২০১৯-১১-০৪ ১৬:৪৯ বাংলাদেশ সময়
  • সাম্রাজ্যবাদ-বিরোধী জাতীয় দিবসের বাণী হল আল্লাহ ছাড়া আর কারও কাছে মাথা নত না করা: ইরানি সেনাপ্রধান

তেহরানে আজ(মঙ্গলবার) পালিত হয়েছে সাম্রাজ্যবাদ-বিরোধী জাতীয় দিবস ও মার্কিন গুপ্তচরবৃত্তির আখড়া দখলের বার্ষিকী। তেহরানে সাবেক মার্কিন দূতাবাসের সামনে এ দিবস উপলক্ষে লাখো মানুষের সমাবেশে ইরানের সেনাবাহিনীর প্রধান মেজর জেনারেল মুসাভি বলেছেন, ১৩ অবন বা সাম্রাজ্যবাদ-বিরোধী জাতীয় দিবস ও মার্কিন গুপ্তচরবৃত্তির আখড়া দখলের বার্ষিকীর শিক্ষা হল আল্লাহ ছাড়া আর কারও কাছে মাথা নত না করা। সমাবেশে ছাত্রদের প্রতিনিধি ছাড়াও কয়েকজন ভাষণ দিয়েছেন।

সাম্রাজ্যবাদ-বিরোধী জাতীয় দিবসের বাণী হল আল্লাহ ছাড়া আর কারও কাছে মাথা নত না করা: ইরানি সেনাপ্রধান

গণ-সমাবেশ লাখো মানুষের কণ্ঠে উচ্চারিত হয়েছে আমেরিকা এবং ইহুদিবাদী ইসরাইল বিরোধী শ্লোগান। এ ছাড়া, মার্কিন ও ইসরাইলি পতাকায় আগুন দেয়া হয়েছে। এই দুই পতাকাকে পদদলিত করা হয়েছে।

১৯৭৯ সালের এ দিনে মার্কিন দূতাবাস দখল করে নিয়েছিল ইরানের বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল বিপ্লবী ছাত্র। বিপ্লবী ইরানের বিরুদ্ধে নাশকতামূলক তৎপরতায় জড়িত থাকায় এ দূতাবাসকে সেদিন লনে জাশুসি বা গুপ্তচরবৃত্তির আখড়া হিসেবে নাম করণ হয়েছিল।

আমেরিকা ধ্বংস হোক, ইহুদিবাদী ইসরাইল ধ্বংস হোক

এদিকে, শনিবার তেহরানে আমেরিকার সাবেক দূতাবাসের নিরাপত্তা দেওয়ালের চিত্রকর্ম উন্মোচন করেন ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা

'সর্বোচ্চ নেতা আমরা শেষ নিশ্বা:স পর্যন্ত প্রতিরোধ চালিয়ে যাবো' - হাতে লেখা রয়েছে

আইআরজিসি'র প্রধান মেজর জেনারেল হোসেইন সালামি। উন্মোচন অনুষ্ঠানে তিনি ঘোষণা করেন যে কোনও আগ্রাসন মোকাবেলায় আইআরজিসি'র প্রস্তুত রয়েছেন। এ সময়ে তিনি ইরানকে বিশ্বের অন্যতম একটি শক্তিশালী দেশ হিসেবে উল্লেখ করেন।

পার্সটুডে/মূসা রেজা/৪

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

 

ট্যাগ

মন্তব্য