২০১৯-০৯-২২ ২০:০৯ বাংলাদেশ সময়
  • ইরানের বিমান বাহিনীর মহড়া
    ইরানের বিমান বাহিনীর মহড়া

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের বিমান বাহিনীর ডেপুটি কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আহমাদ ওয়াহিদি বলেছেন, পারস্য উপসাগর এবং হরমুজ প্রণালী এলাকায় টেকসই শান্তি প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে ইরানের ভূমিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। পারস্য উপসাগর এলাকায় ইরান যৌথ মহড়া থেকে প্রতিবেশী দেশগুলোকে শান্তি এবং বন্ধুত্বের বার্তা পাঠিয়েছে।

পবিত্র প্রতিরক্ষা সপ্তাহ উপলক্ষে ইরানের বন্দর আব্বাস শহরে আয়োজিত এক সমাবেশে জেনারেল হামিদ এসব কথা বলেন। ১৯৮০ থেকে ১৯৮৮ সাল পর্যন্ত ইরাকের স্বৈরশাসক সাদ্দাম হোসেন ইরানের বিরুদ্ধে যে অন্যায় যুদ্ধ চাপিয়ে দিয়েছিলেন তার বার্ষিকী উপলক্ষে ইরান প্রতিবছর পবিত্র প্রতিরক্ষা সপ্তাহ পালন করে থাকে।

জেনারেল ওয়াহিদি বলেন, ইরান যে বিমান বাহিনীর সামরিক মহড়া চালালো তার একটি বড় লক্ষ্য হচ্ছে- দেশের পাইলটদের জ্ঞান বাড়ানো। এছাড়া, বিমান অভিযান পরিচালনার প্রস্তুতি তৈরি এবং পাইলটদের ভেতরে আশা সৃষ্টি ও ইরানের সীমান্তকে নিরাপদ রাখাও এ মহড়ার লক্ষ্য।

জেনারেল হামিদ ওয়াহিদি আরো বলেন, পারস্য উপসাগর ও হরমুজ প্রণালী এলাকার নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে চায় ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান। তিনি বলেন, পারস্য উপসাগরীয় এলাকা থেকে বিদেশি সেনা সরিয়ে দিয়ে এ অঞ্চলের দেশগুলোর সেনা মোতায়েন করলেই এখানে নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠিত হতে পারে বলে ইরান বিশ্বাস করে।#

পার্সটুডে/এসআইবি/২২

ট্যাগ

মন্তব্য