জানুয়ারি ০২, ২০২২ ১৯:৪৫ Asia/Dhaka
  • ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র
    ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র

ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচির মধ্যপ্রাচ্যে আমেরিকার কৌশলগত সামরিক হিসাব-নিকাশ বাধাগ্রস্ত করেছে। একইসঙ্গে এই কর্মসূচি এ অঞ্চলে মার্কিন আরোপিত ক্ষমতার ভারসাম্য বদলে দিয়েছে। ফলে আমেরিকার একক সামরিক আধিপত্য আর থাকছে না।

মস্কোভিত্তিক আমেরিকার রাজনৈতিক বিশ্লেষক অ্যান্ড্রু করিবকো ইরানের প্রেস টিভিকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে গতকাল (শনিবার) এ মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, যেখানে আমেরিকা এবং তার মিত্ররা ধারণা করত যে, ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের ওপর তাদের একচেটিয়া সামরিক আধিপত্য থাকবে, সেখানে তেহরান আমেরিকার চাপিয়ে দেয়া আঞ্চলিক ক্ষমতার ভারসাম্য পরিবর্তন করে দিচ্ছে।

ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র

তিনি বলেন, ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি প্রকৃতপক্ষে কৌশলগত সামরিক হিসাব-নিকাশ পরিবর্তন করে দিয়েছে এবং দুই পক্ষের মধ্যে সঠিক ভারসাম্য স্থাপন করেছে। শুধু তাই নয়, ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি আমেরিকার জন্য সম্ভাব্য যুদ্ধ ব্যয় বাড়িয়ে দিয়েছে।

ইরান প্রতিরক্ষামূলক ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি পরিচালনা করতে পারে কিনা -এমন এক প্রশ্নের জবাবে আমেরিকার এই রাজনৈতিক বিশ্লেষক ইতিবাচক জবাব দেন। তিনি বলেন, জাতীয় নিরাপত্তাগত স্বার্থ রক্ষার অধিকার ইরানের আছে।

অ্যান্ড্রু করিবকো বলেন, ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচির কারণে আমেরিকা ও তার মিত্ররা নিরাপত্তাহীনতা অনুভব করছে। এজন্য তারা ইরানের সমরাস্ত্র কর্মসূচির লক্ষ্য-উদ্দেশ্য নিয়ে ভীতি ছড়াচ্ছে।#

পার্সটুডে/এসআইবি/২

ট্যাগ