নভেম্বর ২২, ২০১৯ ১৮:৪১ Asia/Dhaka
  • ‘ইরানে ৪৮ ঘণ্টায় দাঙ্গা নিয়ন্ত্রণে আসায় আমেরিকা নাখোশ হয়েছে’

ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি’র ডেপুটি কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আলী ফাদাভি বলেছেন, জ্বালানী তেলের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদের অজুহাতে ইরানে দাঙ্গা সৃষ্টির অপচেষ্টা মাত্র ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে নিয়ন্ত্রণ করে ফেলায় আমেরিকা নাখোশ হয়েছে। তিনি আরো বলেছেন, মাত্র ৪৮ ঘণ্টায় ইরানে দাঙ্গা নিয়ন্ত্রণ করে ফেলায় আমেরিকা চরম ক্ষুব্ধ হয়েছে বলে আমাদের হাতে তথ্য রয়েছে। সেইসঙ্গে নতুন করে আর গণ্ডগোল সৃষ্টি করতে না পারায়ও আমেরিকা চরম মনোকষ্টে ভুগছে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

ইরানে গত ১৫ নভেম্বর থেকে তেলের বর্ধিত মূল্য কার্যকর করা হয়। এর প্রতিবাদ জানাতে রাজধানী তেহরানসহ দেশের বিভিন্ন শহরের মানুষ রাস্তায় নেমে আসে। এ সময় সুযোগসন্ধানী কিছু দুস্কৃতকারী বিক্ষোভের নামে জনগণের জানমালের ব্যাপক ক্ষতি করার চেষ্টা চালায়। ইরানের ইসলামি সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করার স্বপ্নে বিভোর মার্কিন সরকার সুযোগ বুঝে দাঙ্গাকারীদের প্রতি প্রকাশ্যে সমর্থন জানায়।

অথচ ইরানের শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভকারীরা অতি দ্রুত নিজেদেরকে দাঙ্গাকারীদের থেকে আলাদা করে ফেলেন এবং মঙ্গলবার থেকে দেশের বিভিন্ন শহরে  নাশকতামূলক তৎপরতায় জড়িতদের বিরুদ্ধে বিশাল মিছিল করেন। আজও (২২ নভেম্বর) জুমার নামাজের পর দাঙ্গাকারীদের বিরুদ্ধে সারাদেশে অনুষ্ঠিত মিছিলে লাখ লাখ মানুষ অংশগ্রহণ করেন।

জেনারেল ফাদাভি আজ (শুক্রবার) আরো বলেন, মানুষের বসতবাড়ি, দোকান-পাট, হাসপাতাল, ব্যাংক ও গ্যাস পাম্পে হামলা কোনো বিক্ষোভকারীর কাজ হতে পারে না। নিছক দাঙ্গা ও গোলযোগ সৃষ্টির উদ্দেশ্যে এ ধরনের জঘন্য কর্মকাণ্ড চালানো হয়েছে। তিনি বলেন, বিক্ষোভ ও নাশকতার মধ্যে সুস্পষ্ট পার্থক্য রয়েছে। দেশের সাধারণ মানুষ তাৎক্ষণিকভাবে দাঙ্গাকারীদের থেকে নিজেদের সরিয়ে নেয়ায় আইআরজিসি’র কমান্ডার ইরানি জনগণকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, সারাদেশ থেকে পাওয়া খবরে জানা গেছে, নতুন করে আর কোথাও দাঙ্গা সৃষ্টির কোনো অপতৎপরতা চোখে পড়েনি।#

পার্সটুডে/এমএমআই/২২

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

 

ট্যাগ

মন্তব্য