মে ২৯, ২০২০ ২১:০০ Asia/Dhaka
  • আপনারা কী ‘করোনা এক্সপ্রেস’ চালাচ্ছেন? ফের কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনা করলেন মমতা

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় করোনা ইস্যুতে কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনা করে সামাজিক দূরত্ব বিধি না মানার অভিযোগ করেছেন। তিনি আজ (শুক্রবার) রাজ্য সচিবালয় নবান্নে এক সংবাদ সম্মেলনে এ সংক্রান্ত মন্তব্য করেন।

বিভিন্ন রাজ্য থেকে ট্রেনে করে একসঙ্গে অনেক শ্রমিককে পশ্চিমবঙ্গে ফেরত পাঠানোর সমালোচনা করে মমতা বলেন, ‘বাইরের ভাইবোনেরা আসছেন, আমি খুশি। ২৩৫ টা ট্রেনের ভাড়া রাজ্য সরকার দিচ্ছে। কিন্তু আপনারা আমাকে বলুন তো একটা ট্রেনে যখন শ্রমিক ভাইবোনেরা আসছেন, একটা সিটে (আসনে) কেন ৩/৪ জন আসবেন? একটা ট্রেনে যা ধারণ ক্ষমতা, গাদাগাদা লোক একসঙ্গে ঢুকিয়ে, ৪৮ ঘণ্টা ধরে যদি একগাদা লোক এক জায়গায় বদ্ধ ঘরের মধ্যে থাকে তাহলে কী হবে? তাদের মধ্যে করোনা কীভাবে বাড়ছে?’

তিনি বলেন, ‘ওরা আসছে কোথা থেকে? হটস্পট থেকে। একটু চিকিৎসাও পায়নি। মহারাষ্ট্র, চেন্নাই, গুজরাট, মধ্য প্রদেশ, দিল্লি হটস্পট এলাকা। এসব জায়গা থেকে যখন ট্রেনগুলো আসছে তখন কী হবে? দরকার হলে রেল  মন্ত্রণালয় অতিরিক্ত কিছু ট্রেন দিন না। আপনাদেরই তো প্রথম সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা উচিত। কিন্তু আপনারা নিজেরা তা করছেন না! লকডাউন ঘোষণা করে দিলেন। একদিনে গাদাগাদা ট্রেন ঢুকিয়ে দিলেন। যা ধারণ ক্ষমতা তার দ্বিগুণেরও বেশি মানুষজন ঢুকিয়ে দিচ্ছেন। লোকগুলোকে না দিচ্ছেন একটু জল, না দিচ্ছেন একটু খাবার। এসব লোকজন না খেতে পেয়ে ট্রেনেও অনেক সময় মারা যাচ্ছেন! মা মৃত অবস্থায় স্টেশনে পড়ে আছে, বাচ্চা ঘুরে বেড়াচ্ছে!’

কেন্দ্রীয় রেল মন্ত্রণালয়ের উদ্দেশ্যে মমতা আরও বলেন, ‘আপনারা কেন সামাজিক দূরত্ব বিধি মানছেন না? তার মানে কী, আপনারা ‘শ্রমিক এক্সপ্রেস’-এর নামে আপনারা কী ‘করোনা এক্সপ্রেস’ করতে চান? ‘করোনা এক্সপ্রেস’ চালাচ্ছেন?’ 

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এরআগেও বিভিন্ন রাজ্য থেকে একসঙ্গে প্রচুর শ্রমিককে নিয়ে পশ্চিমবঙ্গে ট্রেন আসার সমালোচনা করেছেন। আজও সেই ধারাবাহিকতা বজায় রেখে রেল মন্ত্রণালয় ও কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনায় সোচ্চার হয়েছেন। #   

পার্সটুডে/এমএএইচ/এমবিএ/২৯

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

    

 

 

 

ট্যাগ

মন্তব্য