নভেম্বর ২৭, ২০২১ ০৮:০৬ Asia/Dhaka
  • হোসেইন আমির-আব্দুল্লাহিয়ান-জোসেপ বোরেল
    হোসেইন আমির-আব্দুল্লাহিয়ান-জোসেপ বোরেল

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, পরমাণু সমঝোতার অপর পক্ষগুলো তাদের প্রতিশ্রুতিতে ফিরে এসে আমেরিকার বেআইন নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করতে সম্মত হলে দ্রুততম সময়ের মধ্যে একটি ভালো চুক্তি স্বাক্ষর করা সম্ভব। হোসেইন আমির-আব্দুল্লাহিয়ান শুক্রবার ইউরোপীয় ইউনিয়ন বা ইইউ’র পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ক প্রধান কর্মকর্তা জোসেপ বোরেলের সঙ্গে এক টেলিফোনালাপে এ মন্তব্য করেন।

আর মাত্র দু’দিন পর যখন অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনায় পরমাণু সমঝোতা পুনরুজ্জীবনের সংলাপ আবার শুরু হতে যাচ্ছে তখন এ টেলিফোনালাপ অনুষ্ঠিত হলো। ২০১৫ সালে স্বাক্ষরিত পরমাণু সমঝোতার আলোচনায় মধ্যস্থতাকারীর ভূমিকা পালন করেছিল ইইউ।

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী টেলিফোনালাপে বলেন, আমেরিকা ও তিন ইউরোপীয় দেশ পরমাণু সমঝোতা লঙ্ঘন করা সত্ত্বেও ইরান সদিচ্ছা নিয়ে ইউরোপীয়দের সঙ্গে সংলাপে বসার উদারতা দেখিয়েছে।কারণ, ইরান তাদের সঙ্গে একটি ভালো ও যাচাইযোগ্য চুক্তি সই করতে চায়।

আব্দুল্লাহিয়ান বলেন, পরমাণু সমঝোতাকে আবার কার্যকর করতে হলে এর প্রতিটি ধারা কার্যকর করতে হবে এবং আমেরিকা আবার এটি থেকে যেন বেরিয়ে যেতে না পারে সে গ্যারান্টি থাকতে হবে।

আমেরিকাকে পরমাণু সমঝোতার ব্যাপারে দ্বৈত নীতি গ্রহণের জন্য দায়ী করে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মার্কিন সরকার যখন পরমাণু সমঝোতায় ফিরতে  চায় বলে দাবি করছে তখনই ইরানের ওপর গত কয়েক দিনে দুই দফা নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ওয়াশিংটন। এ অবস্থায় আমেরিকা নিষেধাজ্ঞা পুরোপুরি প্রত্যাহার করে কিনা তা যাচাই করার ওপর জোর দিতে হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

টেলিফোনালাপে ইইউ’র পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ক প্রধান বলেন, ভিয়েনা সংলাপ শুরু হওয়ার আগে তিনি এ সংলাপের পক্ষগুলোর সঙ্গে কথা বলেছেন। পরমাণু সমঝোতা আগের মতো অক্ষুণ্ন রেখে তা বাস্তবায়ন করা সম্ভব বলেও তিনি মন্তব্য করেন।#

পার্সটুডে/এমএমআই/২৭

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ