মার্চ ০৮, ২০২১ ২২:০৭ Asia/Dhaka
  • জম্মু-কাশ্মির: মিয়ানমারের নাগরিকদের বিরুদ্ধে পুলিশের তৎপরতা, মানবিক দৃষ্টিতে দেখার আহ্বান ফারুক আবদুল্লাহর

জম্মু-কাশ্মীরে পুলিশ অবৈধভাবে বাসরত বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের নাগরিকদের বিরুদ্ধে তৎপরতা অব্যাহত রেখেছে। ওই ইস্যুতে বিজেপি এবং ন্যাশনাল কনফারেন্সের মধ্যে পাল্টাপাল্টি মন্তব্য প্রকাশ্যে এসেছে।

গণমাধ্যমে প্রকাশ, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের হস্তক্ষেপের পরে গত (শনিবার) থেকে জম্মু-কাশ্মীরে অবৈধভাবে বাসরত বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের নাগরিকদের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক পদক্ষেপ গ্রহণ অব্যাহত রয়েছে। শনিবার, প্রশাসনের পক্ষ থেকে দেড় শতাধিক এ ধরণের নাগরিককে কঠুয়ার হীরানগরের ডিটেনশন সেন্টারে পাঠানো হয়েছে। আজ (সোমবার) জম্মুতে প্রায় আধ ডজন রোহিঙ্গা জনবসতিতে নীরবতা ছিল। সরকারি তৎপরতায় ভীত হয়ে ওই নাগরিকরা ‘মানবিকতার ভিত্তিতে’ তাদের বিষয়টি দেখার জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

কেন্দ্রীয় সরকারের এ ধরণের পদক্ষেপ গ্রহণে ক্ষুব্ধ জম্মু-কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ডা. ফারুক আবদুল্লাহ ভারত সরকাররের উদ্দেশ্যে বিষয়টি মানবতার ভিত্তিতে দেখার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, যে জাতিসংঘের সনদের অধীনে ওই নাগরিকরা ভারতে অবস্থান করছেন, তাতে ভারতও সই করেছে।

অন্যদিকে, ফারুক আব্দুল্লাহর বক্তব্যের পাল্টা বিপরীত মন্তব্য করেছে  বিজেপি। জম্মু-কাশ্মীরের সাবেক উপ-মুখ্যমন্ত্রী কবীন্দর গুপ্ত বলেছেন, ভারত কোনও ধর্মশালা নয় যে, যেখানে যে কেউ এসে বসতি স্থাপন করতে পারে। কবীন্দ্র গুপ্ত বলেন, বাংলাদেশ ও বার্মার নাগরিকরা তাদের দেশ ছেড়ে ১০ টি রাজ্য পেরিয়ে জম্মুতে কেন বসতি স্থাপন করেছে তার তদন্ত হওয়া  উচিত। জম্মুতে প্রায় আধ ডজন রোহিঙ্গা জনবসতিতে বাসরত বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের নাগরিকদের নথিপত্র যাচাই করার জন্য পুলিশ একনাগাড়ে এসব বস্তিতে শিবির স্থাপন করছে।#

পার্সটুডে/এমএএইচ/এমবিএ/৮

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

 

ট্যাগ