ডিসেম্বর ০৩, ২০১৯ ১৯:৪২ Asia/Dhaka
  • জম্মু-কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের পর ১৯ বেসামরিক ব্যক্তি নিহত

জম্মু-কাশ্মীর থেকে সেরাজ্যের বাসিন্দাদের জন্য বিশেষ সুবিধা সম্বলিত ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের পর থেকে বিভিন্ন সন্ত্রাসী ঘটনায় এ পর্যন্ত ১৯ বেসামরিক ব্যক্তি নিহত হয়েছে। আজ (মঙ্গলবার) কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে ওই তথ্য জানানো হয়েছে।

ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার গত ৫ আগস্ট কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার করে নেয়। এরপরে সেখানে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয় এবং রাজনৈতিক নেতৃত্বসহ বহু মানুষকে গৃহবন্দি অথবা আটক করা হয়। সেখানকার জনজীবন অবরুদ্ধ হয়ে পড়লে বিভিন্ন মহল থেকে উদ্বেগ প্রকাশ করায় কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে বার বার পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে বলে জানানো হয়।

কিন্তু লোকসভায় পেশ করা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে- গত ৫ আগস্ট থেকে রাজ্যে বিভিন্ন সন্ত্রাসী ঘটনায় অ-কাশ্মীরি শ্রমিকসহ এ পর্যন্ত ১৯ জন বেসামরিক ব্যক্তি নিহত হয়েছে। মৃতদের জম্মু-কাশ্মীর সরকার এক লাখ টাকা এবং কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে পাঁচ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হয়েছে।

সম্প্রতি সাবেক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী যশবন্ত সিনহার নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল চারদিনের জন্য কাশ্মীর সফর করেছিল। প্রতিনিধি দলটি জানায় ৩৭০ ধারা অপসারণের পরে, উপত্যকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক নয়।

ফাইল ফটো

এদিকে, আজ জম্মু-কাশ্মীরের পুঞ্চ জেলায় শাহপুর সেক্টরে পাকিস্তানি বাহিনী গোলাগুলি বর্ষণ করলে এক নারীসহ দুই বেসামরিক ব্যক্তি নিহত ও  কমপক্ষে সাত জন আহত হয়েছে।

আজ (মঙ্গলবার) দুপুর আড়াইটার দিকে পাকিস্তানি বাহিনী আচমকা গুলিবর্ষণ শুরু করে। পাকিস্তানি সৈন্যরা প্রতিবারের মতো এবারও প্রথমে হালকা অস্ত্র ব্যবহার করে এবং তারপরে তারা আবাসিক এলাকায় মর্টার হামলা চালায়। এরফলে ওই হতাহতের ঘটনা ঘটে। আহতদের দ্রুত পুঞ্চের শুকদেব সিং হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আজ পাকবাহিনীর গুলিবর্ষণের পাল্টা ভারতীয় বাহিনী যথাযথ ও কার্যকরভাবে জবাব দিয়েছে।#

পার্সটুডে/এমএএইচ/এআর/৩

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ

মন্তব্য