২০১৯-১০-১২ ০৬:৫৯ বাংলাদেশ সময়
  • অন্য চার দেশের নৌপ্রধানের সঙ্গে চুক্তিতে সই করছেন ইরানের নৌবাহিনীর কমান্ডার রিয়ার অ্যাডমিরাল হোসেইন খানযাদি (বাম থেকে দ্বিতীয়)
    অন্য চার দেশের নৌপ্রধানের সঙ্গে চুক্তিতে সই করছেন ইরানের নৌবাহিনীর কমান্ডার রিয়ার অ্যাডমিরাল হোসেইন খানযাদি (বাম থেকে দ্বিতীয়)

কাস্পিয়ান সাগর তীরবর্তী দেশগুলো একটি সামরিক সহযোগিতা চুক্তি সই করেছে। রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গে শুক্রবার এসব দেশের নৌবাহিনীর প্রধানগণ এ চুক্তি সই করেন।৯ অক্টোবর কাস্পিয়ান উপকূলবর্তী পাঁচ দেশের নৌপ্রধানরা তিন দিনব্যাপী বৈঠক শুরু করেন এবং বৈঠক শেষে শুক্রবার ওই চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

ইরানের নৌবাহিনীর গণসংযোগ বিভাগ জানিয়েছে, ইরানের নৌবাহিনীর কমান্ডার রিয়ার অ্যাডমিরাল হোসেইন খানযাদি তার দেশের পক্ষে এ চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। অ্যাডমিরাল খানজাদি এ সম্পর্কে বলেন, চুক্তিতে স্বাক্ষরকারী পাঁচ দেশ সামরিক প্রশিক্ষণ, সামরিক অভিযান, উদ্ধার ও ত্রাণ তৎপরতা এবং গোয়েন্দা তথ্য বিনিময়ে পররস্পরকে সহযোগিতা করবে।

ইরানের নৌবাহিনীর কমান্ডার রিয়ার অ্যাডমিরাল হোসেইন খানযাদি

ইরানের নৌপ্রধান বলেন, সেন্ট পিটার্সবার্গ বৈঠকে পাঁচ দেশের নৌবাহিনীর প্রধানরা এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন যে, কাস্পিয়ান সাগরে যেকোনো ধরনের সামরিক তৎপরতায় এসব দেশ পরস্পরকে সাহায্য করলেই এই সাগরের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা সম্ভব।

বিশ্বের বৃহত্তম প্রাকৃতিক হ্রদ- কাস্পিয়ান সাগরের তীরবর্তী পাঁচ দেশ হচ্ছে ইরান, রাশিয়া, কাজাকিস্তান, তুর্কমেনিস্তান ও আজারবাইজান। এসব দেশের প্রেসিডেন্টরা সম্প্রতি কাস্পিয়ান সাগরের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে কোনো বহিঃশক্তিকে নাক গলাতে দেয়া হবে না বলে সংকল্প ব্যক্ত করেন এবং তারা সামরিক সহযোগিতার বিষয়টি বিবেচনা করার কথাও ঘোষণা করেন।তারই জের ধরে এ সামরিক চুক্তি স্বাক্ষরিত হলো।#

পার্সটুডে/এমএমআই/১২

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ

মন্তব্য