জুন ২৯, ২০২২ ১৯:২০ Asia/Dhaka
  • বিহার: ওয়াইসির ৫ বিধায়কের মধ্যে ৪জন ‘আরজেডি’তে যোগদান

ভারতের বিহারে ব্যারিস্টার আসাদুদ্দিন ওয়াইসি এমপি’র ‘মজলিশ-ই-ইত্তেহাদুল মুসলেমিন’ বা ‘মিম’-এর ৪ বিধায়ক রাজ্যের প্রধান বিরোধী দল আরজেডি’তে যোগ দিয়েছেন। এরফলে বিহারে সবচেয়ে বড় দল হয়ে উঠেছে আরজেডি।

আজ (বুধবার) ‘মিম’ বিধায়করা আরজেডিতে যোগ দেওয়ায় বড় ধাক্কা খেয়েছে দলটি। আরজেডি নেতা ও বিধানসভার বিরোধী দলনেতা তেজস্বী যাদব বলেছেন, বিহার বিধানসভা নির্বাচনে আরজেডি একক বৃহত্তম দল হিসাবে ম্যান্ডেট পেয়েছিল, কিন্তু পরে বিজেপি, ‘বিকাশশীল ইনসান পার্টি’(ভিআইপি) ভেঙে তিনজন বিধায়ককে নিজের মধ্যে একীভূত করে একটি বড় দলে পরিণত হয়েছিল।  

বিহারের আমৌর  আসন থেকে আখতারুল ইমান, বায়সি থেকে সৈয়দ রুকনুদ্দিন আহমেদ, জোকিহাট থেকে শাহনওয়াজ আলম, কোচাধামন থেকে মুহাম্মদ ইজহার আসফি, বাহাদুরগঞ্জ থেকে মুহাম্মদ আনজার নইমি ‘মিম’-এর টিকিটে নির্বাচিত হয়ে বিধানসভায় পৌঁছেছিলেন। একমাত্র আখতারুল ইমান বর্তমানে ‘মিম’-এর সাথে রয়েছেন।

গত বিধানসভা নির্বাচনে আরজেডি একক বৃহত্তম দল হিসেবে উঠে এসেছিল। আরজেডির ৭৫ জন বিধায়ক নির্বাচিত হয়েছিলেন এবং বিজেপির ৭৪ জন। এই নির্বাচনে, ‘ভিআইপি’র টিকিটে চারজন প্রার্থী বিধায়ক নির্বাচিত হয়েছিলেন, যার মধ্যে একজন মারা গেছেন। এমন পরিস্থিতিতে বিজেপিতে যোগ দেন তিন বিধায়ক। এর ফলে বিজেপির বিধায়ক সংখ্যা দাঁড়িয়েছিল ৭৭।    

অন্যদিকে, ‘আরজেডি’ বিধায়কদের পরিসংখ্যানে প্রকাশ, ২০২০ সালে তাদের ৭৫ জন বিধায়ক জিতেছিলেন এবং ২০২২ সালে অনুষ্ঠিত উপনির্বাচনে ‘আরজেডি’ একটি আসন পেয়েছে। এরফলে দলটির বিধায়ক সংখ্যা ৭৬ জনে পৌঁছয়। এবার ওয়াইসির দলের (মিম) চারজন বিধায়ক আরজেডিতে যোগ দেওয়ায় তাদের বিধায়ক সংখ্যা দাঁড়াল ৮০ তে। এবং এরফলে রাজ্যের বৃহত্তম দলে পরিণত হয়েছে আরজেডি।

গত বিধানসভা নির্বাচনে বিহারের সীমাঞ্চল এলাকায় সাফল্য পায় ‘মিম’। সীমাঞ্চল এলাকায় ২৪টি আসন রয়েছে। ওই আসনগুলোর বেশিরভাগই মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ যেখানে কংগ্রেস-আরজেডি সমন্বিত মহাজোট জিতবে বলে অনেকে আশা করেছিলেন। কিন্তু জনগণ ‘মিম’-এর পক্ষে রায় দিয়েছে। কোথাও কোথাও ‘মিম’-এর জয়ের জেরে মহাজোট ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এমন অনেক আসনও ছিল যেখানে মহাজোট এবং ‘মিম’-এর মধ্যে ভোটের পার্থক্য ছিল খুবই কম।   

আরজেডি নেতা ও বিহার বিধানসভার বিরোধীদলনেতা তেজস্বী যাদব আজ বলেন, ‘বিহারে সরকার গঠনের জন্য ১২২ জন বিধায়কের প্রয়োজন। মহাজোটের ১১৬ জন বিধায়ক রয়েছে।৬ জন বিধায়ক কম, কিন্তু আমরা ক্ষমতার ক্ষুধার্ত নই। বিহারে কাঁপছে এনডিএ সরকার। বিজেপি-জেডিইউ নেতারা নিজেদের মধ্যে মারামারি করছেন। বিহারে তিন নম্বরে থাকা দলটির মুখ্যমন্ত্রী রয়েছেন। এই কারণেই বিজেপি নীতীশ কুমারকে চাপ দিচ্ছে।’ তেজস্বী যাদব আজ আরও বলেন, আমরা চাই ধর্মনিরপেক্ষ বিভিন্ন দল ২০২৪ সালের নির্বাচনে ঐক্যবদ্ধভাবে লড়াই করুক। প্রসঙ্গত, বিহারে বর্তমানে জেডিইউ-বিজেপি জোট সরকার ক্ষমতায় রয়েছে। কিন্তু তাদের মধ্যে সম্প্রতি বিভিন্ন ইস্যুতে কার্যত ঠান্ডা লড়াই চলছে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। রাজ্যটিতে এবার পরিবর্তিত রাজনৈতিক পরিস্থিতির দিকে নজর রাখছেন রাজনৈতিক মহল। #   

 

পার্সটুডে/এমএএইচ/এআর/২৮

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

 

ট্যাগ