আগস্ট ০৩, ২০২১ ১৭:৩৮ Asia/Dhaka
  • কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে রণকৌশল ঠিক করতে রাহুলের নেতৃত্বে ১৪ দলীয় বৈঠক, সাইকেল র‍্যালি

ভারতের প্রধান বিরোধীদল কংগ্রেসের সাবেক সভাপতি রাহুল গান্ধী এমপির আহ্বানে কেন্দ্রীয় সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপের বিরুদ্ধে রণকৌশল ঠিক করতে ১৪ দলীয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ (মঙ্গলবার) সকালে দিল্লির কনস্টিটিউশন ক্লাবে ওই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বিরোধীদলীয় বৈঠকে রাহুল গান্ধী ছাড়াও লোকসভায় বিরোধী দলনেতা অধীররঞ্জন চৌধুরী, তৃণমূলের  তিন এমপি সৌগত রায়, কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় ও মহুয়া মৈত্র উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়া শিবসেনার সঞ্জয় রাউত, এনসিপি-র সুপ্রিয়া সুলে, ডিএমকে’র কানিমোজি উপস্থিত ছিলেন। 

আজ বিরোধী নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করার পরে রাহুল গান্ধী সাইকেলে করে সংসদে পৌঁছন। তিনি এ সময়ে সাইকেলের সামনের দিকে একটি প্ল্যাকার্ড লাগিয়েছিলেন, যার উপরে একটি এলপিজি সিলিন্ডারের ছবি ছিল এবং এর মূল্য লেখা ছিল ৮৩৪ টাকা।  তাঁর সঙ্গে লোকসভার  কংগ্রেসের সিনিয়র নেতা কেসি বেনুগোপাল, অধীররঞ্জন চৌধুরী, গৌরব গগৈ, সৈয়দ নাসির হুসেন, আরজেডি’র মনোজ ঝা, তৃণমূল কংগ্রেসের কল্যাণ ব্যানার্জি এবং  আরও কয়েকজন এমপিও সাইকেল চালিয়ে সংসদে পৌঁছন।   

কংগ্রেসের মুখপাত্র এবং রাজ্যসভার সদস্য সৈয়দ নাসির হুসেন বলেন, 'রাহুল গান্ধী এবং অন্য বিরোধী নেতারা সাধারণ  মানুষের কণ্ঠস্বর তুলে ধরেছেন। মুদ্রাস্ফীতির কারণে মানুষ কষ্টের মধ্যে আছে, কিন্তু সরকার কারো কথা শুনছে না। আমরা সংসদের ভিতরে এবং বাইরে মানুষের কণ্ঠস্বর তুলে ধরা অব্যাহত রাখব। গুরুত্বপূর্ণ ওই বৈঠকে, ‘পেগাসাস’ গুপ্তচরবৃত্তি ইস্যুতে একটি যৌথ কৌশল তৈরি করা  হয়েছে।

ইহুদিবাদী ইসরাইলি পেগাসাস স্পাইওয়্যারের মাধ্যমে ফোনে আড়ি পাতা ইস্যুতে সংসদের বর্ষাকালীন অধিবেশনে অচলাবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। সরকারপক্ষ এব্যাপারে বিরোধী দলকে দোষারোপ করছে। অন্যদিকে, বিরোধীরা বলছে, সরকার গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে বিতর্ক করতে প্রস্তুত নয়। আজ রাহুল গান্ধীর ডাকা সভায় কংগ্রেস, এনসিপি, শিবসেনা, রাষ্ট্রীয় জনতা দল, সমাজবাদী পার্টি, সিপিআই (এম), সিপিআই, আইইউএমএল, আরএসপি, কেসিএম, জেএমএম, ন্যাশনাল কনফারেন্স, তৃণমূল কংগ্রেস এবং এলজেডি অংশ নিয়েছিল।  

আজ আম আদমি পার্টি (আপ) রাহুল গান্ধীর ডাকা বৈঠকে যোগ দেয়নি। আপ নেতা সঞ্জয় সিং বলেন, বৈঠকে যোগ দেওয়া বা না আসা গুরুত্বপূর্ণ নয়। আমরা যখনই সংসদে আলোচনা করি তখনই কৃষকদের পাশে থাকি এবং গুপ্তচরবৃত্তির বিরুদ্ধে থাকি।    

বিরোধী দলীয় বৈঠকে কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী বিরোধী নেতাদের প্রস্তাব দেন পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে সংসদ ভবন পর্যন্ত সাইকেল র‍্যালির। সেই প্রস্তাব মেনে নেন বিরোধীরা। কৃষি আইনের প্রতিবাদে সম্প্রতি রাহুল গান্ধী ট্র্যাক্টর চালিয়ে সংসদে গিয়েছিলেন।  তৃণমূল এমপিরাও সম্প্রতি সাইকেল চালিয়ে সংসদে  গিয়ে পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদ করেছিলেন।   

আজ কংগ্রেসের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, কেন্দ্রীয় নরেন্দ্র মোদি সরকারের জনবিরোধী নীতি এবং গণতন্ত্রবিরোধী  কৌশলের বিরুদ্ধে আমাদের ঐক্যবদ্ধভাবে লড়াই করতে হবে।  দেশ বাঁচানোর এই লড়াইয়ে আমরা ঐক্যবদ্ধ। #

পার্সটুডে/এমএএইচ/এমবিএ/৩

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

 

ট্যাগ