জুন ২২, ২০২১ ১৮:৩৯ Asia/Dhaka
  • পশ্চিমবঙ্গে পৃথক রাজ্যের দাবি জানানোয় দুই বিজেপি এমপি’র বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে উত্তরবঙ্গ ও জঙ্গলমহল রাজ্য গঠনের দাবি জানানোয় বিজেপির জন বার্লা এমপি ও সৌমিত্র খাঁ এমপি’র বিরুদ্ধে থানায় এফআইআর করেছে তৃণমূল। জন বার্লা সম্প্রতি উত্তরবঙ্গকে পৃথক রাজ্য করতে হবে বলে দাবি জানিয়েছেন। অন্যদিকে, সৌমিত্র খাঁ জঙ্গলমহল রাজ্যে গঠনের দাবি তুলেছেন। উভয়ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট এলাকায় অনুন্নয়নের অভিযোগ করেছেন ওই বিজেপি নেতারা।

আজ (মঙ্গলবার) ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে আলিপুরদুয়ার জেলার মাদারিহাট ও বীরপাড়া থানায় দু’টি অভিযোগ দায়ের করেন তৃণমূল যুব’র মাদারিহাট বীরপাড়া ব্লক কমিটির সভাপতি বিশাল গুরুং। জন বার্লার  বিরুদ্ধে অস্থির পরিস্থিতি সৃষ্টিসহ দাঙ্গা তৈরি করার মতো প্ররোচনামূলক মন্তব্য করার অভিযোগ তোলা হয়েছে। 

তৃণমূল নেতা বিশাল গুরুংয়ের অভিযোগ, আলিপুরদুয়ারের এমপি জন বার্লার  মন্তব্য একটি শ্রেণির সঙ্গে আরেকটি শ্রেণির শত্রুতা তৈরি করবে।  জঙ্গলমহলকে কেন্দ্র করে সৌমিত্র খাঁর মন্তব্য প্ররোচনামূলক বলেও অভিযোগ করেছেন বিশাল গুরুং।   

অন্যদিকে, আজ মঙ্গলবার আলীপুরদুয়ার থানায় বিজেপি এমপি জন বার্লা  ও সৌমিত্র খাঁর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছেন আলিপুরদুয়ারের জেলা যুব তৃণমূল সভাপতি বাবলু কর। তিনি বলেন, ‘যারা বাংলা ভাগকে সমর্থন জানাচ্ছেন বা ভাগ চেয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় নানা পোষ্ট করছেন, তারাও সমানভাবে আইনশৃঙ্খলা ভঙ্গ করছেন,  এদের সবাইকে গ্রেফতার করতে হবে।’

প্রসঙ্গত,  বিজেপি এমপি জন বার্লার বিরুদ্ধে ইতোমধ্যে দিনহাটা,  ফালাকাটা, আলীপুরদুয়ার, কোতোয়ালি থানাসহ মোট ৭টি থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে।    

গতকাল (সোমবার) বিজেপি এমপি জন বার্লাকে গ্রেফতারের দাবিতে রায়গঞ্জ শহরে তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সদস্যরা বকুলতলা মোড়ে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন। শিক্ষক নেতা গৌরাঙ্গ চৌহান বলেন, ‘উত্তরবঙ্গ ভাগের চক্রান্তকারী বিজেপি এমপি জন বার্লাকে অবিলম্বে গ্রেফতার করতে হবে। বাংলার গর্ব উত্তরবঙ্গকে ভাগাভাগি মানব না। আমরা বাংলা ভাগ হতে দেবো না।’ 

 অন্যদিকে, আজ বিজেপি বিধায়ক শিখা চট্টোপাধ্যায় আলাদা রাজ্যের দাবিকে সমর্থন করে বলেন, ‘আমরা উত্তরবঙ্গের সার্বিক উন্নয়ন চাই। উত্তরবঙ্গ সবসময় অবহেলিত। এখানকার মানুষের জন্য ব্যবস্থা গ্রহণ করা প্রয়োজন। উত্তরবঙ্গের মানুষদের যেমন সিপিএম সরকার যেমন অবহেলা করেছে, বর্তমান সরকারও ঠিক একইভাবে অবহেলা করছে। তাই আগামীদিন আমরা চাইছি এখানে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হোক।’

এদিকে, রাজ্য ভাগের চক্রান্তের বিরুদ্ধে রাজ্যের শাসকদল তৃণমূলের পাশাপাশি সোচ্চার হয়েছে ফরওয়ার্ড ব্লক দল। আজ (মঙ্গলবার) দলটির পক্ষ থেকে কুচবিহার জেলা কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে বিজেপি ও তৃণমূলের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়েছে। দলটির অভিযোগ, বিজেপি বারবার রাজ্য ভাগের কথা বলছে, আবার বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতাদের সঙ্গেও সখ্যতা রাখছে তৃণমূল।

ফরওয়ার্ড ব্লকের জেলা সম্পাদক অক্ষয় ঠাকুর বলেন, ‘উত্তরবঙ্গকে পৃথক রাজ্য বা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল করার দাবি করছে কেউ কেউ। এটি সর্বনাশা দাবি। এটার বিরুদ্ধে আগেও আন্দোলন করা হয়েছে। এখনও আন্দোলন করা হবে।’ তাঁরা আলাদা রাজ্য বা কেন্দ্রীয় সরকারশাসিত অঞ্চল চান না। উত্তরবঙ্গ শিক্ষা, স্বাস্থ্য, যোগাযোগ দিক থেকে বঞ্চিত। উত্তরবঙ্গের জন্য বিধিবদ্ধ উন্নয়ন পর্ষদ গঠন করা হোক। তাহলে রাজ্য ও কেন্দ্রীয় সরকার অনুদান দেবে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।   

ফরওয়ার্ড ব্লকের জেলা সভাপতি দীপক সরকার বলেন, সুভাষচন্দ্র বসু অখণ্ড ভারতের স্বপ্ন দেখেছিলেন। কিন্তু এখন বিজেপি, তৃণমূল এ দেশে রাজ্যভাগ করতে চাচ্ছে। অন্যদিকে, তৃণমূল বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সঙ্গে সখ্যতা করছে। তাঁরা এর প্রতিবাদ জানাচ্ছেন। এ নিয়ে শিগগিরি আন্দোলনে নামা হবে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।  

রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ এমপি অবশ্য বাংলা ভাগের দাবিকে দল সমর্থন করে না বলে সাফাই দিয়েছেন। কিন্তু একেরপর এক দলের এমপি ও বিধায়ক পৃথক রাজ্যের দাবি তোলায় বিজেপির শীর্ষ নেতারা ওই ইস্যুতে কিছুটা ব্যাকফুটে রয়েছেন বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।#

পার্সটুডে/এমএএইচ/বাবুল আখতার/২২

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

 

     

 

ট্যাগ