জানুয়ারি ২৬, ২০২০ ০৭:৩৬ Asia/Dhaka
  • ইরানের উপ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাইয়্যেদ আব্বাস আরাকচি
    ইরানের উপ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাইয়্যেদ আব্বাস আরাকচি

ইরানের উপ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাইয়্যেদ আব্বাস আরাকচি বলেছেন,আমেরিকার রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসবাদী হামলায় ইরানি জেনারেল কাসেম সোলাইমানির হত্যাকাণ্ডের ফলে পশ্চিম এশিয়ায় মার্কিন সেনা উপস্থিতি অবসানের ক্ষেত্র প্রস্তুত হয়েছে।

তিনি শনিবার নিজের অফিসিয়াল টুইটার পেজে লিখেছেন, আমেরিকার ইরান-বিরোধী সর্বোচ্চ চাপ প্রয়োগের নীতি বড় ধরনের ব্যর্থতার সম্মুখীন হয়েছে। কিন্তু আমেরিকার উগ্রপন্থি নেতাদের ইরান সম্পর্কে কোনো জ্ঞান না থাকার কারণে তারা তাদের ব্যর্থ নীতি অব্যাহত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

আরাকচি বলেন, মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনভিজ্ঞ  ব্যক্তিরা এতটাই অন্ধ যে, পশ্চিম এশিয়া থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের দাবিতে বিপুল জনগোষ্ঠীর বিক্ষোভ মিছিল তাদের চোখে পড়ে না।

জেনারেল সোলাইমানি- আবু মাহদি আল-মুহান্দিস

গত ৩ জানুয়ারি শুক্রবার ভোররাতে ইরাকের রাজধানী বাগদাদের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে জেনারেল সোলাইমানিকে বহনকারী গাড়ির ওপর ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে মার্কিন সন্ত্রাসী সেনারা। হামলায় ইরাকের জনপ্রিয় স্বেচ্ছাসেবী বাহিনী হাশদ আশ-শাবির উপ প্রধান আবু মাহদি আল-মুহান্দিসসহ দুই দেশের আরো ৮ কমান্ডার শহীদ হন।

মার্কিন সেনারা এমন সময় জেনারেল সোলাইমানির উপর ওই হামলা চালায় যখন তিনি ইরাকের প্রধানমন্ত্রী আদেল আব্দুল মাহদির রাষ্ট্রীয় আমন্ত্রণে বাগদাদ সফরে গিয়েছিলেন।

জেনারেল সোলাইমানির হত্যাকাণ্ডের পরপরই ইরাকি পার্লামেন্ট দেশটি থেকে মার্কিন সেনা বাহিষ্কারের বিল পাস করে। এ ছাড়া, গত শুক্রবার ইরাকের প্রায় ২০ লক্ষ মানুষ রাজধানী বাগদাদে বিক্ষোভ মিছিল করে তাদের দেশ থেকে মার্কিন সেনা বহিষ্কারের দাবি জানায়।

পার্সটুডে/এমএমআই/২৬

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ

মন্তব্য