অক্টোবর ০২, ২০১৯ ০৬:৩৯ Asia/Dhaka
  • ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আমিরআলী হাজিযাদে
    ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আমিরআলী হাজিযাদে

ইরানের সামরিক সক্ষমতা মধ্যপ্রাচ্যে শক্তির ভারসাম্যে ব্যাপক মাত্রায় পরিবর্তন এনেছে বলে মন্তব্য করেছেন ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী- আইআরজিসি’র অ্যারোস্পেস ডিভিশনের কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আমিরআলী হাজিযাদে। তিনি বলেছেন, ইরানের সামরিক শক্তির কারণে এখন আর কেউ তেহরানের বিরুদ্ধে যুদ্ধের কথা মুখে আনে না।

জেনারেল হাজিযাদে তেহরানে আইআরজিসি’র কমান্ডারদের ২৩তম জাতীয় সম্মেলনে দেয়া বক্তব্যে এসব কথা বলেন। তিনি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, শত্রুরা যদি টহলরত ইরানি ড্রোনে আঘাত হানে তাহলে তাদেরকে ভয়াবহ পরিণতি ভোগ করতে হবে।

আইআরজিসি’র কমান্ডার-ইন-চিফ মেজর জেনারেল হোসেইন সালামি

আইআরজিসি’র এই কমান্ডার বলেন, ভূমি থেকে ভূমিতে, রণতরীতে এবং আকাশের লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানার ক্ষেপণাস্ত্রগুলোর পাশাপাশি অত্যাধুনিক ড্রোনগুলো ইরান সম্পূর্ণ নিজস্ব প্রযুক্তিতে তৈরি করেছে। কাজেই এগুলোর সক্ষমতা ও শক্তি সম্পর্কে শত্রুদের কোনো ধারনাই নেই। অবশ্য গত জুন মাসে ইরানের আকাশসীমা লঙ্ঘনকারী অত্যাধুনিক মার্কিন গোয়েন্দা ড্রোন ভূপাতিত করার পর আমেরিকা ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র শক্তি সম্পর্কে কিছুটা আঁচ করতে পেরেছে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

সম্মেলনে আইআরজিসি’র কমান্ডার-ইন-চিফ মেজর জেনারেল হোসেইন সালামি বলেছেন, ইরানের চারপাশে শত্রুর অবস্থানগুলোতে ভয়াবহ আঘাত হানার জন্য তার বাহিনী সব সময় প্রস্তুত রয়েছে। তিনি বলেন, ইরানে আগ্রাসন চালানোর মতো কাপুরুষতা দেখালে একটি শত্রু সেনাও পালিয়ে বাঁচতে পারবে না।#

পার্সটুডে/এমএমআই/২  

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

 

ট্যাগ

মন্তব্য