জুলাই ১৩, ২০২০ ১১:৩০ Asia/Dhaka
  • ২০২০ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি লখনৌতে অনুষ্ঠিত প্রতিরক্ষা মেলায় অ্যাসল্ট রাইফেল হাতে নরেন্দ্র মোদি
    ২০২০ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি লখনৌতে অনুষ্ঠিত প্রতিরক্ষা মেলায় অ্যাসল্ট রাইফেল হাতে নরেন্দ্র মোদি

ভারতীয় সেনাবাহিনীর জওয়ানদের জন্য আমেরিকা থেকে ৭২ হাজার অ্যাসল্ট রাইফেল কেনার জন্য দ্রুত অগ্রসর হচ্ছে ভারত। পদাতিক বাহিনীর আধুনিকীকরণের লক্ষ্যে ওই ক্রয় করা হচ্ছে। গতকাল (রোববার) কর্মকর্তারা ওই তথ্য দিয়েছেন।

আমেরিকা থেকে বিপুল পরিমাণে অ্যাসল্ট রাইফেল এমন সময়ে কেনা হচ্ছে যখন পূর্ব লাদাখ অঞ্চলে সীমান্তে ভারত ও চীনা বাহিনীর মধ্যে উত্তেজনা রয়েছে। কর্মকর্তা সূত্রে প্রকাশ, ওই রাইফেলগুলো চীনের সীমান্তে মোতায়েন থাকা সেনারা ব্যবহার করবে।

সেনাবাহিনী পদাতিক বাহিনী আধুনিকীকরণের জন্য বড়সড় কার্যক্রম চালাচ্ছে, যেখানে সেনাদের জন্য পুরানো ও অপ্রচলিত অস্ত্রের পরিবর্তে হালকা মেশিনগান, ওয়ারহেড কারবাইন এবং অ্যাসল্ট রাইফেল ক্রয় করা হচ্ছে।

আজ (সোমবার) এনডিটিভি সূত্রে প্রকাশ, ২০১৭ সালের অক্টোবরে সেনাবাহিনীর জন্য প্রায় ৭ লাখ রাইফেল, হালকা মেশিনগান এবং কমপক্ষে ৪৪ হাজার ৬০০ কারবাইন ক্রয়ের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছিল। চীন-পাকিস্তান সীমান্তে ক্রমবর্ধমান নিরাপত্তা চ্যালেঞ্জের মধ্যে বিভিন্ন অস্ত্র ক্রয়ের বিষয়ে দ্রুতগতিতে কাজ চলছে।

লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় ভারত-চীন সেনাদের উত্তেজনার আবহে কেন্দ্রীয় সরকার চলতি মাসের শুরুতে রাশিয়া থেকে দ্রুত মিগ-২৯ এবং সুখোই যুদ্ধবিমান ক্রয়েও অনুমোদন দিয়েছে। গত ২ জুলাই প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহের উপস্থিতিতে ‘প্রতিরক্ষা ক্রয় পর্ষদে’র (ডিফেন্স অ্যাকুইজিশন কাউন্সিল) বৈঠকে ৩৩টি নতুন রুশ যুদ্ধবিমান কেনার প্রস্তাব অনুমোদিত হয়। এরমধ্যে রয়েছে ১২ টি সুখোই-৩০ এমকেআই মাল্টিরোল এয়ার সুপিরিওরিটি ফাইটার জেট এবং ২১টি মিগ-২৯  যুদ্ধবিমান।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে প্রকাশ, ভারতীয় বিমানবাহিনীর ৫৯ টি মিগ-২৯ যুদ্ধবিমান আধুনিকীকরণের সিদ্ধান্তও হয়েছে। প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা বলেন, ডিফেন্স অ্যাকুইজিশন কাউন্সিলের (ডিএসি) বৈঠকে ভারতীয় নৌবাহিনীর জন্য ১ হাজার কিলোমিটার পাল্লার ‘ক্রুজ’ ক্ষেপণাস্ত্র তৈরির প্রস্তাবটিও অনুমোদিত হয়েছে।#

পার্সটুডে/এমএএইচ/এআর/১৩

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ

মন্তব্য