জুলাই ০৩, ২০২২ ১৯:২৮ Asia/Dhaka
  • তাজমহলের পিছনে হিন্দুত্ববাদী নেতার জন্মদিনের পার্টি উদযাপন, স্মৃতিসৌধের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন

বিশ্বখ্যাত স্মৃতিসৌধ ভারতের ঐতিহাসিক তাজমহলের পিছনে জন্মদিনের পার্টি উদযাপন করলেন হিন্দুত্ববাদী নেতা নীতেশ কুশওয়াহা। ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

শুক্রবার রাতে তাজমহলের পিছনে মাহতাববাগের অত্যন্ত সুরক্ষিত এলাকায় রাষ্ট্রীয়  বজরং দলের সাবেক মহানগর সভাপতি নীতেশ কুশওয়াহা তার জন্মদিন পালন করেন। জন্মদিনের পার্টিতে ২১টি কেক গাড়ির বনেটে রেখে তলোয়ার দিয়ে কাটা হয়। সেখানে উপস্থিত যুবকরা এ সময়ে উৎসাহে স্লোগানও দেয় এবং হুল্লোড়ে মেটে ওঠে। ওই উদযাপনের ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর এতমাউদ্দৌলা থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বলেছেন, নাগলা দেবজিতের বাসিন্দা নীতেশ কুশওয়াহার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওতে দেখা গেছে, শুক্রবার রাতে মহতাববাগের কাছে অবস্থিত এগারো সিঁড়িতে পৌঁছান তিনি। তার সঙ্গে এ সময়ে সাত/আটজন যুবককেও দেখা যায়। ভিডিওতে একটি গাড়ির বনেটে ২১টি কেক রাখা দেখা যাচ্ছে। এবং নীতেশ কুশওয়াহাকে তলোয়ার দিয়ে কেক  কাটতে দেখা যাচ্ছে। এ সময়ে তার সঙ্গীরা স্লোগানও দেয়। তলোয়ার দোলানোও হয়। ভাইরাল ভিডিওটি আমলে নিয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ডিভিশন ইনচার্জ মায়াঙ্ক চৌধুরী একটি মামলা দায়ের করেছেন।  

অন্যদিকে, হিন্দুত্ববাদী নেতা নীতেশ কুশওয়াহা বলেছেন, তিনি রাষ্ট্রীয় বজরং দলের সাবেক মহানগর সভাপতি। কর্মীরা জন্মদিনে বাড়িতে এসেছিল। তারা কেক কাটতে বলেছিল। তিনি তাদের মেহতাববাগে নিয়ে যান। এ সময় একজন কর্মী একটি তলোয়ার তুলে দেন, কেকও এসে পড়েছিল। সেখানে জন্মদিনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। শুক্রবার রাতে কর্মীরা মহতাবের পাশে যান। গাড়ির বনেটে রেখে কেকও  কাটা হয়। এর ভিডিও ভাইরাল হয়, তারপরে মামলা হয়। মহতাববাগে পুলিশ বাহিনী থাকাকালীন ওই ঘটনা ঘটে। এখানে পুলিশ টহলদারিতেও থাকে। কিন্তু এ সবের মধ্যেই সেখানে ওই হিন্দুত্ববাদী নেতার জন্মদিন উদযাপন করা হয় এবং তলোয়ার দোলানো হলেও এ সংক্রান্ত ভিডিও প্রকাশ্যে আসার পরে বিষয়টি জানতে পারে পুলিশ। 

মহতাববাগের গেটে সার্বক্ষণিক মোতায়েন থাকে এতমাউদ্দৌলা থানা পুলিশ। তাজমহলের নিরাপত্তার জন্য এখানে একটি ‘পিএসি’ ক্যাম্পও রয়েছে। নিরাপত্তা বাহিনীর জওয়ানরা ২৪ ঘণ্টা তাজমহলের নিরাপত্তায় নিয়োজিত থাকে। ভাইরাল ভিডিও সম্পর্কে পুলিশের এসপি সিটি বিকাশ কুমার বিষয়টি জেনে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন। ওই ঘটনায় বিশ্বখ্যাত স্মৃতিসৌধের কঠোর নিরাপত্তা সম্পর্কে প্রশ্ন উঠেছে। #      

পার্সটুডে/এমএএইচ/ এমবিএ /৩

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।