জুন ২৯, ২০২২ ১৯:২৬ Asia/Dhaka
  • নূপুর শর্মাকে গ্রেফতার করে আইনি শাস্তির দাবি জানালেন ওয়াইসি

ভারতে বিজেপি থেকে সাসপেন্ড হওয়া নূপুর শর্মার সমর্থনে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করা কানহাইয়ালাল তেলিকে (৪০) হত্যার ঘটনায় ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। রাজস্থানের উদয়পুরে গতকাল (মঙ্গলবার) দুপুর আড়াইটার দিকে তাকে দু’জন মুসলিম যুবক ধারালো অস্ত্রের আঘাতে হত্যা করে।

মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) সম্পর্কে সম্প্রতি বিজেপির সাবেক মুখপাত্র নূপুর শর্মার আপত্তিকর মন্তব্যের প্রতিবাদে দেশজুড়ে মুসলিমরা প্রতিবাদে সোচ্চার হয়েছে। একইসঙ্গে ওই ইস্যুতে বিশ্বজুড়ে ব্যাপক তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বিজেপি তাকে দল থেকে সাসপেন্ড করেছে। কিন্তু মুসলিমদের দাবি, এটা কোনও শাস্তিই  নয়, তাকে আইনি তৎপরতার মধ্য দিয়ে গ্রেফতার করতে হবে।          

এদিকে, মূলধারার বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের পাশাপাশি মুসলিমদের বিভিন্ন সামাজিক ও ধর্মীয় সংগঠন কানহাইয়ালাল তেলি হত্যাকাণ্ডের নিন্দা জানিয়ে অপরাধীদের শাস্তি দাবি করেছেন।     

আজ (বুধবার) ওই ইস্যুতে মজলিশ-ই-ইত্তেহাদুল মুসলেমিন (মিম) প্রধান ব্যারিস্টার আসাদউদ্দিন ওয়াইসি বলেছেন, ‘নূপুর শর্মাকে বিজেপি থেকে সাসপেন্ড করাই যথেষ্ট নয়, তাকে গ্রেফতার করা উচিত। তিনি বলেন, আইন কারও হাতে তুলে নেওয়ার  অধিকার নেই। দেশের সংবিধান অনুযায়ী শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ হওয়া উচিত। অবশ্যই  আমাদের দাবি হল, নূপুর শর্মাকে ভারতীয় আইন অনুযায়ী তাকে গ্রেফতার করা উচিত। দোষী সাব্যস্ত হলে আদালত তাকে সাজা দিক। এবং নূপুর শর্মাকে গ্রেফতার করা জরুরি। কারণ, তাকে যে সাসপেন্ড করা হয়েছে, সেই সাসপেনশন কোনও শাস্তি নয়। আইনি তৎপরতা প্রয়োজন।’   

আসাদউদ্দিন ওয়াইসি বলেন, ধর্মান্ধতা শুধু দেশের একটি সমাজে নয়, সব সমাজে বাড়ছে। এবং যেভাবে হত্যা করা হয়েছিল রাকবর খান, পেহলু খান, আখলাককে হত্যা করা হয়েছিল, বাঙালি এক মুসলিম শ্রমিককে হত্যা করে ভিডিও করা হয়েছিল, তাকে পুড়িয়ে মারা হয়েছিল, এ সবও সন্ত্রাসী ঘটনা বলে মন্তব্য করেন ‘মিম’ প্রধান ব্যারিস্টার আসাদউদ্দিন ওয়াইসি।    

 

পার্সটুডে/এমএএইচ/বাবুল আখতার/২৯

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

 

ট্যাগ