২০১৯-০৯-১৪ ০৭:২৩ বাংলাদেশ সময়
  • কানাডার রাজধানী অটোয়ার এই ভবন ও জমি ইরানের মালিকানায় থাকা সত্ত্বেও তা বিক্রি করে দিয়েছে অটোয়া
    কানাডার রাজধানী অটোয়ার এই ভবন ও জমি ইরানের মালিকানায় থাকা সত্ত্বেও তা বিক্রি করে দিয়েছে অটোয়া

কানাডায় ইরানের দু’টি সাংস্কৃতিক ভবন বিক্রি করে এর অর্থ জব্দ করার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে তেহরান। সম্প্রতি কানাডা সরকার সেদেশের একটি আদালতের রায় বাস্তবায়নের নামে রাজধানী অটোয়া ও টরেন্টো শহরে অবস্থিত ওই দুই ইরানি ভবন বিক্রি করে দিয়েছে।

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাইয়্যেদ আব্বাস মুসাভি বলেছেন, কানাডার আদালতের রায় সম্পূর্ণ বেআইনি এবং আন্তর্জাতিক আইনের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।

কানাডার একটি আদালত বিশ্বব্যাপী কথিত সন্ত্রাসী হামলায় নিহতদের পরিবারবর্গকে ক্ষতিপূরণ দেয়ার অজুহাত দেখিয়ে ইরানি ভবনগুলো বিক্রি করে দেয়ার নির্দেশ দিয়েছিল। অটোয়া কয়েকটি সন্ত্রাসী হামলার দায় ইরানের ওপর চাপিয়ে দেয়ার চেষ্টা করলেও তেহরান শুরু থেকেই এসব অবাস্তব ও ভিত্তিহীন অভিযোগ অস্বীকার করে এসেছে।   

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাইয়্যেদ আব্বাস মুসাভি

দু’দেশের মধ্যকার কূটনৈতিক বিনিময়ের চুক্তি অনুযায়ী, ওই ভবনগুলো ইরানের মালিকানায় ছিল এবং ইরানের পক্ষ থেকে এক সময় অর্থের বিনিময়ে এসব ভবন কেনা হয়েছিল। কানাডার বিভিন্ন সূত্র জানিয়েছে, ভবন দু’টি বিক্রি করে কানাডা সরকার ২ কোটি ৮০ লাখ ডলার অর্থ হস্তগত করেছে।

কানাডার গণমাধ্যমে গতকাল (শুক্রবার) এ সংক্রান্ত খবর প্রকাশিত হওয়ার পরপরই আব্বাস মুসাভি এক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, ইরানি জনগণের অধিকার সমুন্নত রাখার ক্ষেত্রে বিশ্বের কোনো দেশের সরকারের সঙ্গে তেহরান আপোষ করবে না এবং এ ঘটনায় কানাডা সরকারের কাছ থেকে ক্ষতিপূরণ আদায়ের জন্য আন্তর্জাতিক আদালতের শরণাপন্ন হবে।

সেক্ষেত্রে এর পরিণতির পুরো দায়ভার অটোয়া সরকারকে বহন করতে হবে। তিনি ইরানের ভবনগুলো অবিলম্বে তেহরানের মালিকানায় ফিরিয়ে দেয়ার জন্য কানাডা সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। #

পার্সটুডে/এমএমআই/১৪

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

 

ট্যাগ

মন্তব্য