিত, কারণ এই ভিডিওতে অনেক লোককে দেখা যাচ্ছে।#

পার্সটুডে/এমএএইচ/আবুসাঈদ/২১

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ