নভেম্বর ২৬, ২০২১ ১৮:৪৬ Asia/Dhaka
  • সাইয়্যেদ মুহাম্মাদ আবু তোরাবি ফার্দ
    সাইয়্যেদ মুহাম্মাদ আবু তোরাবি ফার্দ

মার্কিন ও ইহুদিবাদী ইসরাইলি শাসকদের অবৈধ স্বার্থে নিজেদের জাতীয় স্বার্থকে জলাঞ্জলি দেবেন না। আজ তেহরানের জুমার নামাজের খতিব ইউরোপীয় দেশগুলোর উদ্দেশে এই আহ্বান জানান।

জুমার অস্থায়ী খতিব হুজ্জাতুল ইসলাম সাইয়্যেদ মুহাম্মাদ আবু তোরাবি ফার্দ ভিয়েনায় পাঁচ জাতিগোষ্ঠির সঙ্গে ইরানের প্রতিনিধির আলোচনা শুরুর প্রাক্কালে এ কথা বলেন। খতিব বলেন, রাজনীতি বিশ্লেষকদের সবাই জানে যে অদূর ভবিষ্যতে ফিলিস্তিন ও মুসলিম বিশ্বে ইসরাইলের অস্তিত্ব আর থাকবে না। সুতরাং এরকম একটি অবৈধ সরকারের সঙ্গে ইউরোপীয় দেশগুলো গাঁটছড়া বাঁধলে চরম ভুল হবে।

তিনি বলেন, ইউরোপীয় দেশগুলোর স্বার্থ এশীয় দেশগুলো বিশেষ করে দক্ষিণ-পশ্চিম এশিয়ার দেশগুলোর সঙ্গে একই সূত্রে গাঁথা।

যদি ইসরাইলকে প্রতিরোধ করার মতো রাজনৈতিক, বৈজ্ঞানিক সক্ষমতা ও শক্তি ইউরোপের না থাকত, তবে ইউরোপ মারাত্মক নিরাপত্তাহীনতার মুখে পড়তো। প্রতিরোধ শক্তি ছিল বলেই আইএসআইএল বা দায়েশ সন্ত্রাসীদের দমন করা সম্ভব হয়েছিল। এ ক্ষেত্রে তিনি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে উন্নয়নের ওপর সর্বোচ্চ নেতার গুরুত্বারোপের কথাও তুলে ধরেন। খতিব বলেন, শক্তি জ্ঞান ও বিজ্ঞানের অবদান। শক্তি অর্জনের নেপথ্যে রয়েছে জ্ঞান ও প্রজ্ঞা। এই জ্ঞান ও বিজ্ঞানকে তৌহিদি শিক্ষার সাথে সমন্বয় করা না হলে ওই অর্জন শোষণ, উপনিবেশিকতা এবং আধিপত্য বিস্তারের পথকেই সুগম করবে।

আবু তুরাবি ফার্দ বলেন: ইরানকে শক্তিশালী করার একমাত্র উপায় হলো বৈজ্ঞানিক উন্নয়ন ও অগ্রগতি। ইরানকে তাই জ্ঞান-বিজ্ঞানে বিশ্বে প্রথম সারিতে উন্নীত হতে হবে। সর্বোচ্চ নেতা যেমনটি বলেছেন: ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরানকে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে আগামি বিশ্বের অনুসরণীয় দেশে পরিণত হতে হবে।#

পার্সটুডে/এনএম/২৬

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

 

 

ট্যাগ