মে ১৪, ২০২২ ০৬:১৪ Asia/Dhaka
  • ফিলিস্তিনি জনগণকে তাদের ঘরবাড়ি থেকে এক কাপড়ে বিদায় করে ইসরাইল নামক অবৈধ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করা হয়
    ফিলিস্তিনি জনগণকে তাদের ঘরবাড়ি থেকে এক কাপড়ে বিদায় করে ইসরাইল নামক অবৈধ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করা হয়

ইহুদিবাদী ইসরাইলি দখলদারদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ যুদ্ধে ফিলিস্তিনি জনগণের প্রতি ঐক্যবদ্ধভাবে সমর্থন জানাতে মুসলিম দেশগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছে তেহরান। ঐতিহাসিক নাকাবা বা বিপর্যয় দিবস পালনের প্রাক্কালে শুক্রবার ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতি প্রকাশ করে এ আহ্বান জানিয়েছে।

১৯৪৮ সালের ১৫ মে ফিলিস্তিন ভূখণ্ড থেকে সাড়ে সাত লাখের বেশি ফিলিস্তিনিকে বিতাড়িত করে ইসরাইল নামক অবৈধ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। সে সময় ফিলিস্তিনের মোট জনসংখ্যা ছিল ১৯ লাখ। অবৈধ রাষ্ট্র ইহুদিবাদী ইসরাইল প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর এ দিনটিকে প্রতি বছর নাকাবা বা বিপর্যয় দিবস পালন করেন ফিলিস্তিনিরা।

এ উপলক্ষে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, নাকাবা দিবস ফিলিস্তিন ভূখণ্ডের মূল অধিবাসীদের বিরুদ্ধে গণহত্যা ও তাদেরকে বিতাড়িত করার দিবস। এই দিনে দখলদার ইহুদিবাদীরা পদ্ধতিগতভাবে ফিলিস্তিনি জনগণের মানবাধিকার লঙ্ঘন করা শুরু করেছিল।

বিবৃতিতে বলা হয়, অপরাধী ইহুদিবাদীরা এই দিন থেকে কিছু পশ্চিমা দেশের সহযোগিতায় পবিত্র ফিলিস্তিনি ভূমি জবরদখল শুরু করে এবং মধ্যপ্রাচ্যে স্থায়ীভাবে নিরাপত্তাহীনতা ও অস্থিতিশীলতার বীজ বপন করে যা আজও চলমান রয়েছে।

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়, ইহুদিবাদী ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনের লক্ষ্যে কিছু আরব-মুসলিম দেশের প্রচেষ্টা সত্ত্বেও ফিলিস্তিন ইস্যু মুসলিম বিশ্বের এক নম্বর সমস্যা। এই ইস্যুকে মুছে ফেলার যে চেষ্টা ইহুদিবাদীরা করছে তা ব্যর্থ হবে। বিবৃতিতে ঐক্যবদ্ধ ও সংহতভাবে ফিলিস্তিনি জনগণের পাশে দাঁড়ানোর জন্য গোটা মুসলিম উম্মাহর প্রতি আহ্বান জানানো হয়।#

পার্সটুডে/এমএমআই/১৪

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ