জুন ২৮, ২০২২ ১৯:১৯ Asia/Dhaka

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল সভানেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেন্দ্রীয় সরকারকে টার্গেট করে বলেছেন, ‘বিজেপি একদিন ছবিতে পরিণত হবে, অর্থাৎ সাইনবোর্ডে পরিণত হয়ে যাবে, মানুষের কাজে লাগবে না।’ তিনি আজ (মঙ্গলবার) পশ্চিম বর্ধমান জেলায় দলীয় এক সমাবেশে বক্তব্য রাখার সময়ে ওই মন্তব্য করেন।

মমতা বলেন, ‘কেন্দ্রীয় সরকার গ্রামীণ রাস্তার কাজ বন্ধ করে দিয়েছে। ১০০ দিনের প্রকল্পের কাজ, ‘বাংলার বাড়ি’, গ্রামীণ রাস্তা সব কেন্দ্রীয় সরকার বন্ধ করে দিয়েছে। আমরা যদি বলি, তোমাদের এখান থেকে (রাজ্য) টাকা তুলে নিয়ে যাওয়া বন্ধ, তাহলে তুমি কী করবে? তুমি (কেন্দ্রীয় সরকার) তো ‘জিএসটি’র নামে সব টাকা  তুলে নিয়ে যাচ্ছ। এ গুলো তোমার টাকা নয়, দিল্লির টাকা নয়। এগুলো আমাদের টাকা। আমাদের টাকা তুলে নিয়ে গিয়ে নিজেরা করে খাচ্ছ।’ 

মমতা বিজেপিকে টার্গেট করে বলেন, ‘কাণ্ডারী! বল ডুবিছে মানুষ সন্তান মোর মা’র’, আমরা সবাই একসাথে থাকি। একসাথে বাঁচি। আমাদের এখানে কোনও দাঙ্গা করতে দেবো না। বিজেপির কোনও কাজ নেই, অপদার্থ! কোটি কোটি টাকা খরচ করে  মহারাষ্ট্রে সরকার ভাঙছে। ক’টা মিডিয়া প্রশ্ন তুলেছে? এত কোটি কোটি টাকা খরচ  করে মহারাষ্ট্রের সব এমএলএ (বিধায়ক) গুলোকে বিক্রি করেছে, নিয়ে গেছে এবং মহারাষ্ট্র সরকারের জনাদেশকে ভেঙে দিচ্ছে! এর নাম গণতন্ত্র? ক’টা মিডিয়া প্রশ্ন  তুলেছে? বাংলা সব থেকে ভালো তাই বাংলাকে আপনারা খারাপ দেখান। বাংলায় কেউ কাটমানি খেলে আমরা অ্যাকশন নিই। কিন্তু সেটা হাজারে একটাও হবে না। যখন পিএম-কেয়ারের নামে (প্রাইম মিনিস্টার্স সিটিজেন অ্যাসিস্ট্যান্স অ্যান্ড রিলিফ ইন এমারজেন্সি সিচ্যুয়েশন ফান্ড)- লক্ষ-লক্ষ, কোটি-কোটি টাকার হিসাব কেউ পায় না, অডিটও হয় না, হিসাবের মধ্যেও থাকে না, তখন তো প্রশ্ন করা হয় না। তিন হাজার কোটি টাকা দিয়ে নতুন করে বাসভবন তৈরি হচ্ছে। কেউ কী প্রশ্ন করেছেন এ টাকা কোথা থেকে আসছে? একবারও কী প্রশ্ন করা হয় ১১০০ কোটি টাকা দিয়ে বিজেপি পার্টি অফিস বানায়, তখন কোনও প্রশ্ন করা হয় না’ বলেও মন্তব্য করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।#

পার্সটুডে/এমএএইচ/এআর/২৮

ট্যাগ