এপ্রিল ০৭, ২০২১ ২০:০১ Asia/Dhaka
  • ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল সভানেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়
    ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল সভানেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল সভানেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপি সরকারকে টার্গেট বলেছেন, ‘অসমে ভোটার তালিকা থেকে ১৪ লাখ মানুষের নাম বাদ দিয়ে তাদের আজকে ডিটেনশন ক্যাম্পে রেখে দিয়েছে! তারা কারা? আপনার ঘরের ভাই-বোন নয়?’ রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন উপলক্ষে তিনি আজ (বুধবার) কুচবিহারে এক সমাবেশে বক্তব্য রাখার সময়ে ওই মন্তব্য করেন।

মমতা বলেন, ‘বিজেপি বলল, ‘ক্যা’ (‘সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন’ সিএএ/ক্যা) করবো। কিন্তু এনপিআর-এনআরসি’র (জাতীয় জনসংখ্যা নিবন্ধন/জাতীয় নাগরিক পঞ্জি)নাম করে ১৪ লাখ বাংলাভাষী মানুষদের নাম বাদ দিয়েছে। আপনাদের কষ্ট হয় না? বলেছিল ক্যা করবে। কোথায় ক্যা? কিছুই নাই। ওটা ফু-ফা। ওটা নির্বাচনে আগে ভাঙচি দেয়, ভাগাভাগি করে। আসলে বিজেপি কোনও কাজ করে না।’    

মমতা বিজেপিকে ছদ্মবেশী শয়তান বলে অভিহিত করে বলেন, ‘বিজেপি কীরকম জানেন তো? ছদ্মবেশী শয়তান। সামনা সামনি যা ইচ্ছে করে। দাঙ্গা করে, খুন করে, লুঠ করে বোমা মারে, গুলি চালায়!’ 

মমতা বলেন, এরইমধ্যে ৮ দফার মধ্যে ৩ দফায় ৯০ টা আসনে নির্বাচন হয়ে গেছে। আমরা কিন্তু জিতছি। বিজেপি আমাদের ধারে কাছেও আসতে পারেনি। বিজেপিকে কটাক্ষ করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আরও বলেন, ‘ওরা এত মিথ্যে কথা বলে! বলে, উদ্বাস্তুদের আমরা জমির দলিল দেব। বন্ধু, ছিটমহল কে করে দিয়েছে? বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী আমাকে বলেছিল, আমি ছিটমহল করে দিয়েছি। ওরা  একটাও কাজ করেনি। আজ এসে বলছে, ভোট চাই। লোকসভা নির্বাচনে ভোট নিল, পালিয়ে গেল!’  

‘যে এমপি হল, সে এখন এমএলএ নির্বাচনে দাঁড়িয়েছে। এরপরে কাউন্সিলর নির্বাচনে দাঁড়াবে, এবং হারবে’ বলেও মন্তব্য করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।      

পার্সটুডে/এমএএইচ/বাবুল আখতার/৭

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

 

ট্যাগ