জুলাই ০৫, ২০২০ ২০:৫৯ Asia/Dhaka
  • অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ
    অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ

ভারতের কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণকে ‘কালনাগিনী’ বলে কটাক্ষ করলেন পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূল নেতা কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় এমপি। একইসঙ্গে তিনি রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষের তীব্র সমালোচনা করেছেন।

গতকাল (শনিবার) পেট্রোপণ্যের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে বাঁকুড়ার মাচানতলায় কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপি’র রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ কত দুধ খেয়েছেন তা লড়াইয়ের ময়দানে পরখ করে নেবেন বলে চ্যালেঞ্জ জানান।

কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, জিডিপি গ্রোথ এক শতাংশের নীচে নেমে গেছে! ধন্য তুমি নরেন্দ্র মোদি, আর ধন্য তোমার অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ! ‘কালনাগিনী’র ছোবল খেয়ে যেমন মানুষ মারা যায়, ‘নির্মলা সীতারমণের ছোবল’ খেয়ে ভারতবর্ষের মানুষ প্রতিদিন একটা একটা করে মরছে।   এমন একজন অর্থমন্ত্রী! প্রচুর অহংকার আছে, সেই অহংকারের কথা ভাবা যাবে না। গোটা ভারতের অর্থনৈতিক অবস্থা মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দিয়ে লজ্জা করছে না এখনও গদিতে বসে আছিস! পদত্যাগ করে অন্ধ্রপ্রদেশে ঘরে চলে যাওয়া উচিত নির্মলা সীতারমণের। গোটা পৃথিবীর সর্বনিকৃষ্ট কেউ যদি অর্থমন্ত্রী থাকে তার নাম নির্মলা সীতারমণ।’

বক্তব্য রাখেন কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়

‘ভারতবর্ষ এত বাজে অর্থমন্ত্রী জীবনে কখনও দেখেনি’ বলেও তৃণমূল এমপি ও বিশিষ্ট আইনজীবী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় মন্তব্য করেন।

বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ

এদিকে, পাল্টা জবাবে বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ এমপি বলেছেন, ‘তৃণমূলের দুর্নীতি শীর্ষ থেকে নীচে ছড়িয়ে পড়েছে। তারা অভ্যন্তরীণ কোন্দলে জড়িত এবং তাদের অনেকেই ক্ষমতাসীন দলের পরিস্থিতি থেকে মনোযোগ সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছেন। আমরা এ জাতীয় মন্তব্যে তেমন গুরুত্ব দিই না, তারা হতাশায় এ জাতীয় অবাস্তব কথা বলছে।'

বিজেপি’র কেন্দ্রীয় নেতা ও দলীয় মুখপাত্র সম্বিত পাত্র অবশ্য বলেছেন, তৃণমূল এমপি অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণকে কালীনাগিন বলে অভিহিত করেছেন যা নিন্দনীয়। এই বিবৃতি সেই রাজ্যে দেওয়া হয়েছে যেখানে প্রতিটি ঘরেই দেবী কালী মা পূজিত হয়।’ এমপি কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্য কেবল বর্ণবাদী নয়, নারী বিরোধীও বলেও সম্বিত পাত্র মন্তব্য করেছেন।#

পার্সটুডে/এমএএইচ/এআর/৫

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ

মন্তব্য