জানুয়ারি ২৪, ২০২০ ০৬:৫৬ Asia/Dhaka
  • কুদস ফোর্সের নয়া কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ইসমাইল কায়ানি
    কুদস ফোর্সের নয়া কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ইসমাইল কায়ানি

মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ইরান অ্যাকশন গ্রুপের প্রধান ব্রায়ান হুক ইরানের কুদস ফোর্সের নয়া কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ইসমাইল কায়ানিকে হত্যা করার যে ন্যক্কারজনক ঘোষণা দিয়েছেন তার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে তেহরান। ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাইয়্যেদ আব্বাস মুসাভি বলেছেন, আমেরিকা যে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় সন্ত্রাসী হামলা চালায় তা হুকের কথায় আরেকবার প্রমাণিত হলো।

ব্রায়ান হুক গতকাল (বৃহস্পতিবার) সুইজার‍ল্যান্ডের ডেভোসে আরবি দৈনিক আশ-শারকুল আওসাতকে দেয়া সাক্ষাৎকারে বলেন, কুদস ফোর্সের নয়া কমান্ডার  কায়ানি যদি সাবেক কমান্ডার জেনারেল সোলাইমানির পথ অনুসরণ করেন তাহলে তাকেও একই পরিণতি ভোগ করতে হবে।

ব্রায়ান হুক

হুকের ওই ধৃষ্টতাপূর্ণ বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণায়ের মুখপাত্র আরো বলেন, ইহুদিবাদী ইসরাইলের পর আমেরিকা হচ্ছে দ্বিতীয় সরকার যে পূর্ব ঘোষণা দিয়ে সন্ত্রাসী হামলা চালায় এবং ভবিষ্যতও চালানোর হুমকি দেয়।

তিনি আমেরিকার এই হুমকিকে দেশটির দুর্বলতা, অসহায়ত্ব ও কিংকর্তব্যবিমূড়তা বলে মন্তব্য করেন।

গত ৩ জানুয়ারি ইরাকের বাগদাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে জেনারেল সোলাইমানিকে সন্ত্রাসী কায়দায় হত্যা করে মার্কিন বাহিনী। এরপর ইরানের সর্বোচ্চ নেতা হযরত আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী জেনারেল কায়ানিকে কুদস ফোর্সের কমান্ডার হিসেবে নিয়োগ দেন।

জেনারেল কায়ানি নিয়োগ পাওয়ার পর ৯ জানুয়ারি ইরানের সর্বোচ্চ নেতাকে জানান, সর্বশক্তি দিয়ে তিনি জেনারেল কাসেম সোলাইমানির পথ অনুসরণ করবেন। তিনি জানিয়েছেন, তার লক্ষ্য হবে পশ্চিম এশিয়া বা মধ্যপ্রাচ্য থেকে মার্কিন সেনাদের বহিষ্কার করা।  জেনারেল কাসেম সোলাইমানি পশ্চিম এশিয়ায় সন্ত্রাসবাদ বিরোধী লড়াইয়ে শ্রেষ্ঠ কমান্ডার হিসেবে ব্যাপকজনপ্রিয় হয়েছিলেন।#                                                                                             

পার্সটুডে/এমএমআই/২৪

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ

মন্তব্য