আগস্ট ০৬, ২০২০ ১২:৫৪ Asia/Dhaka
  • মৃত করোনা রোগীদের কয়েকজন শোকাহত স্বজন
    মৃত করোনা রোগীদের কয়েকজন শোকাহত স্বজন

ভারতের বিজেপিশাসিত গুজরাটের আহমেদাবাদ শহরের একটি কোভিড-১৯ হাসপাতালে আগুন লাগায় ৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। নিহতরা ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

আজ (বৃহস্পতিবার) ভোরে শহরের শ্রেয় হাসপাতালের আইসিইউতে আগুন ধরে যায়। হাসপাতালটিতে করোনা রোগীদের চিকিৎসা করা হচ্ছিল। দুর্ঘটনার কবল থেকে অন্য ৪০ জন রোগীকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে।

ওই ঘটনায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি গভীর শোক প্রকাশ করে মৃতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা ও আহতদের দ্রুত সুস্থতা কামনা করেছেন। তিনি এ ব্যাপারে গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রূপানী ও আহমেদাবাদের মেয়রের সঙ্গে কথা বলেছেন এবং প্রশাসন ক্ষতিগ্রস্তদের যথাসম্ভব সাহায্য করছে বলে জানিয়েছেন।   

কর্মকর্তারা বলছেন, আহমেদাবাদের নবরংপুরা এলাকায় অবস্থিত শ্রেয় হাসপাতালে বৃহস্পতিবার ভোরে আগুন ধরে যায়। হাসপাতালে থাকা ৪০ জন অন্য করোনা রোগীকে উদ্ধার করে তাদেরকে শহরের অন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আগুন লাগার কারণ এখনও পর্যন্ত স্পষ্ট হয়নি।

পুলিশ সূত্রকে উদ্ধৃত করে গণমাধ্যমে প্রকাশ, শ্রেয় হাসপাতালের আইসিইউতে আজ ভোর সাড়ে তিনটে নাগাদ আগুন ধরে যায়। পরে তা অন্য ওয়ার্ডে ছড়িয়ে পড়ে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, পুলিশ ও ফায়ারব্রিগেডের সদস্যরা রোগীদের অন্য ওয়ার্ডে স্থানান্তর করেছে। তাদের দাবি, মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। অন্যদিকে, রোগীর পরিজনদের দাবি, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ আগুন লাগার খবর পুলিশ ও ফায়ারব্রিগেডকে দেরিতে দিয়েছেন।

ওই দুর্ঘটনায় মৃতরা হলেন, ওয়ারিশ মনসুরি (৪২), নবনীত শাহ (১৮), লীলাবেন শাহ (৭২), নরেন্দ্র শাহ (৫১), অরবিন্দ ভাবসার (৭২), মনুভাই রামী (৮২), জয়ন্তী সিংঘি (৫৫) এবং ভবিন শাহ (৫১)।

মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রূপানী ওই ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। অতিরিক্ত মুখ্যসচিব (স্বরাষ্ট্র) সঙ্গীতা সিং ওই তদন্তের নেতৃত্ব দেবেন। মুখ্যমন্ত্রী তিন দিনের মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলেছেন।#      

পার্সটুডে/এমএএইচ/এআর/৬

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ

মন্তব্য