এপ্রিল ০১, ২০২১ ২২:২০ Asia/Dhaka
  • জম্মু-কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা অপসারণের পরও সন্ত্রাস অব্যাহত: কংগ্রেস

ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীর পরিস্থিতি নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের দাবি ফাঁকা বলে মন্তব্য করেছে বলে কংগ্রেস। কাশ্মীরের নওগামে বিজেপি নেতার বাড়িতে অজ্ঞাত সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনা করেছে কংগ্রেস।

দলটির অভিযোগ, গত তিন দশক ধরে পুলিশ প্রত্যেক বার্ষিক প্রতিবেদনে দাবি করে আসছে যে রাজ্যে ২০০ থেকে ২৫০ জন সন্ত্রাসী সক্রিয় রয়েছে। তাহলে কিসের ভিত্তিতে রাজ্যের পরিস্থিতি স্বাভাবিক বলে দাবি করা হচ্ছে?

আজ (বৃহস্পতিবার) রাজ্য কংগ্রেস কমিটির সভাপতি গোলাম আহমদ মীর কাশ্মীরে বিজেপি নেতা আনোয়ার খানের বাড়িতে হামলার নিন্দা করেছেন। তিনি বলেন, জম্মু-কাশ্মীর একটি স্পর্শকাতর রাজ্য এবং এখানে পরিস্থিতি উন্নতি ঘটাতে সরকারকে বিশেষ পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। কংগ্রেস নেতা গোলাম আহমদ মীর কেন্দ্রীয় সরকারকে তীব্র আক্রমণ করে বলেন, রাজ্য থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার করে নেওয়ার সময় দাবি করা হয়েছিল যে, এরফলে জম্মু-কাশ্মীরে সন্ত্রাসবাদ দূর হবে ও শান্তি প্রতিষ্ঠিত হবে। কিন্তু পরিস্থিতি এসবের বিপরীত।   

কেন্দ্রীয় সরকারকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, গত তিন দশক ধরে,  প্রত্যেক বছরে পুলিশ নিজেদের বার্ষিক প্রতিবেদনে রাজ্যে ২০০ থেকে ২৫০ জঙ্গিসক্রিয় রয়েছে বলে দাবি জানিয়েছে এবং ওই সংখ্যা এখনও একই রয়েছে। মীর বলেন, ওই পরিসংখ্যান জম্মু-কাশ্মীর পুলিশ প্রকাশ করেছে এবং তা সরকারি। এর স্পষ্ট অর্থ এটাই যে, ৩৭০ ধারা অপসারণের ফলে তার প্রভাব সন্ত্রাসবাদের উপরে পড়েনি এবং সন্ত্রাসীরা এখনও সক্রিয় রয়েছে।

প্রসঙ্গত, আজ বৃহস্পতিবার শ্রীনগরের নওগামে বিজেপি নেতা আনোয়ার খানের বাড়িতে অজ্ঞাত গেরিলা হামলার ঘটনা ঘটে। হামলার সময়ে ওই বিজেপি নেতা বাসায় ছিলেন না। ওই ঘটনায় সেখানে প্রহরায় নিযুক্ত রমিজ রাজা নামে এক নিরাপত্তা রক্ষী আহত হন। তাঁকে দ্রুত হাসপাতালে নেওয়া হলেও তিনি মারা যান। আনোয়ার খান বারামুল্লার জেলা সাধারণ সম্পাদক এবং এর পাশাপাশি তাকে কুপওয়াড়ার ইনচার্জ করা হয়েছিল।#

পার্সটুডে/এম এ এইচ/গাজী আবদুর রশীদ/১  

      

ট্যাগ