জুলাই ৩০, ২০২১ ১৯:০১ Asia/Dhaka
  • হরিয়ানায় প্রত্যেক জেলায় বিশেষ গরু সুরক্ষা টাস্কফোর্স গঠন করার সিদ্ধান্ত

ভারতের বিজেপিশাসিত হরিয়ানা সরকার গরু রক্ষার জন্য রাজ্য ও জেলা পর্যায়ে একটি টাস্কফোর্স গঠন করেছে। আজ (শুক্রবার) হরিয়ানা সরকারের পক্ষ থেকে এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে।

জেলা পর্যায়ে গঠিত টাস্কফোর্স জেলার পুলিশ প্রশাসনের সাথে সমন্বয় রেখে কাজ করবে। রাজ্য পর্যায়ের দলে মোট ৬ জন এবং জেলা পর্যায়ের টিমে ১১ জন সদস্য নিযুক্ত করা হবে।   

হরিয়ানা সরকারের জারি করা বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, ওই টাস্কফোর্সের কাজ হবে গরু চোরাচালান এবং গরু জবাই বন্ধ করা। এর পাশাপাশি, রাজ্যে বিচরণ করা বিপথগামী বেওয়ারিশ গরুর  পুনর্বাসনও করতে হবে।

সরকারী সদস্যের সাথে এনজিও এবং সামাজিক সংগঠনের লোকজনকেও ওই টাস্কফোর্সে শামিল করা  হবে। টাস্কফোর্সে পুলিশ কর্মকর্তা, গরু সেবক, স্থানীয় সংস্থার কর্মকর্তা, পশুপালন বিভাগের কর্মচারী অন্তর্ভুক্ত থাকবে।

একইসঙ্গে, রাজ্যস্তরের জন্য গঠিত কমিটির প্রধান হবেন হরিয়ানা গো-সেবা আয়োগের চেয়ারম্যান। এছাড়া ওই কমিটিতে বিশেষ সচিব, পশুপালন-ডেয়ারি বিভাগের সচিব বা বিশেষ সচিব, হরিয়ানা পুলিশের অতিরিক্ত মহাপরিচালক পদমর্যাদা সম্পন্ন এক কর্মকর্তা এবং হরিয়ানার আইন বিভাগ থেকেও একজন সদস্য অন্তর্ভুক্ত থাকবেন।

ড. শেখ কামাল উদ্দীন

এ প্রসঙ্গে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের হিঙ্গলগঞ্জ মহাবিদ্যালয়ের অধ্যেক্ষ ড. শেখ কামাল উদ্দীন আজ (শুক্রবার) রেডিও তেহরানকে বলেন, ‘কথায় আছে সময়ের কাজ সময়ে করতে হয়, না হলে পস্তাতে হয়। যেমন- প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়ার সময় আমরা কে না গরুর রচনা পড়েছি ও লিখেছি। কারণ,  সেই সময়ে সেটি ছিল ছাত্রদের বিদ্যার্জনের সময় এবং বাড়িতে গৃহপালিত পশু হিসেবে গরু থাকলে বাড়ির শিশু এবং বয়স্করা প্রোটিন সমৃদ্ধ দুগ্ধজাত খাবার সহজে পেতে পারত বলে গরুর উপকারিতা বিষয়ে পড়ার প্রয়োজন ছিল। এখন একবিংশ শতকের প্রথমার্ধে বিশ্বময় করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ এবং বিজ্ঞানসম্মতভাবে লড়াইয়ের জন্য প্রয়োজন প্রচুর ভ্যাকসিন, অক্সিজেন তৈরির ব্যবস্থা, মেডিকেল কলেজ, নার্সিং কলেজ, পর্যাপ্ত পরিমাণে মেডিকেল পার্সোনাল এবং মানুষকে সচেতনতার জন্য যা যা প্রয়োজন সেগুলো সময়ের দাবি  মেনে তৈরি করা। কিন্তু এসব না করে জনগণের ভোটে নির্বাচিত কোনো সরকার  যদি জনগণের স্বাস্থ্য, জনগণের জীবন উপেক্ষা করে গো-রক্ষার জন্য জনগণের দেয় করের টাকায় গো-রক্ষার জন্য উদগ্রীব হয়ে ওঠে সেটি মোটেও মানুষের জন্য কাজ করা নয়।’    

ড. শেখ কামাল উদ্দীন আরও বলেন, ‘জনগণের জন্য, জনগণের দ্বারা, জনগণের কল্যাণে কাজ করাকে আজ উপেক্ষা করে বিশ্বের বৃহত্তম গণতন্ত্র ভারতবর্ষের একটি অঙ্গরাজ্য হরিয়ানা, যে রাজ্যেবর কৃষকেরা দিনের পর দিন কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে সপরিবারে দিল্লি সীমান্তে আন্দোলন করে চলেছে তাদের সমস্যার সুরাহা না করে এ ধরনের উদ্যোগ গ্রহণ করা শুধু জনগণের করের টাকার অপব্যবহারই নয় লজ্জাজনকও বটে! আসলে সরকারের ব্যর্থতার দিক থেকে জনগণের নজর ঘোরাতে এ ধরনের উদ্যোগ বলে মনে হচ্ছে।’  #

পার্সটুডে/এমএএইচ/ আবুসাঈদ/৩০

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ