জুলাই ২৮, ২০২২ ০৭:২৪ Asia/Dhaka
  • বুধবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে বক্তব্য রাখেন প্রেসিডেন্ট রায়িসি
    বুধবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে বক্তব্য রাখেন প্রেসিডেন্ট রায়িসি

ইরানের প্রেসিডেন্ট সাইয়্যেদ ইব্রাহিম রায়িসি আফগানিস্তানের কাছ থেকে হিরমান্দ নদীর ন্যায্য হিস্যা আদায় করার কাজে আরো বেশি সক্রিয় হতে পররাষ্ট্র ও পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দিয়েছেন। বুধবার তিনি মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ নির্দেশ দিয়ে বলেন, আফগান সীমান্তবর্তী ইরানের সিস্তান ও বালুচিস্তান প্রদেশের পানির চাহিদার প্রতি লক্ষ্য রেখে হিরমান্দ নদীর পানির হিস্যা আদায় করতে হবে।

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের কাছে হিন্দু কুশ পর্বতমালায় হিরমান্দ বা হেলমান্দ নদীর উৎপত্তি। এটি আফগানিস্তানের উপর দিয়ে প্রায় ৭০০ মাইল প্রবাহিত হওয়ার পর ইরানের সিস্তান ও বালুচিস্তান প্রদেশের হামুন জলাভূমিতে পড়েছে।

আফগানিস্তানের উপর দিয়ে প্রায় ৭০০ মাইল প্রবাহিত হওয়ার পর ইরানের সিস্তান ও বালুচিস্তান প্রদেশের হামুন জলাভূমিতে পড়েছে হিরমান্দ বা হেলমান্দ নদী

১৯৭২ সালে আফগানিস্তান ও ইরানের তৎকালীন সরকার হিরমান্দ নদীর পানিবণ্টন চুক্তি সই করেছিল। ওই চুক্তি অনুযায়ী ইরান প্রতি সেকেণ্ডে ২৬ ঘনমিটার এবং প্রতি বছর ৮২ কোটি ঘনমিটার পানি পাবে বলে কথা ছিল। তবে বিভিন্ন ঋতুতে পানিপ্রবাহে তারতম্য থাকার কথাও চুক্তিতে উল্লেখ ছিল।২০২১ সালের ১৫ আগস্ট আফগানিস্তানের ক্ষমতা গ্রহণ করার পর থেকে তালেবান সরকার ওই চুক্তি মেনে চলবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়ে আসছে।তবে দৃশ্যত নদী থেকে প্রয়োজনীয় পানি পাচ্ছে না ইরান।

প্রেসিডেন্ট রায়িসি মন্ত্রিসভার বৈঠকে ইরানের পররাষ্ট্র ও পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়কে বিষয়টি জোরালোভাবে তদারকি করার নির্দেশ দিয়ে বলেন, একটি জনপ্রিয় সরকার দেশের জনগণের অধিকার আদায়ের ক্ষেত্রে কোনো অবস্থায় পিছ-পা হয় না। মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর ইরানের জ্বালানী ও পানিসম্পদ মন্ত্রী আলী আকবর মেহরাবিয়ান সাংবাদিকদের জানান, তিনি হিরমান্দ নদীর পানির ন্যায্য হিস্যা আদায়ের ব্যাপারে আলাচনা করতে শিগগিরই কাবুল সফরে যাবেন।#

পার্সটুডে/এমএমআই/২৮

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

 

ট্যাগ