সেপ্টেম্বর ২২, ২০২২ ২১:১৮ Asia/Dhaka
  • পশ্চিমবঙ্গে রাজ্য সরকারকে কটাক্ষ করতে ঘুগনি-মুড়ি বিক্রি করলেন বিজেপি বিধায়করা

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও রাজ্য সরকারকে কটাক্ষ করতে আজ বিধানসভার বাইরে ঘুগনি-মুড়ি বিক্রি করেছেন বিজেপি বিধায়করা।

আজ (বৃহস্পতিবার) বিজেপি বিধায়করা বিধানসভার গেটের বাইরে ঘুগনি, চা, ঝালমুড়ির দোকান দিয়ে পথচলতি মানুষজনকে ডেকে খাওয়ান। বিজেপি বিধায়করা এ সময়ে কটাক্ষ করে বলেন, প্রতিশ্রুতি দেওয়া সত্ত্বেও রাজ্যে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে পারেননি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেজন্য তার দেওয়া পরামর্শেই তারা পথে ঘুগনি বিক্রি করছেন।  

বিজেপি বিধায়ক অগ্নিমিত্রা পাল বলেন, ‘অনেক কষ্ট করে মা-বাবা আমাদের পড়াশোনা শেখান, যাতে আমরা বড় হয়ে তাদের মুখ উজ্জ্বল করতে পারি। প্রতিষ্ঠিত হতে পারি। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী যুব সমাজকে কর্মসংস্থানের দিশা দেখাতে পারেননি। সেজন্য আমরা ঘুগনি-মুড়ির দোকান দিয়েছি।’  

বিধায়ক বঙ্কিম ঘোষ বলেন, ‘বৃহস্পতিবার থেকে মুখ্যমন্ত্রী পুজোর উদ্বোধন শুরু করে দিয়েছেন। সেজন্য আমরা তার নির্দেশ মেনে ঘুগনি-মুড়ি বিক্রি শুরু করলাম। কারণ, মুখ্যমন্ত্রী বিকল্প কর্মসংস্থানের বন্দোবস্ত করতে না পেরে অন্য পরামর্শ দিয়েছেন। আমরা তার বলে দেওয়া পথই ধরলাম।’

অন্যদিকে, বিজেপিকে কটাক্ষ করে রাজ্য তৃণমূলের মুখপাত্র ও বিধায়ক তাপস রায় বলেন,  ‘সারা দেশে,  বিশেষকরে বিজেপিশাসিত রাজ্যে কত কর্মসংস্থান, কত শিল্পের ছড়াছড়ি! এর পাশাপাশি আরও একটা কথা বলব, বিক্রেতা, তিনি যা-ই বিক্রি করুন না কেন, প্রতিটি পেশার একটা সম্মান রয়েছে। এসব করে ওরা ঝালমুড়ি, চা বিক্রির পেশার সঙ্গে যুক্ত বিক্রেতাদের অপমান করছেন। ভারতের প্রধানমন্ত্রীও একসময়ে চা বিক্রেতা ছিলেন।’

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি খড়্গপুরের কর্মসূচিতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ব্যবসার পরামর্শ দিয়ে বলেছিলেন,  ‘এক হাজার টাকা জোগাড় করে একটা কেটলি কিনুন আর মাটির ভাঁড় নিন। সঙ্গে কিছু বিস্কুট নিন। আস্তে আস্তে বাড়বে।’  তিনি আরও বলেন, ‘প্রথম সপ্তাহে বিস্কুট নিলেন। তার পরের সপ্তাহে মাকে বললেন,  একটু ঘুগনি তৈরি করে দাও। তার পরের সপ্তাহে একটু তেলেভাজা করলেন। একটা টুল আর একটা টেবিল নিয়ে বসলেন। এই তো পুজো আসছে সামনে। দেখবেন লোককে দিয়ে কুলোতে পারবেন না! আজকাল এত বিক্রি আছে!’  

মুখ্যমন্ত্রীর এ ধরণের পরামর্শের পরেই বিরোধী বিজেপি বিধায়করা কর্মসংস্থান ইস্যুতে আজ তার সমালোচনা ও কটাক্ষ করতে মাঠে নামেন। রাজ্য বিধানসভার গেটের  বাইরে আজ ঘুগনি-মুড়ি বিক্রি করে অভিনব উপায় বেছে নেন বিজেপি বিধায়করা।  #   

পার্সটুডে/এমএএইচ/ বাবুল আখতার/২২

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

 

ট্যাগ