জানুয়ারি ১১, ২০২১ ১৭:৫৬ Asia/Dhaka
  • কৃষি আইন স্থগিত করতে বলল সুপ্রিম কোর্ট, বড় ধাক্কা খেল কেন্দ্রীয় সরকার

ভারতে কেন্দ্রীয় সরকারের তৈরি নয়া তিন কৃষি আইন আপাতত স্থগিত করতে বলেছে সুপ্রিম কোর্ট। আজ (সোমবার) শীর্ষ আদালত কেন্দ্রীয় সরকারকে এখনই ওই আইন কার্যকর না করার পরামর্শ দিয়েছে। একইসঙ্গে আদালত জানিয়েছে, সরকার এই পরামর্শ না শুনলে তারাই ওই আইনের উপরে স্থগিতাদেশ দেবে। সুপ্রিম কোর্টের এ ধরণের কঠোর অবস্থানে কার্যত কেন্দ্রীয় সরকার বড়সড় ধাক্কা খেল বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

কেন্দ্রীয় সরকারের তৈরি করা তিনটি কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে গত দেড় মাসেরও বেশি সময় ধরে দিল্লি সংলগ্ন বিভিন্ন রাজ্যের সীমান্তে আন্দোলন করছেন প্রতিবাদী কৃষকরা।

আজ সোমবার সুপ্রিম কোর্টে কৃষি আইন মামলার শুনানি ছিল। কেন্দ্রীয় সরকার গত বছর সেপ্টেম্বর মাসে সংসদে তিনটি কৃষি আইন পাশ করায়।  ওই আইন কৃষক বিরোধী বলে অভিযোগ করেছে কৃষক সংগঠন এবং  বিরোধী বিভিন্ন রাজনৈতিক দল। কিন্তু সরকার পক্ষের দাবি, ওই আইনের ফলে কৃষকরা ব্যাপকভাবে উপকৃত হবেন। বিষয়টি নিয়ে মামলা হয় সুপ্রিম কোর্টে। আজ সেই মামলার শুনানি ছিল সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি এস এ বোবদের ডিভিশন বেঞ্চে। শুনানি চলাকালীন বিচারপতি কেন্দ্রীয় সরকারের আইনজীবীর কাছে জানতে চান, নয়া তিন কৃষি আইন কী  স্থগিত রাখা যেতে পারে? আপনারা আইনে স্থগিতাদেশ জারি করুন, নয়তো আমরা করব।

আদালত জানায়, আপনারা সমাধান বের করতে পারছেন না। পরিস্থিতি দিন দিন খারাপ হচ্ছে। কৃষকরা আত্মহত্যা করছেন। এই প্রবল ঠান্ডার মধ্যেও তাঁরা সড়কে বসে রয়েছেন। খারাপ কিছু ঘটলে তার দায় কে নেবে? পরিস্থিতি হাতের বাইরে চলে যাচ্ছে। আমরা কোনও মৃত্যু বা কোনও ক্ষত দেখতে চাই না।

আদালতে কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষে আইনজীবী কেকে বেণুগোপাল তাঁর সাফাইতে বলেন, মাত্র ৩/৪ টি রাজ্যের কৃষকরা প্রতিবাদ করছেন। এখানে বৃহত্তর কৃষক সমাজের অংশগ্রহণ নেই। দক্ষিণ ভারত থেকে কোনও কৃষক ওই আন্দোলনে অংশগ্রহণ করেননি। কিন্তু এসব কথায় আমল দেয়নি দেশের শীর্ষ আদালত। বরং আদালত কেন্দ্রীয় সরকারকে সাফ জানিয়ে দিয়েছে, আপনারা যদি ওই বিষয়ে এগিয়ে না আসেন তাহলে আদালতকেই হস্তক্ষেপ করতে হবে।#

পার্সটুডে/এমএএইচ/এমবিএ/১১   

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

 

 

ট্যাগ