আগস্ট ১৯, ২০২২ ১৯:১৪ Asia/Dhaka
  • ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে জঙ্গিদের সাথে সংঘর্ষে বিএসএফের ১ জওয়ান নিহত

উত্তর ত্রিপুরার ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে এনএলএফটি (ন্যাশনাল লিবারেশন ফ্রন্ট অফ ত্রিপুরা) জঙ্গিদের সাথে একটি ভয়াবহ সংঘর্ষে সীমান্ত নিরাপত্তা বাহিনীর (বিএসএফ) এক জওয়ান নিহত হয়েছেন। আজ (শুক্রবার) কর্মকর্তারা এ তথ্য জানিয়েছেন।

নিহত জওয়ানকে বিএসএফের ১৪৫ তম ব্যাটালিয়নের গিরজেশ কুমার হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছে। সংঘর্ষে আহত হওয়ার পরে তাকে চিকিত্সার জন্য আগরতলায় নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। সেখানে তিনি মারা যান।

বিএসএফ সূত্রে প্রকাশ,  ১৪৫ ব্যাটেলিয়ানের বিএসএফ জওয়ানদের টহল দল  এনএলএফটি (বিএম) এর সন্দেহভাজন জঙ্গিদের নির্বিচারে গুলিবর্ষণের শিকার হয়েছে। এ সময়ে বিএসএফ জওয়ানরা পাল্টা গুলিবর্ষণের মধ্য দিয়ে জবাব দিলে হামলাকারীরা ঘন জঙ্গলের আড়ালে পালিয়ে যায়। ওই সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হন গিরজেশ কুমার নামে এক বিএসএফ জওয়ান। আহত জওয়ানকে দ্রুত হেলিকপ্টারে করে আগরতলায় নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে গুরুতর আঘাতের কারণে তার মৃত্যু হয়।  

আইজি বিএসএফ ত্রিপুরা তার টিমসহ ঘটনাস্থলে পৌঁছে বিজিবির সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সমন্বয়ে হামলার জন্য দায়ী জঙ্গিদের ধরতে অভিযানের বিষয়ে খোঁজখবর নেন। কর্মকর্তাদের মতে, বিএসএফের একটি দল কাঞ্চনপুর মহকুমার সীমা-২ ফাঁড়ি এলাকায় অভিযানে যাওয়ার সময় বাংলাদেশের দিক থেকে গুলিবর্ষণ শুরু হয়।  

পুলিশ সুপার কিরণ কুমার বলেন,  বাংলাদেশের রাঙামাটি পার্বত্য জেলার জুপুই এলাকা থেকে একদল ভারী অস্ত্রধারী জঙ্গি বিএসএফ জওয়ানদের ওপর গুলি চালায়। জওয়ানরা পাল্টা জবাব দিলে উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। তিনি বলেন,  ওই সংঘর্ষের সময় একজন বিএসএফ জওয়ান চারটি গুলিবিদ্ধ হন।

ঘটনাস্থলে পৌঁছে পুলিশ সুপার কিরণ কুমার বলেন, বিএসএফের সমন্বিত পাল্টা জবাবের কারণে জঙ্গিরা তেমন ক্ষতি করতে পারেনি। তিনি বলেন,  ঘটনার পর ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে। এলাকায় তল্লাশি অভিযানও জোরদার করা হয়েছে। আমরা এ বিষয়ে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সঙ্গে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব বলেও তিনি মন্তব্য করেন।#

পার্সটুডে/এমএএইচ/আবুসাঈদ/১৯

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ